২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নেত্রকোনায় বাইপাস সড়কের অভাবে নাগরিক দুর্ভোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা, ১৩ আগস্ট ॥ একটি বাইপাস সড়কের অভাবে নেত্রকোনা পৌরশহরে বসবাসরত নাগরিকদের বছরের পর বছর ধরে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। দীর্ঘদিনের দাবি থাকা সত্ত্বেও বিষয়টি নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছে না কোন কর্তৃপক্ষ। জানা গেছে, নেত্রকোনা পৌর শহরে প্রধান সড়ক মাত্র একটি। শহরের প্রধান প্রধান সব বাজার, পাইকারী পণ্যের আড়ত, বিপণীবিতান, ব্যাংক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত ও বাসস্ট্যান্ড এ সড়কের দুই পাশে অবস্থিত। ফলে সড়কটিতে রিক্সা, অটোরিক্সা ও অন্যান্য অভ্যন্তরীণ যানবাহনের জট সব সময়ই লেগে থাকে। এর ওপর আবার প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে কলমাকান্দা, বারহাট্টা, মোহনগঞ্জ, আটপাড়া, মদনসহ বিভিন্ন উপজেলার অসংখ্য বাস, ট্রাক, সিএনজি, টেম্পো ও অন্যান্য যানবাহন জেলা সদর, ঢাকা ও ময়মনসিংহে যাতায়াত করছে। এর ফলে যানজট এখন নিত্যদিনের ব্যাপারে পরিণত হয়েছে। অপ্রশস্ত সড়কের যত্রতত্র থামানো হচ্ছে বাস, ট্রাক ও ভারি যানবাহন। ওঠানো-নামানো হচ্ছে যাত্রী ও মালামাল। এতে নাভিশ্বাস ওঠছে মানুষের। এদিকে অবাধে অতিরিক্ত বোঝাই পণ্য পরিবহনের ফলে সড়কটিও কিছুদিন পরপর চলাচলের অনুপযোগী হয়ে যাচ্ছে। চলতি বর্ষা মৌসুমে হাজার হাজার গর্ত আর খানাখন্দের কারণে নাগরিক দুর্ভোগের বড় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সড়কটি। অথচ মাত্র দু’বছর আগে এটির সংস্কার করা হয়। ভুক্তভোগীরা মনে করেন, শহরের পাশ দিয়ে একটি বাইপাস সড়ক নির্মাণ করলে যানবাহনের চাপ অনেকটাই কমে যাবে। এ ব্যাপারে নেত্রকোনা পৌরসভার মেয়র প্রশান্ত কুমার রায় বলেন, বাইপাস সড়কের জন্য বিভিন্ন দফতরে অনেক আবেদন-নিবেদন করা হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সাড়া মিলেনি। মন্ত্রণালয়ের বিশেষ বরাদ্দ ছাড়া পৌরসভার সামান্য আয়ে এটি নির্মাণ সম্ভব নয়। এর জন্য সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের উদ্যোগ নিতে হবে। নেত্রকোনা উন্নয়নে নাগরিক আন্দোলনের আহ্বায়ক এ্যাডভোকেট খানে আলম বলেন, বাইপাস সড়ক এখন নেত্রকোনাবাসীর প্রধান দাবি। ইতোমধ্যে এ দাবিতে একাধিকবার মানববন্ধন করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই আমরা আবারও ঐক্যবদ্ধ নাগরিক আন্দোলন শুরু করবো।