১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গাড়ি চুরির কাজ হয় তিন ধাপে

  • RAB তথ্য

স্টাফ রিপোর্টার ॥ গাড়ি চুরি চক্রের সদস্যরা তিন ধাপে কাজ করে। এক ধাপের কাজ শেষ হলেই তাকে পরিশোধ করা হয় পারিশ্রমিক। এমন তথ্যই প্রকাশ করেছেন র্যাব-৪ এর পরিচালক (সিও) খন্দকার লুৎফুল কবির।

রাজধানীর মিরপুরে RAB-৪ এর কার্যালয়ে সোমবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি। গাড়ি চুরি চক্রের সদস্যরা প্রথমে যাত্রী বেশে গাড়ি ভাড়া করে ও সুযোগ বুঝে সুবিধামতো স্থানে তা ছিনতাই করে। পরে ছিনতাই করা গাড়িটি নিয়ে দ্বিতীয় দল এর রং ও আকৃতি পরিবর্তন করে। সবশেষে তৃতীয় দলটি চোরাই গাড়িটি বিক্রি করে। এ জন্য পারিশ্রমিকের টাকাও দেয়া হয় নগদ। যার কষ্ট বেশি তার টাকাও বেশি।

র্যাব দীর্ঘ নজরদারির পর সাভারের আমিন বাজার এলাকায় খন্দকার হোসেন প্লাজার সামনে থেকে রবিবার রাত ১টার দিকে গাড়ি চুরি চক্রের সাত সদস্যকে আটক করে র্যাব-৪ সদস্যরা। আটকরা হলেন মো. জাকির হোসেন (৪০), মোঃ মোহসীন (৪০), মোঃ রহমান (৫০), মোমিনুর রহমান (৫৭), মোবারক হোসেন (৪০), মনির হোসেন (৩৭) ও মোঃ হেলাল (৫২)।

লুৎফুল কবির জানান, আটকদের কাছ থেকে দু’টি প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়। এ চক্রের সদস্যরা ছিনতাইয়ের জন্য নির্দিষ্ট স্থানে নিয়ে যাওয়ার পর ভাড়া করা গাড়ির চালককে প্রয়োজনে হত্যাও করে। তারা দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে গাড়ি চুরি করে আসছে। ভুক্তভোগী শাহাদাত হোসেনের (৩০) অভিযোগের ভিত্তিতে ওই সাতজনকে আটক করা হয়েছে।