২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যশোরে অসম বিয়ে ॥ গণধোলাই

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ মণিরামপুরে ১২ বছরের শিশুকে ৪২ বছরের এক বরের সঙ্গে বিয়ের ঘটনায় বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী বরকে পাকড়াও করে গণধোলাই দিয়েছে। গণধোলাই থেকে বাদ পড়েনি নববধূ রুপিয়া খাতুন নয়লার পিতা মোহনপুর গ্রামের নজরুল ইসলাম ও তার স্ত্রীও। বরের বাড়ি নড়াইল জেলার কালিয়া উপজেলার চাঁদপুর গ্রামে। সে ওই গ্রামের মৃত আক্কাজ আলী মোল্যার পুত্র। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার বিকালে।

গ্রামবাসী জানায়, কয়েক দিন আগে নয়লার মা কোহিনুর বেগম পাড়ার কাউকে না জানিয়ে পার্শ্ববর্তী কেশবপুর বাজারে জনৈক মৌলভীর মাধ্যমে মেয়েকে বিয়ে দেয়। রবিবার বিকালে বর মন্টু স্ত্রীকে নিতে শ্বশুরবাড়ি আসে। মেয়েকে বরের হাতে তুলে দিতে শিশুটির মা কোহিনুর বেগম আসবাবপত্র, তৈজসপত্র গুচ্ছিয়ে দিচ্ছিল। বিষয়টি তখনই ফাঁস হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে বিয়ের ঘটনাটি জানাজানি হলে এই অসম বিয়ের কারণে গ্রামবাসী ফুঁসে ওঠে। গ্রামবাসী শিশুটির পিতা নজরুল, মা কোহিনুর এবং বর মিন্টুকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ শিশুটিসহ তার মা, কথিত বরকে থানায় নিয়ে আসে। পরে উপজেলা নির্বাহী কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুজ্জামানের ভ্রাম্যমাণ আদালত বর মন্টুকে এক মাসের জেল এবং কনের পিতা-মাতাকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।