২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফার্গুসনে নতুন করে সহিংসতা ঠেকাতে জরুরী অবস্থা

যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরি অঙ্গরাজ্যের ফার্গুসনে শ্বেতাঙ্গ পুলিশের গুলিতে নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ মাইকেল ব্রাউন নিহত হওয়ার বর্ষপূর্তিতে সহিংসতার পর সেন্ট লুইস শহর ও আশপাশের এলাকায় জরুরী অবস্থা জারি করা হয়েছে। নতুন করে সহিংসতা ঠেকাতেই এই জরুরী অবস্থার ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যেই সেন্ট লুইসের ফার্গুসনে প্রতিবাদকারীরা সোমবার সন্ধ্যায় ও মঙ্গলবার সকালে ফের জড়ো হয়। খবর এএফপি, বিবিসি ও ওয়েবসাইটের।

ফার্গুসনের রাজপথে জড়ো হওয়া বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে মঙ্গলবার সকালে দাঙ্গা পুলিশের সংঘর্ষ হয়। বিক্ষোভ অংশ নেয় প্রায় ২০০ বিক্ষোভকারী। তাদের কারও হাতে ছিল পতাকা। কারও সঙ্গে ঢাকঢোল। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের বিরুদ্ধে সেøাগান দেয়। ২০১৪ সালে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা ড্যারেন উইলসনের গুলিতে ব্রাউন নিহত হওয়ার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে গিয়েছিল। রবিবার ব্রাউনের নিহত হওয়ার বর্ষপূর্তিতে সারাদিন শান্তিপূর্ণভাবে বিভিন্ন প্রতিবাদ কর্মসূচী পালিত হলেও গভীর রাতে পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলিতে ১৮ বছর বয়সী এক তরুণ গুরুতর আহত হন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। আহত টাইরন হ্যারিসকে সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি অভিযোগ এনেছেন স্থানীয় পাবলিক প্রসিকিউটর। অভিযোগগুলো হলো আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার ওপর হামলা, পুলিশে কাজে বাধা প্রধান এবং আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে গাড়িতে গুলিবর্ষণ। আড়াই লাখ ডলারের বিনিময়ে তার জামিন নির্ধারণ করা হয়েছে। পুলিশ বলেছে, ওই সমাবেশ থেকে প্রথম পুলিশের দিকে গুলি ছুড়েছিল এমন ছয় ব্যক্তির একজন হ্যারিস। তবে হ্যারিসের বাবা জানিয়েছেন, তার ছেলে নিরস্ত্র ছিল এবং পুলিশ যখন হামলা চালায় তখন সে ঘটনাস্থল থেকে দৌড়ে পালাচ্ছিল। যুক্তরাষ্ট্রের এ্যাটর্নি জেনারেল লোরেটা লিঞ্চ ওই সহিংস হামলার ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন।