১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নীলফামারীতে এক পরিবারকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ নীলফামারীর কিশোরীগঞ্জ উপজেলা সদরের কেশবা যুগীপাড়া গ্রামে সোমবার ভোরের দিকে ঘরে তালা দিয়ে পেট্রোল ছিটিয়ে এক পরিবারের পাঁচ সদস্যকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করা হয়েছে। তালাবদ্ধ পরিবারের সদস্যদের চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে এসে ঘরের দরজা ভেঙ্গে তাদের উদ্ধার করে।

কেশবা যুগীপাড়া গ্রামের মৃত রহিমুদ্দীনের দ্বিতীয় পুত্র জুলফিকার আলী ভুট্ট। রবিবার রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে বাড়ির লোকজন ঘুমিয়ে পড়ে। ভোরের দিকে হঠাৎ বাড়ির আধাপাকা ঘরের ওপর দাউ দাউ করে আগুন জ্বলে উঠে। এ সময় পরিবারের সদস্যরা ঘর থেকে বেরোনোর চেষ্টা করলে দরজায় বাইরে থেকে তালা লাগানো থাকায় তারা আটকা পড়ে। পরিবারের সদস্যরা বাঁচাও বাঁচাও চিৎকার করলে এলাকার লোকজন ছুটে এসে ঘরের দরজা ভেঙ্গে তাদের উদ্ধার করে। এ সময় বাড়ির আঙ্গিনায় দুর্বৃত্তদের ফেলে যাওয়া পেট্রোলের পাত্র পাওয়া যায়।

বাড়ির মালিক জুলফিকার আলী ভুট্ট জানান, আগুনের সময় দরজায় তালা মেরে বন্ধ করে দেয়ায় ঘরের জানালা খুলে দেখি দুই মুখোশধারী লোক পালিয়ে যাচ্ছে। ভুট্টর অভিযোগ এনজিও গার্ড মোশাররফ হোসেন আমার অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়েকে বিয়ে করার প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু তিনি এতে রাজি না হওয়ায় তার মেয়েকে স্কুল যাওয়া আসার সময় উত্ত্যক্ত করত। তিনি এ বিয়য়ে ওই এনজিওতে অভিযোগ করলে তার চাকরি চলে যায়। ধারণা করা হচ্ছে ওই ঘটনার জের ধরেই আগুন দেয়া হয়।