২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হসজু ও ব্রনটি ক্যাম্পবেলের ডাবল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কেট ক্যাম্পবেলের কণিষ্ঠ সহোদরা হিসেবে এবার রাশিয়ার কাজানে চলমান বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপসে সবার নজর কেড়েছেন ব্রনটি ক্যাম্পবেল। সবচেয়ে জমজমাট এবং আকর্ষণীয় ইভেন্ট ছিল যখন দু‘বোন একইসঙ্গে স্বর্ণপদকের জন্য ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে লড়ছিলেন পরস্পরের বিপক্ষে। শেষ পর্যন্ত জয়ী হয়েছিলেন ছোট বোন ব্রনটি। এবার ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলেও স্বর্ণপদক জিতে চলতি আসরে নিজের ডাবল পূর্ণ করেছেন ২১ বছর বয়সী এ অস্ট্রেলিয়ান তরুণী। এ ইভেন্টে কোন পদকই জিততে পারেননি তার বড় বোন কেট, হয়েছেন চতুর্থ। এছাড়াও বিশেষ নজর ছিল হাঙ্গেরির কাটিঙ্কা হসজুর দিকে। তিনিও ডাবল পূর্ণ করেছেন মিডলে ইভেন্টে। ২০০ মিটারের পর এবার ৪০০ মিটার মিডলেতেও স্বর্ণ জিতেছেন তিনি। পুরুষদের সাঁতারে ১৫০০ মিটার ফ্রিস্টাইলের বিশ্বরেকর্ডধারী চাইনিজ সাঁতারু সান ইয়াং হার্টের সমস্যায় নিজেকে ফাইনাল থেকে সরিয়ে নেন। সুযোগ কাজে লাগিয়ে ইতালির গ্রেগোরিও প্যালট্রিনিয়েরি স্বর্ণপদক জয় করেন।

১৫০০ মিটার ফ্রিস্টাইল শুরুর অপেক্ষায় সাঁতারুরা। শুধু একজনই আসেননি। তিনি এ ইভেন্টের বিশ্বরেকর্ডধারী চাইনিজ তারকা সান ইয়াং। প্রাথমিক অবস্থায় জানা যায়নি তার অনুপস্থিতির কারণ। প্যালট্রিনিয়েরি ১৪ মিনিট ৩৯.৬৭ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণপদক নিশ্চিত করেন। ১.৫৩ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কনোর জ্যাগার রৌপ্য এবং কানাডার রায়ান কচরেন ব্রোঞ্জ জয় করেন। পরবর্তীতে জানা যায় হার্টের সমস্যার কারণে ফাইনালে অংশ নেননি ২৩ বছর বয়সী সান। এবারও দুর্দান্ত ফর্মে থেকে তিনি ৪০০ ও ৮০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে স্বর্ণ জিতেছিলেন। কিন্তু কিছু সাঁতারুর দাবি সাঁতারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিনা (এফআইএনএ) তাকে বিরত করেছিলেন অংশগ্রহণ করা থেকে। কারণ ব্রাজিলিয়ান সাঁতারু ল্যারিসা অলিভেইরাকে রবিবার অনুশীলনের সময় পুলে কনুই দিয়ে গুঁতো দিয়েছিলেন। ফিনার কাছে এমন অভিযোগই করেছিলেন অলিভেইরা। পুরুষদের ৪০০ মিটার ব্যক্তিগত মিডলেতে ৪ মিনিট ৮.৫০ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জিতেছেন জাপানের দাইয়া সেতো। গত আসরেও এ ইভেন্টে চ্যাম্পিয়ন ছিলেন তিনি। হাঙ্গেরির ডেভিড ভেরাসটো ১.৪০ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে রৌপ্য এবং যুক্তরাষ্ট্রের চেজ ক্যালিজ ব্রোঞ্জ জেতেন। একই দিনে যুক্তরাষ্ট্রের পুরুষ দল ৪ী১০০ মিটার মিডলে রিলেতে স্বর্ণ জয় করে ৩ মিনিট ২৯.৯৩ সেকেন্ড সময় নিয়ে। মাত্র ০.