২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বীরোচিত জয়ে সেমিতে বাংলাদেশ

  • বাংলাদেশ ৪- শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সিলেটে চলমান ‘সাফ অনুর্ধ ১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ’-এ মঙ্গলবার টুর্নামেন্টের তৃতীয় খেলায় নিজেদের প্রথম ম্যাচে খেলতে নেমে বীরোচিত জয়ে শেষ চারে নাম লিখিয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে বিকেলে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে তারা প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কাকে ৪-০ গোলে রীতিমতো উড়িয়ে দিয়ে ম্যাচ শেষে মাতে জয়োল্লাসে। বিজয়ী ‘বেঙ্গল টাইগার্স’ কিশোর দলের সারোয়ার জামান নিপু জোড়া গোল করে। এছাড়া একটি করে গোল করে আবেদীন রাকিব এবং মোহাম্মদ আতিকুজ্জামান। আগামীকাল মুখোমুখি হবে মালদ্বীপ-আফগানিস্তান। ১৩ আগস্ট মাঠে নামবে সাফ ফুটবলের অন্যতম দুই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বাংলাদেশ ও ভারত। এ ম্যাচের মাধ্যমেই নির্ধারিত হবে কে হবে ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল। ভারত তাদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৫-০ গোলে হারিয়েছে। এবার বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কাকে হারাল ৪-০ গোলে। আক্ষেপ একটাইÑ ভারতের চেয়ে এক গোল কম দিয়েছে তারা। এখন এই এক গোলের ঘাটতিই আবার স্বাগতিক দলের গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়াতে পারে, যদি বাংলাদেশ ড্র করে ভারতের সঙ্গে। তবে বাংলাদেশ জিতে গেলে তো কথাই নেই। পরিষ্কার গ্রুপসেরা হয়েই খেলতে নামবে সেমিফাইনালের ম্যাচ। আর হেরে গেলে সেমি খেলতে হবে গ্রুপ রানার্সআপ হিসেবে।

ম্যাচের আগের দিন বাংলাদেশকে হারিয়ে টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে বদ্ধপরিকর ছিল শ্রীলঙ্কা। এটা ছিল তাদের জন্য ‘বাঁচা-মরার’ ম্যাচ। হারলেই বিদায়। সেই বাঁচামরার ম্যাচে মরতেই হলো রাবণের দ্বীপদেশ লঙ্কাকে। তাও আবার করুণভাবে হেরে। তবে এতে বাংলাদেশের কিছু আসে যাবে না। তারা আনন্দিত এমন বড় জয়ে। বাংলাদেশ অধিনায়ক শাওন হোসেন ম্যাচের আগের দিন বলেছিল, ‘অনেক খেলোয়াড় আছে যারা বেশি সমর্থক দেখলে নার্ভাস হয়ে স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারে না। আবার অনেকে আছে বেশি সমর্থক থাকলে সেরাটা খেলে। আমার দলের কে কিভাবে সেটা নেবে এখনও বলতে পারছি না।’ শাওনের এই আশঙ্কা ছিল ভুল। ঘরের মাঠে দর্শক পরিপূর্ণ মাঠে খেলতে নেমে বড় জয় কুড়িয়ে নিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথমার্ধে ম্যাচের ৫ মিনিটেই প্রথম গোল করে বাংলাদেশ। নিপুর গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা (১-০)। যদিও দুই মিনিট আগে অফসাইডের কারণে বাংলাদেশের একটি গোল বাতিল হয়ে যায়। ১৯ মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বাংলাদেশ অধিনায়ক শাওনের সরাসরি শটটি রুখে দিয়ে দলকে বাঁচায় লঙ্কান গোলরক্ষক। বিরতির পর ৬০ মিনিটে আবেদীন রাকিবের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বাংলাদেশ (২-০)। ৬৭ মিনিটে সারোয়ার নিপুর আরেকটি শট গোলবারে লেগে ফিরে আসলে গোলবঞ্চিত হয় বাংলাদেশ। ৭৬ মিনিটে মাথায় কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে হেড আতিক গোল করলে ব্যবধান দাঁড়ায় ৩-০। ৮৬ মিনিটে সারোয়ারের ব্যক্তিগত দ্বিতীয় গোলে ৪-০ গোলে আবারও এগিয়ে যায় স্বাগতিক দল। মাঝমাঠ থেকে লম্বা পাসে বল পেয়ে লঙ্কান গোলরক্ষককে একা পেয়ে আলতো টোকায় বল পাঠায় সারোয়ার।

ম্যাচের বাকি সময় আর কোন গোল না হলে ৪-০ গোলে জিতে তৃপ্তি সহকারে মাঠ ছাড়ে সৈয়দ গোলাম জিলানীর কিশোর শিষ্যরা।

প্রথম রাউন্ড শেষে সরাসরি সেমিফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। ১৬ আগস্ট প্রথম সেমিফাইনাল এবং ১৭ আগস্ট দ্বিতীয় সেমিফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১৮ আগস্ট।