২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কারবারের চতুর্থ শিরোপা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মৌসুমের চতুর্থ শিরোপা জিতলেন এ্যাঞ্জেলিক কারবার। রবিবার স্ট্যানফোর্ড টুর্নামেন্টের ফাইনালের তিন সেটের ম্যারাথন লড়াইয়ে তরুণ প্রতিভাবান খেলোয়াড় ক্যারোলিনা পিসকোভাকে পরাজিত করেন তিনি। টুর্নামেন্টের পঞ্চম বাছাই এ্যাঞ্জেলিক কারবার ৬-৩, ৫-৭ এবং ৬-৪ গেমে প্রতিপক্ষকে হারিয়ে শিরোপা জয়ের স্বাদ পান। এ জন্য জার্মানির এই টেনিস তারকার সময় লাগে ২ ঘণ্টা সাত মিনিট। ক্যারোলিন পিসকোভাকে হারিয়ে ফাইনাল জিতে উচ্ছ্বসিত কারবার। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহেই শুরু হবে মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেন। ডব্লিউটিএ স্ট্যানফোর্ড ওপেন জেতায় স্বাভাবিকভাবেই ফেবারিট হিসেবে কোর্টে নামবেন তিনি।

গত কয়েক মৌসুম ধরেই টেনিস কোর্টের পরিচিত মুখ এ্যাঞ্জেলিক কারবার। কিন্তু দুর্ভাগ্য তার। এখন পর্যন্ত বড় কোন ইভেন্ট জিততে পারেননি তিনি। টেনিসের সর্বোচ্চ টুর্নামেন্ট গ্র্যান্ডসøামে তার সেরা ফলাফল সেমিফাইনাল। ২০১১ সালে ইউএস ওপেনের সেমিতে উঠা এ্যাঞ্জেলিক কারবার পরের বছর উইম্বল্ডনের শেষ চারের টিকেট নিশ্চিত করেন। তবে এবার স্ট্যানফোর্ড ওপেনের শুরু থেকেই ফেবারিট ছিলেন তিনি। ফাইনাল জিতে শেষ পর্যন্ত তার প্রমাণও দিয়েছেন জার্মানির এই টেনিস তারকা। তবে শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে তার প্রতিপক্ষও যে শক্তিশালী ছিল সেটা ফলাফল দেখেই বুঝা যায়। সেটা মানছেন কারবারও। এর আগেও ফাইনালে মুখোমুখি হন এই দুই তারকা। কিন্তু শেষ ফাইনালেও জয়ের দেখা পেয়েছিলেন জার্মান তারকা। এবার চেক প্রজাতন্ত্রের টেনিস তারকা পিসকোভার বিপক্ষে জয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে দেয়া এক সাক্ষাতকারে কারবার বলেন, ‘প্রতিপক্ষ হিসেবে পিসকোভা খুবই শক্তিশালী। এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। তাছাড়া আমরা দুজনই যেবারই ফাইনালে উঠি সেই লড়াইটা বেশ কষ্টকর হয়েছে। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়।’

অন্যদিকে ক্যারোলিনা পিসকোভার বয়স মাত্র ২৩। ইতোমধ্যেই তার পারফর্মেন্স মুগ্ধ করেছে টেনিসপ্রেমীদের। এখন পর্যন্ত টেনিসের মেজর শিরোপা জিততে না পারলেও মহিলা এককে চার শিরোপা জিতেছেন তিনি। স্ট্যানফোর্ডে দ্বিতীয়বারের মতো কারবারের বিপক্ষে ফাইনালে মুখোমুখি হন তিনি। কিন্তু এবারও ব্যর্থতাকে সঙ্গী করে কোর্ট ছাড়তে হয়েছে তাকে। তবে ম্যাচ শেষে কৌতুক করেই চেক তারকা বলেন, ‘আমি আসলে কারবারকে আগেই বলেছিলাম যে তার বিপক্ষে আর কোন ফাইনালে আমি খেলতে চাই না। সে এখন আমার বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে। তাই আশা করি পরবর্তীতে অন্য কারও বিপক্ষে ফাইনাল খেলে শিরোপা জিততে পারব।’

আগামী ৩১ আগস্ট থেকে শুরু হবে মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেন। তারই প্রস্তুতিমঞ্চ হিসেবে বিবেচিত হয় স্ট্যানফোর্ড ওপেন। আর এখানে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মানে স্বাভাবিকভাবেই মানসিকভাবে এগিয়ে থেকে কোর্টে নামা। তেমনটা প্রত্যাশা করছেন ২৭ বছর বয়সী জার্মান তারকা এ্যাঞ্জেলিক কারবারও। ইউএস ওপেনে এ্যাঞ্জেলিক কারবারের সর্বোচ্চ ফল সেমিফাইনাল। ২০১১ সালে মেজর এই টুর্নামেন্টের শেষ চারের টিকেট নিশ্চিত করেছিলেন তিনি। দীর্ঘ চার বছর পর আবারও ফেবারিট হিসেবে কোর্টে নামতে যাচ্ছেন জার্মান তারকা। আর চার বছর আগের কারবারের মধ্যে বর্তমান কারবারের ব্যবধান অনেক। নিজেকে এখন অনেক বেশি পরিপক্ব মনে করেন তিনি। তাই এবার আর সেমিফাইনালেই আটকে থাকতে চান না এই জার্মানি। বরং ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ইউএস ওপেন জিততে চান তিনি। তবে পারবেন কী অসম্ভব সেই অর্জনের মাইলফলক স্পর্শ করতে? ভক্ত-অনুরাগীদের সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।

স্ট্যানফোর্ড ওপেন জেতার একদিন পর আরেকটি পুরস্কার পেলেন কারবার। টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের উন্নতি হয়েছে তার। সোমবার প্রকাশিত সর্বশেষ এটিপি র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী তিন ধাপ উন্নতি হয়েছে জার্মান তারকার। বর্তমানে তার অবস্থান ১১তম। কারবারের মতো সমান তিন-ধাপ এগিয়ে এসেছেন ক্যারোলিনা পিসকোভাও। তার অবস্থান এখন আটে।