১৫ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে রৌপ্য পায় যুক্তরাষ্ট্র আর গতবারের চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স পেয়েছে ব্রোঞ্জ। মহিলাদের ৪ী১০০ মিটার মিডলে রিলেতে ৩ মিনিট ৫৪.৪১ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জিতেছে চীনের মেয়েরা। সুইডিশ তরুণীরা ০৮৩ সেকেন্ড পিছিয়ে রৌপ্য এবং অস্ট্রেলিয়া ১.১৫ সেকেন্ড পিছিয়ে ব্রোঞ্জ জয় করে। তবে ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে সবাইকে হতবাক করে দিয়েছেন সুইডেনের জেনি জোহানসন। তিনি ৩০.০৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ পদক জয় করেন। লিথুয়ানিয়রার ১০০ মিটারে অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন রুটা মেলুটাইট চতুর্থ হয়েছেন। জ্যামাইকার আলিয়া এ্যাটকিনসন মাত্র ০.০৬ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে রৌপ্য নিয়েই সন্তুষ্ট থাকেন। রাশিয়ার ১০০ মিটার চ্যাম্পিয়ন জুলিয়া এফিমোভাও ছিলেন খুব নিকটেই, মাত্র ০.০৮ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে তিনি ব্রোঞ্জ জিততে পেরেছেন। এটিই ২৭ বছর বয়সী জোহানসনের প্রথম বিশ্ব আসরের স্বর্ণপদক। গত বছরও তিনি ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপসে বার্লিনে ৫০ ও ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে রৌপ্য জিততে পেরেছিলেন। চলমান বিশ্ব সাঁতারে অবশ্য এখন বিশেষ নজর কেড়ে নিয়েছেন ব্রনটি ক্যাম্পবেল। কারণ ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে স্বর্ণ জিতে চমক জাগিয়েছিলেন কেটের ছোট বোন ব্রনটি। এবারও কেট পারেননি তার সঙ্গে। ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে কোন পদকই জিততে ব্যর্থ হয়েছেন কেট। কিন্তু ব্রনটির কাছে ধরা দিয়েছে আরেকটি স্বর্ণালী সাফল্য। মাত্র ২৪.১২ সেকেন্ড সময় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হন ২১ বছর বয়সী এ অসি তারকা। হারিয়ে দিয়েছেন গতবারের চ্যাম্পিয়ন হল্যান্ডের রানোমি ক্রোমোভিদজোকে। মাত্র ০.১০ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে তিনি রৌপ্য জয় করেন। কেট ০.২৪ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে চতুর্থ হন। সুইডেনের সারাহ সিওস্ট্রম ব্রোঞ্জ জেতেন ০.১৯ সেকেন্ড পিছিয়ে। এ নিয়ে চলতি আসরে তিন স্বর্ণপদক জিতলেন ব্রনটি। দলগত ৪ী১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে স্বর্ণ এবং ৪ী১০০ মিটার মিডলে রিলেতে ব্রোঞ্জও জিতেছেন। এ বিষয়ে উচ্ছ্বাস জানিয়ে ব্রনটি বলেন, ‘এটা সত্যিই অবিশ্বাস্য। আমি যে জিতেছি সেটা ঠিক বিশ্বাস করতে পারছি না। সবকিছুই এবার যেন আমার পক্ষেই ঘটছে।’ ‘আইরন লেডি’ হসজুর ঝড় অব্যাহত রেখেছেন। ব্যক্তিগত মিডলেতে ডাবল জয়ও করে ফেলেছেন। ২০০ মিটার মিডলেতে স্বর্ণ জয়ের পর এবার জিতেছেন ৪০০ মিটার ব্যক্তিগত মিডলেতেও। ৪ মিনিট ৩০.২৯ সেকেন্ড সময় নিয়ে শেষ করেন তিনি।