২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জবানবন্দী রেকর্ড রাঙ্গাবালীর শিশু নির্যাতনকারী ওয়াদুদ গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, গলাচিপা, পটুয়াখালী ॥ রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের মনিপাড়া গ্রামে ১৩ বছরের শিশু সজিবের ওপর নির্যাতন ঘটনার মূল আসামি ওয়াদুদ মল্লিককে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। পুলিশ শিশু সজিবকেও উদ্ধার করেছে। গলাচিপা উপজেলা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোঃ শিহাবুল ইসলাম বুধবার নির্যাতনের শিকার শিশু সজিবের জবানবন্দী রেকর্ড করেছেন। এ ঘটনায় এর আগে শিশু সজিবের মালিক আব্বাস চৌধুরী রাঙ্গাবালী থানায় ওয়াদুদ মল্লিককে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই কমল চন্দ্র দে জানান, শিশু সজিব কয়েক বছর ধরে মনিপাড়া গ্রামের আব্বাস চৌধুরীর বাড়িতে রাখালের কাজ করছে। সোমবার সন্ধ্যায় মহিষ পেটানোর জের ধরে ওয়াদুদ মল্লিক শিশু সজিবকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করে। স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাতে অভিযান চালিয়ে নির্যাতনকারী ওয়াদুদ মল্লিককে গ্রেফতার করা হয়। শিশু সজিবকেও উদ্ধার করে আদালতে হাজির করা হয়। শিশু সজিব আদালতের বিচারকের কাছে তার ওপর নির্যাতনের বর্ণনা দিয়েছে। মামলার একমাত্র আসামি ওয়াদুদ মল্লিককে আদালতের বিচারক জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন। তদন্ত কর্মকর্তা আরও জানান, নির্যাতনের কারণে সজিব অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসা নিতেও বাধা দেয়া হয়। শিশু সজিব সংবাদকর্মীদের জানায়, টুঙ্গিবাড়িয়া গ্রামের ওয়াদুদ মল্লিক খেলার মাঠ থেকে ডেকে নিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে তাকে নির্মম নির্যাতন করে। সে ওয়াদুদ মল্লিকের একটি মহিষকে লাঠি দিয়ে পিটিয়েছিল। মহিষটি একটি শিশুকে তাড়া করেছিল। মহিষটিকে সে বাধা না দিলে শিশুটিকে মেরে ফেলত। এ অপরাধেই তাকে মারা হয়।

উল্লেখ্য, বুধবার দৈনিক জনকণ্ঠের শেষ পাতায় ‘রাঙ্গাবালীতে মহিষ পেটানোয় শিশুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন ॥ বাধা চিকিৎসায়ও’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।