২১ জানুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আরও দুই রুটে মেট্রোরেল চালুর সম্ভাব্যতা যাচাই করছে জাপান

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর যানজট নিরসনে মেট্রোরেল নির্মাণে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। এরি ধারাবাহিকতায় এয়ারপোর্ট-কমলাপুর ও গাবতলী-ভাটারা পর্যন্ত আরও দুই রুটে মেট্রোরেল চালুর জন্য শীঘ্রই সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শুরু করবে জাপান সরকার।

বুধবার সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত শেষে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের একথা জানান। সম্প্রতি জাপান সফরে দেশটির বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা করে রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাতের পর দুটি রুটে মেট্রোরেল প্রকল্পের বিষয়ে জানান ওবায়দুল কাদের।

মন্ত্রী বলেন, জাপানের শীর্ষ ২০টি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে মতবিনিময়ে বাংলাদেশের অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পে তাদের অংশগ্রহণের সুযোগ কতটুকু, আমাদের টেন্ডার প্রক্রিয়া কতটা স্বচ্ছ এসব নিয়ে কথা হয়েছে। জাপানী সহযোগী সংস্থা জাইকার ফান্ডে এমআরটি লাইন-৬ (নির্মাণাধীন মেট্রোরেল) শুরু হয়েছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী ১৬ আগস্টের ফিজিক্যাল ওয়ার্কের নির্মাণ কাজের সূচনা করতে যাচ্ছি।

শুধু এ কয়টা করেই যানজটের সমাধান পাওয়া যাবে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, জাপানের কাছে আরও দুটি মেট্রোরেল এমআরটি লাইন-১ ও এমআরটি লাইন-৫ এর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এয়ারপোর্ট-খিলক্ষেত-ভাটারা-বাড্ডা-রামপুরা-খিলগাঁও (পূর্বাচলসহ)-কমলাপুর পর্যন্ত এমআরটি-১ এর দৈর্ঘ্য হবে ২৮ কিলোমিটার। আর গাবতলী-দারুস সালাম-মিরপুর ১-মিরপুর ১০-খিলক্ষেত-বনানী-ভাটারা রুটে ১৩ কিলোমিটারের এমআরটি-৫ লাইন নির্মাণ হবে। মন্ত্রী বলেন, দুটি মেট্রোরেলের বিষয়ে জাপান পজেটিভলি রেসপন্স করেছে। তারা বলেছে, সম্ভাব্যতা যাচাই কাজ প্রক্রিয়াধীন। যত শীঘ্র সম্ভব তারা এ কাজ শুরু করবে। যমুনা নদীর নিচ দিয়ে ১৩ কিলোমিটারে দীর্ঘ একটি টানেল নির্মাণ করা হবে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এই টানেলের প্রস্তাবে জাপান স্টাডি করে রেসপন্স করবে। এশিয়ান হাইওয়ের সঙ্গে কানেকটিভিটিতে এই টানেল ভূমিকা রাখবে এবং উত্তর জনপদের সঙ্গে রাজধানী ঢাকার কানেকটিভিটি আরও সুদৃঢ় করতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, এসব বিষয় নিয়ে জাপানী রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ফলোআপ ছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে তাদের সঙ্গে আমাদের যে সম্পর্ক রয়েছে তা কীভাবে আরও এগিয়ে নেয়া যায়, সে বিষয়ে আলাপ-আলোচনা হয়েছে। তিনি জানান, আগামী ১৬ আগস্ট রাজধানীর উত্তরা থেকে যাত্রাবাড়ীর কুতুবখালী পর্যন্ত ২০ দশমিক এক কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের নির্মাণকাজ শুরু হবে।

নির্বাচিত সংবাদ