২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গল টেস্ট ॥ দ্বিতীয় দিনেই বিপাকে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস রিপোর্টার॥ কুমার সাঙ্গাকারার বিদায়ী সিরিজ। দারুন কিছু করে এ কিংবদন্তিকে বিদায় দেয়ার প্রত্যয় নিয়ে নেমেছিল স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। কিন্তু কথা এবং কাজের মধ্যে বিস্তর ফারাক। উল্টো সফরকারী ভারতীয় দলই দ্বিতীয় দিনশেষে আছে গলে চলমান প্রথম টেস্টে চালকের আসনে। আর চরম বিপদে লঙ্কানরা। প্রথম ইনিংসের মতোই লঙ্কানদের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই হামলে পড়েছেন দুই স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও অমিত মিশ্র। মাত্র ৫ রান তুলতেই দুই ওপেনারকে হারিয়েছে লঙ্কানরা। সে কারণে গল টেস্টের দ্বিতীয় দিনশেষে ১৮৭ রানে পিছিয়ে এখন স্বাগতিকরা। আগের দিনের ২ উইকেটে ১২৮ রান নিয়ে খেলতে নেমে এর আগে প্রথম ইনিংসে ভারত গুটিয়ে যায় ৩৭৫ রানে।

শিখর ধাওয়ান ও বিরাট কোহলিকে থামাতে পারেনি শ্রীলঙ্কার বোলাররা। আগের দিন মাত্র ২৮ রানেই দুই উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল তারা। কিন্তু এরপর ধাওয়ান ৫৩ ও কোহলি ৪৫ রান নিয়ে অপরাজিত থেকে নির্বিঘেœ দিন শেষ করেছিলেন। দ্বিতীয় দিনের শুরু থেকেও তাঁরা আস্থার সঙ্গে মোকাবেলা করেছেন লঙ্কান বোলিং বিভাগের আক্রমণ। দু’জনেই শতক হাঁকান। ধাওয়ান ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরি পেয়ে যান। আর কোহলি নিজের একাদশতম। তৃতীয় উইকেটে তাঁদের ২২৭ রানে জুটি অনেক বড় একটি সংগ্রহের পথ বাতলে দিয়েছে সফরকারী ভারতীয় দলকে। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটে এটিই ভারতের তৃতীয় উইকেটে সেরা জুটির রেকর্ড। তবে টেস্ট ক্রিকেটে পরিস্থিতি পাল্টে যেতে সময় লাগেনা। সেঞ্চুরিয়ান কোহলি ও পরে আজিঙ্কা রাহানেকে মাত্র ৯ বলের ব্যবধানে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়ে ঠিকই ঘুরে দাঁড়ায় শ্রীলঙ্কা। তবে দুজনের বিরুদ্ধে দেয়া এলবিডব্লিউ’র সিদ্ধান্ত বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। তরুন অফস্পিনার থারিন্ডু কৌশলকে যেন উপহার দেয়া হয়েছে প্রশ্নবিদ্ধ আউট দিয়ে।

আগের দিন ধাম্মিকা প্রসাদ আর অধিনায়ক এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস দ্রুত দুটি সাফল্য এনে দিয়েছিলেন লঙ্কানদের। দ্বিতীয় দিনে তাঁর কেউ আর দ্বিতীয় কোন সাফল্য পাননি। তবে টানা দুই উইকেট নেয়ার পর তরুন থারিন্ডু ভারতীয় ব্যাটিং বিভাগকে মুড়ে দিয়েছেন। তাঁর সঙ্গে যোগ দেন পেসার নুয়ান প্রদীপ। কোহলি ১১ চারে ১০৩ রানে ফেরার পর রাহানে শুন্য। পরে ধাওয়ানকে শিকার করেন প্রদীপ সরাসরি বোল্ড করে। ধাওয়ান ২৭১ বলে ১৩ চারে ১৩৪ রান করেছিলেন। এরপর একাই সংগ্রাম করেছেন উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহা। তিনি ১২০ বলে ৬ চার ও ১ ছক্কায় ৬০ রান করে বিদায় নেয়ার পর আর বেশিক্ষণ টেকেনি ভারতের ইনিংস। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেন থারিন্ডু। প্রদীপ নেন ৩ উইকেট। ২ উইকেটে ২৫৫ থেকে ৩৭৫ রানে অলআউট হয় এ দু’জনের ভয়াল বোলিংয়ে। ১২০ রানেই শেষ ৮টি উইকেট খোয়ায় তারা। ভারতীয় স্পিনারদের দাপটে প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৮৩ রানেই মুখ থুবড়ে পড়েছিল শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই আবার একই বিপদে পড়েছে তারা। দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম ওভারেই আঘাত হেনে ওপেনার দিমুথ করুনারতেœকে (০) ফিরিয়ে দেন অশ্বিন। পরের ওভারে কুশল সিলভাকেও শুন্য রানে ফিরিয়ে দেন মিশ্র। দুই উইকেট ৫ রান নিয়ে দারুন বিপদে পড়া লঙ্কানরা এখনও পিছিয়ে ১৮৭ রানে।

স্কোরকার্ড॥ শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস- ১৮৩/১০; ৪৯.৪ ওভার (ম্যাথুস ৬৪, চান্দিমাল ৫৯; আশ্বিন ৬/৪৬, মিশ্র ২/২০) ও দ্বিতীয় ইনিংস- ৫/২; ৪ ওভার (করুনারতেœ ০, সিলভা ০, প্রসাদ ৩*, সাঙ্গাকারা ১*; অশ্বিন ১/০, মিশ্র ১/১, হরভজন ০/৪)।

ভারত প্রথম ইনিংস- প্রথম দিনশেষে ১২৮/২ (৩৪ ওভার; ধাওয়ান ৫৩*, কোহলি ৪৫*, রোহিত ৯, রাহুল ৭; ম্যাথুস ১/১২, প্রসাদ ১/২২) এবং দ্বিতীয় দিন- ৩৭৫/১০; ১১৭.৪ ওভার (ধাওয়ান ১৩৪, কোহলি ১০৩, রাহানে ০, ঋদ্ধিমান ৬০, অশ্বিন ৭, হরভজন ১৪, মিশ্র ১০, ইশান্ত ৩*, এ্যারন ৪, অতিরিক্ত ২৪; থারিন্ডু ৫/১৩৪, প্রদীপ ৩/৯৮, ম্যাথুস ১/১২, প্রসাদ ১/৫৪)।

*দ্বিতীয় দিনশেষে।