২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বগুড়ায় শিশু নির্যাতন ॥ গৃহকর্ত্রী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ বগুড়ায় সালমা আক্তার (১৪) নামে শিশু গৃহকর্মীকে আটকে রেখে অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগে সেলিনা বেগম (৪৫) নামে এক গৃহকর্ত্রীকে গ্রেফতার হয়েছে। পুলিশ তার বাসা থেকে নির্যাতিত শিশুটিকে সোমবার সন্ধ্যায় উদ্ধার করে।

পুলিশ ও নির্যাতিত শিশু গৃহকর্মীর পরিবার সূত্র জানায়, শহরের ঠনঠনিয়া পশ্চিমপাড়া এলাকার সেলিনা বেগমের বাড়িতে সালমা নামের শিশুটি ৮/১০ বছর ধরে কাজ করছে। তার বাড়ি গাইবান্ধার গোবিন্দঞ্জ উপজেলার পেরাপুর এলাকায়। এই দীর্ঘ সময় শিশুটিকে তার বাড়িতে যেতে দেয়া হয়নি। তাকে তালাবদ্ধ করে বাসায় রাখা হতো। গৃহকর্ত্রী তাকে আটকে রেখে বিভিন্ন সময় নির্যাতন চালাত বলে অভিযোগ করা হয়েছে। সর্বশেষ রমজান মাসেও শরীরে ছ্যাঁকাসহ মারপিট করা হয়। সালমার নানা ইউসুফ জানান, সালমার একটি ছোট বোন রয়েছে। একেবারে শিশু বয়সে তাদের মা মারা যায়। এর পর থেকে সালমা গৃহকর্মী হিসেবে সেলিনা বেগমের বাড়িতে আসে। এই দীর্ঘ সময়ে তাকে আর বাড়িতে যেতে দেয়া হয়নি। এতে পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে তার পরিচয়ও হয়নি আগে। মাঝে মাঝে নানা ইউসুফ ঠনঠনিয়ায় সেলিনা বেগমের বাড়ির সামনে এলে ওপর তালা থেকে সালমাকে দেখিয়ে গৃহকর্ত্রী তাকে চলে যেতে বলত।

দু’দিন আগে পরিবারের লোকজন শিশু সালমাকে গ্রামের বাড়িতে নেয়ার জন্য এলে তাদের ফিরিয়ে দেয়া হয়। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় সালমার আত্মীয়স্বজন বিষয়টি পুলিশকে জানায়। সোমবার সন্ধ্যায় পুলিশ ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে শিশু গৃহকর্মীকে উদ্ধার ও গৃহকর্ত্রীকে আটক করে।ম এতেই শিশু নির্যাতনের অমানবিক ঘটনা বেরিয়ে আসে। তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসার পর পরিবারের অন্য সদস্যদের পরিচয় হয়। দেখা হয় আপন ছোট বোন সাবিনার সঙ্গে। সহোদর হলেও প্রথম দেখা দু’ বোনের। ঘরে নয়, দেখা হলো থানায়। মঙ্গলবার সকালে থানায় গিয়ে দেখা গেছে নিজের চেয়ে দু’ বছরের বড় বোন সালমার করুণ অবস্থা দেখে ছোট বোন সাবিনার চোখ ভিজে উঠছে। কিছুতেই বিস্মেেয়র ঘোর কাটছে না তার। সালমার গোটা শরীরে নির্যাতনের চিহ্ন, চোখে হতবিহবল দৃষ্টি। গৃহকর্মী হিসেবে অন্যের বাড়িতে কাজ করার কারণে দু’জনের আগে দেখা হয়নি। মঙ্গলবার এ বিষয়ে বগুড়া সদর থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। বগুড়া সদর থানার ওসি আবুল বাশার জানিয়েছেন. শিশুটির গায়ে নির্যাতনের চিহ্ন রয়েছে।