২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ক্রসড্যামে জলাবদ্ধতা ॥ আমন চাষ বিঘ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা, সান্তাহার, ১২ আগস্ট ॥ অতি বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পানিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতার কারণে বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলায় চলতি মৌসুমে কৃষকরা আমন ধান রোপণ করতে পারছেন না। আমন ধান রোপণ মৌসুম প্রায় শেষ হওয়ার পর্যায়ে আসলেও উপজেলার রক্তদহ বিলের আশপাশ এলাকার নিচু জমিতে কৃষকরা ধান রোপণ করতে পারেনি।

জানা গেছে, উপজেলার আদমদীঘি সদর, সান্তাহার ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকার প্রায় দুই হাজার হেক্টর জমিতে আমন চাষ ব্যাহত হচ্ছে। গত বছর কম বৃষ্টিপাত হওয়ায় কৃষকরা শ্রাবণ মাসের মাঝামাঝি সময়ে কৃষকরা এ সব জমিতে আমন রোপণ শেষ করে ফেলেছিলেন। কিন্তু এ বছরের চিত্র একেবারে আলাদা। বৃষ্টির পানি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলের পানিতে বিপুল পরিমাণ জমি এখনও অনাবাদি রয়েছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে উপজেলা ছয়টি ইউনিয়ন ও একটি পৌর এলাকার প্রায় ১২ হাজার হেক্টর জমিতে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। বর্তমানে আদমদীঘি সদর ইউনিয়নের কদমা, করজবাড়ি, দক্ষিণগনিপুর, রামপুরা, ম-বপুরা, জোড়পুকুরিয়া, সান্তাহার ইউনিয়নের কাশিমিলা, প্রসাদখালি, দমদমা, সান্দিড়া, ছাতনী, ঢেকড়া এবং সান্তাহার পৌসভার মালশন, তারাপুর ও কাজিপুর গ্রামের বিপুল পরিমাণ জমি এখনও পানির নিচে তলিয়ে রয়েছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার শাহাদুজ্জামান বলেন, আমন ধান রোপণের জন্য আরও বেশকিছু সময় রয়েছে। এর মধ্যে পানি নেমে গেলে কৃষকরা স্বাভাবিকভাবে ধান রোপণ করতে পারবেন। যদি পানি নামতে দেরি হয় সে ক্ষেত্রে বিকল্প ধান রোপণের জন্য কৃষকদের পরামর্শ দেয়া হবে।

তিনি বলেন, রক্তদহ বিলের বিভিন্ন শাখা খালে ক্রসড্যাম নির্মাণ করার কারণে পানি নামার স্বাভাবিক গতি কমে গেছে ফলে সৃষ্টি হচ্ছে জলাবদ্ধতা। এ ক্ষেত্রে বরেন্দ্র কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। এছাড়াও একাধিক বড় মাঠের পাশ দিয়ে থাকা সড়কের ব্রিজ ও কালভার্টের পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ থাকাও জলাবদ্ধতার কারণ বলে কৃষকদের সূত্রে জানা গেছে।