২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে সূচকের সঙ্গে লেনদেনের পতন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের উভয় বাজারে দরপতন অব্যাহত রয়েছে। টানা তিন দিনই দরপতনে শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারের লেনদেন। মঙ্গলবার দুই স্টক এক্সচেঞ্জেই লেনদেনের পরিমাণ কমে গেছে। টানা সূচকের পতনের কারণে উভয় বাজারেই বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণও কমে গেছে। একইসঙ্গে কমেছে তালিকাভুক্ত বেশিরভাগ কোম্পানির দর। আগের দিনের মতো মঙ্গলবারেও চাহিদার শীর্ষে ছিল কিছু স্বল্প মূলধনী বা জাঙ্ক কোম্পানি। বাজার বিশ্লেষকরা মনে করছেন, বাজারে সাধারণত মূল্য সংশোধন হলে এই কোম্পানিগুলোর চাহিদা বাড়ে। একশ্রেণীর বিনিয়োগকারী স্বল্প মূলধনী কোম্পানিগুলোর অস্বাভাবিক দর বাড়িয়ে শেয়ার বিক্রি করে থাকে। তাই সাধারণ বিনিয়োগকারীদের বাজারের ওই সব কোম্পানি থেকে সতর্ক থাকারও পরামর্শ দেন তারা।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মঙ্গলবার ডিএসইতে ৫৪৬ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা আগের দিনের তুলনায় ১১৩ কোটি ৩৮ লাখ টাকা বা ১৭ দশমিক ১৭ শতাংশ কম লেনদেন। আগের দিন এ বাজারে ৬৬০ কোটি ৩৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

দিনটিতে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩২০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১১টির, কমেছে ১৭৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির শেয়ার দর।

সকালে নেতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরের ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ২৪ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৭৯১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ১৮৪ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮৫৯ পয়েন্টে। টাকার পরিমাণে ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো- ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, ইসলামী ব্যাংক, ফার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল, বেঙ্গল উইন্ডসোর থার্মোপ্লাস্টিক লিমিটেড, গ্রামীণফোন, এ্যাপোলো ইস্পাত, বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড এবং লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড।

ডিএসইর দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : নদার্ন জুটস, ৭ম আইসিবি, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, মুন্ন স্টাফলারস, ন্যাশনাল টিউবস, ফার্মা এইড, আরামিট, সিভিও পেট্রো কেমিক্যাল, সোনালী আঁশ ও মুন্নু সিরামিক।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো : ৪র্থ আইসিবি, স্টাইল ক্রাফট, বিডি ওয়েল্ডিং, এশিয়ান টাইগার মিউচুয়াল ফান্ড, কে এ্যান্ড কিউ, এইচ আর টেক্সটাইল, প্রগেসিভ লাইফ, ইবিএলএনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ ও লিব্রা ইনফিউশন।

মঙ্গলবারে ঢাকার মতো অপর বাজার চট্টগ্রামেও সব ধরনের সূচকের সঙ্গে লেনদেন কমেছে। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩৮ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৮৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৭০৩ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৫৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭০টি কোম্পানির, দর কমেছে ১৫৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টি কোম্পানির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, সিভিও পেট্রো কেমিক্যাল, ওলিম্পিক এক্সেসরিজ, বেক্সিমকো, বিএসআরএম লিমিটেড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ইউনাইটেড এয়ার, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেড, আর্গন ডেনিমস ও স্কয়ার ফার্মা।