২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ আমি অবৈধভাবে বাড়ি দখল করিনি ॥ কাজী ফিরোজ রশীদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আমি অবৈধভাবে বাড়ি দখল করিনি। যদি অবৈধভাবে দখল নিতাম তাহলে মন্ত্রী থাকা অবস্থাই তা করতাম। যা আমি করিনি। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে বারোটায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) প্রধান কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে জাতীয় পার্টির নেতা ও ঢাকা-৬ আসনের সাংসদ কাজী ফিরোজ রশীদ সাংবাদিকদের কাছে এসব কথা বলেন। জালিয়াতির মাধ্যমে ধানম-িতে সরকারী বাড়ি দখলের অভিযোগ অনুসন্ধানে প্রায় দুই ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় কাজী ফিরোজ রশিদকে। পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, দুদক আজ শুধু কাগজপত্র চেয়েছিল। এজন্য কাগজপত্র নিয়ে এসেছি। এ বিষয়ে তারা সিদ্ধান্ত নেবেন। আমি কোন বাড়ি দখল করিনি। যদি অবৈধভাবে বাড়িটি দখল নিতাম তাহলে মন্ত্রী থাকা অবস্থায় তা করতাম।

তিনি আরও বলেন, বাড়ির মালিকরা আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছে। সাব-জুডিশিয়াল কোর্টে মামলায় আমার পক্ষে রায় দেয়। পরবর্তীতে মালিকপক্ষ আবার আপীল করে। ফলে বিষয়টি এখনও বিচারাধীন। যেহেতেু বিচারাধীন বিষয় তাই এ বিষয়ে আর কিছু বলতে চাচ্ছি না। দুদকের উপ-পরিচালক ও অভিযোগটির অনুসন্ধানী কর্মকর্তা জুলফিকার আলী তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। অভিযোগের বিষয়ে দুদক সূত্র জানায়, রাজধানীর ধানম-ি আবাসিক এলাকার ২ নম্বর রোডে অবস্থিত এক বিঘা আয়তনের ১০ নম্বর (পুরাতন ৭০) প্লটটি ভুয়া দাতা সাজিয়ে আত্মসাত করেন কাজী ফিরোজ রশীদ। এক সময় বাড়িটির মালিক ছিলেন তৎকালীন পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী।