২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জাপানে ফের পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র চালু

অনলাইন ডেস্ক ॥ ফুকুশিমা পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিপর্যয়ে ২০১১ সাল থেকে বন্ধ থাকার পর নতুন নিরাপত্তা আইনের অধীনে প্রথমবারের মতো একটি পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র আবার চালু করেছে জাপান।

ওই বছর প্রলয়ঙ্করী ভূমিকম্পের পর ভয়াবহ সুনামির আঘাতে জাপানের ফুকুশিমার পরমাণু ‍বিদ্যুৎ কেন্দ্রের চুল্লি নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার বিপর্যয়ে চুল্লি গলে তেজস্ক্রিয়তা ছড়িয়ে পড়ে। পরিবেশ বিপর্যয়কারী ওই দুর্ঘটনার পর একে একে জাপানের সবগুলো পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হয়।

কিন্তু নতুন করে আরোপিত কঠোর নিরাপত্তা পরীক্ষায় উৎরানোর পর মঙ্গলবার সকালে কিউশু ইলেকট্রিক পাওয়ার কোম্পানি সেনদাইতে অবস্থিত তাদের এক নম্বর পুরমাণু চুল্লি ফের চালু করেছে।

তবে পরমাণু বিদ্যুৎ প্রকল্প ফের চালু করা নিয়ে দেশটির জনগণের মধ্যে অস্বস্থি কাজ করছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

প্রতিবাদকারীরা সেনদাই প্রকল্পের বাইরে এবং প্রায় এক হাজার কিলোমিটার দূরে প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছে।

ফুকুশিমা ধরনের দুর্ঘটনা আর কখনো ঘটবে না বলে কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে।

কিউশু জানিয়েছে, সেনদাইয়ের এক নম্বর চুল্লিটি সকাল সাড়ে ১০টা (স্থানীয় সময়) থেকে আবার কাজ শুরু করেছে।

কিউশু ইলেকট্রিকের মুখপাত্র তোমোসিতসু সাকাতা জানিয়েছেন, কোনো সমস্যা ছাড়াই চুল্লিটি ফের চালু করা গেছে।

২৪ ঘণ্টা পার হলে চুল্লিটি পুরোপুরি উৎপাদনের পর্যায়ে যাবে এবং শুক্রবার থেকে প্রকল্পের বিদ্যুৎ সরবরাহ করা যাবে বলে প্রত্যাশা করছেন প্রকল্প পরিচালকরা।

সেপ্টেম্বরের কোনো এক সময় চু্ল্লিটি পুরো মাত্রায় বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করবে।

সোমবার প্রধানমন্ত্রী অ্যাবে বলেছেন, “চুল্লিটি বিশ্বের সবচেয়ে কঠোর নিরাপত্তা পরীক্ষা পার করেছে। কিউশু ইলেকট্রিককে নিরাপত্তাকে অগ্রাধিকার দেওয়ার এবং চুল্লি চালু করার আগে সর্বোচ্চ পূর্বসতর্কতা অবলম্বন করার আহ্বান জানাচ্ছি।”

দেশটির বন্ধ থাকা আরো ২৫টি পরমাণু প্রকল্প চুল্লি ফের চালু করার অনুমতি চেয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়েছে। কিন্তু এদের সবাইকেই স্থানীয় বাসিন্দাদের আইনি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিবিসি প্রতিনিধি।