১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নেত্রকোনার দুই রাজাকার আব্দুর রহমান ও আহাম্মদ আলী জেলে

  • যুদ্ধাপরাধী বিচার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের ম্ুিক্তযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে নেত্রকোনার পূর্বধলার গ্রেফতারকৃত দুই রাজাকার আব্দুর রহমান ও আহাম্মদ আলীকে কারাগারে পাঠিয়েছে ট্রাইব্যুনাল। চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এ আদেশ প্রদান করেছেন। এ সময় ট্রাইব্যুনালে প্রসিকিউটর মোখলেসুর রহমান বাদল ও সাবিনা ইয়াসমিন মুন্নি উপস্থিত ছিলেন।

ওই দু’জন পূর্বধলার মানবতাবিরোধী অপরাধের একটি মামলার সাত আসামির অন্যতম। বুধবার তাদের সবার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর পূর্বধলা উপজেলার জারিয়া ইউনিয়নের গণকপাড়া গ্রামের মৃত মৌলভী হোসেন আহম্মদ ওরফে হোসেন মৌলভীর ছেলে আব্দুর রহমান (৮০) ও ঘাগড়া ইউনিয়নের সুনাইকান্দা গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর ছেলে আহাম্মদ আলীকে (৭৮) যার যার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে স্থানীয় পুলিশ। এখনও পলাতক পাঁচজনের নাম-পরিচয় গ্রেফতারের স্বার্থে প্রকাশ করা হয়নি। আসামিদের বিরুদ্ধে ১৯৭১ সালের ২১ আগস্ট দুপুর একটায় রাজাকারবাহিনী নিয়ে পূর্বধলা উপজেলার বাড়হা গ্রামের আব্দুল খালেককে গুলি করে হত্যার পর কংস নদীতে লাশ ভাসিয়ে দেয়ার অভিযোগে মামলা রয়েছে। শহীদ আব্দুল খালেকের ছোট ভাই ও বাড়হা গ্রামের মৃত আমছর উদ্দিন তালুকদারের ছেলে মুক্তিযোদ্ধা আঃ কাদির বাদী হয়ে ২০১৩ সালে চার রাজাকারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আন্তর্জাতিক মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রধান তদন্ত কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগটি জমা দেন। গত বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে ওই সাতজনের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে তদন্ত করছেন তদন্ত কর্মকর্তা শাহজাহান কবির। এ তদন্তে আরও তিনজনের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে মোট আসামি হন সাতজন।