২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কৃষ্ণকলির অন্যরকম অনুভূতি

  • রজার্স কাপে পেনেত্তার মুখোমুখি সেরেনা, ভেনাসকে হারিয়ে লিসিকির চমক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত এক বছরে টেনিস কোর্টে সেরেনা উইলিয়ামস তার দাপট দেখিছেন। গত মৌসুমের ইউএস ওপেনসহ নতুন মৌসুমের প্রথম তিন গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের সবই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন তিনি। সর্বশেষ উইম্বল্ডনে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ‘সেরেনা সøাম’ জয়ের রেকর্ডও গড়েন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান এই তারকা। সামনে এখন নতুন মাইলফলকের হাতছানি। একই ক্যালেন্ডারে সব গ্র্যান্ডসøাম জয়ের বিস্ময়কর কীর্তি। ইউএস ওপেন শুরুর পূর্ব মুহূর্তে সেরেনা জানালেন কেমন তার অনুভূতি। এ বিষয়ে আমেরিকান টেনিস তারকা বলেন, ‘এই অনুভূতিটা অবশ্যই অন্যরকম। কারণ সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে এর আগে কখনই এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়নি আমি। চলতি বছরেই আমি শুধু ‘সেরেনা সøাম’ জয়ের স্বাদ পেয়েছি। যার ফলে আমার চাপ অনেকটাই কমে গেছে।’

আগামী ৩১ আগস্ট শুরু হবে মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেন। চোট কাটিয়ে সোমবারই অনুশীলনে ফিরেছেন তিনি। রজার্স কাপের মাধ্যমে। আর এখানেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হতে হয় দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সেরেনাকে। রজার্স কাপে সেরেনা উইলিয়ামস টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় পর্বে মুখোমুখি হবেন ইতালিয়ান তারকা ফ্লাভিয়া পেনেত্তার বিপক্ষে। ইউএস ওপেনের প্রস্তুতি মঞ্চে সেরেনাকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়ে বেশ সতর্ক পেনেত্তা। তার মতে, এখানেই বুঝতে পারবেন ফ্ল্যাশিং মিডোজে নিজেকে মেলে ধরতে পারবেন কি না। এ বিষয়ে তার অভিমত হলো, ‘আমার খুবই ভাল লাগছে। কারণ আমি বিশ্বের একজন সেরা খেলোয়াড়ের বিপক্ষে খেলব। তাছাড়া তার বিপক্ষে খেলা মানে এটাও জানা যাবে যে আমি আসলে কেমন অবস্থানে আছি। আমি নিজেকে জানতে চাই।’

তবে রজার্স কাপে নামার আগে সেরেনা উইলিয়ামস টেনিস কোর্টের বাইরের খবরেও বিশ্বকে রীতিমতো চমকে দিয়েছেন। যদিওবা ফটোশূট করাটা সেরেনা উইলিয়ামসের নতুন কিছু নয়। কিন্তু নিউইয়র্ক পত্রিকায় হট ফটোশূট করে রীতিমতো ঝড় তুললেন আমেরিকান টেনিসের এই জীবন্ত কিংবদন্তি। সোমবার নিউইয়র্ক পত্রিকার শিরোনামে আসেন তিনি। যেখানে কিছু হট ছবি প্রকাশিত হয়েছে তার। এই ঘটনায় ইউএস ওপেনের আগে টেনিসের বাইরেও এখন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে সেরেনা। ফটোশূটে কালো পোশাক পড়ে ছবি তুলেছেন তিনি। যেখানে নিজের নমনীয়তার পাশাপাশি শক্তিও দেখিয়েছেন ২১ গ্র্যান্ডসøামের মালিক। একজন নারী ক্রীড়াবিদ হিসেবে কী করতে পারে সেটাও দেখিয়েছেন আমেরিকান তারকা। এর আগেও হট ছবি তুলে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে এসেছিলেন তিনি। তবে এবার যে অতীতের সব আলোচনা-সমালোচনাকেই ছাড়িয়ে যাবেন সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। সেরেনার বর্তমান বয়স তেত্রিশ। এই বয়সে টেনিস কোর্টে যেমন প্রতিপক্ষের জন্য রীতিমতো হুমকির নাম। তেমনি প্রমাণ করেছেন অন্য ফিল্ডেও সমান দক্ষ অভিনেতা তিনি।

তবে টেনিস কোর্টের বাইরের আলোচনা-সমালোচনায় কান দিতে নারাজ সেরেনা। গত মাসে উইম্বল্ডনে সবচেয়ে বেশি বয়সী প্রমীলা খেলোয়াড় হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন তিনি। ইউএস ওপেন জিততে পারলে নিজেকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবেন উইলিয়ামস পরিবারের ছোট মেয়ে। তাই সব মনোযোগ এখন ফ্ল্যাশিং মিডোজেই দিতে চান সেরেনা। কিন্তু সেরেনা দুর্দান্ত ফর্মে থাকলেও ইউএস ওপেনের আগে আরেকটি ধাক্কা খেলেন তারই বড় বোন ভেনাস উইলিয়ামস। রজার্স কাপের প্রথম পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছেন তিনি। সোমবার টুর্নামেন্টের প্রথম পর্বে জার্মানির সাবিনে লিসিকির কাছে পরাজিত হন তিনি। প্রতিভাবান খেলোয়াড় হিসেবে লিসিকি ইতোমধ্যেই নজর কুড়িয়েছেন। ইউএস ওপেনের আগে ভেনাস উইলিয়ামসকে হারিয়ে পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখার ইঙ্গিত দিলেন তিনি। সাবিনে লিসিকি রজার্স কাপের প্রথম পর্বে ৬-০ এবং ৬-৩ গেমে পরাজিত করেন আমেরিকার ১৪তম বাছাই ভেনাস উইলিয়ামসকে।