২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুপার কাপে মাঠে নামছে বার্সিলোনা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ২০১৫ সালে ইতোমধ্যে চার শিরোপা শোকেসে ভরেছে বার্সিলোনা। সদ্যই উয়েফা সুপার কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কাতালানরা। গত মৌসুমে ট্রেবল জয়ী দলটির সামনে এখন বছরে ছয় শিরোপা জয়ের হাতছানি। এ লক্ষ্যে পঞ্চম শিরোপা জয়ের মিশনে স্প্যানিশ সুপার কাপে মাঠে নামছেন লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজরা। দুই পর্বের এই লড়াইয়ে আজ রাতে প্রথম লেগের ম্যাচে স্বাগতিক এ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের মুখোমুখি হচ্ছে বার্সিলোনা। ১৭ আগস্ট বার্সার মাঠ ন্যুক্যাম্পে দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে নির্ধারণ হবে শিরোপার ফয়সালা। মঙ্গলবার রাতে উয়েফা সুপার কাপে সেভিয়াকে ৫-৪ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় বার্সিলোনা। যা চলমান বছরে বার্সার চতুর্থ শিরোপা। এর আগে তারা স্প্যানিশ লা লিগা, স্প্যানিশ কোপা ডেল’রে ও উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এই বছর আরও দুটি শিরোপার হাতছানি মেসি, নেইমার, সুয়ারেজদের। স্প্যানিশ সুপার কাপ ও ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ। এই দুটি আসরে চ্যাম্পিয়ন হলে দ্বিতীয়বারের মতো বছরে ছয় শিরোপা জয়ের কৃতিত্ব দেখাবে বার্সা। এর আগে ২০০৯ সালে পেপ গার্ডিওলার অধীনে প্রথমবার এই দৃষ্টান্ত স্থাপন করে কাতালানরা। উয়েফা সুপার কাপ জিতেই আন্তর্জাতিক ট্রফি জয়ের দিক দিয়ে ইতিহাস গড়েছে বার্সিলোনা। এক্ষেত্রে তারা বিশ্বের অন্যতম সেরা দুই ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ ও এসি মিলানকে ছাপিয়ে গেছে। আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় রিয়াল ও মিলান দুই ক্লাবেরই জেতা শিরোপা সংখ্যা ১৮। উয়েফা সুপার কাপ জয়ের ফলে বার্সার ট্রফির সংখ্যা ১৯। আদি ইউরোপিয়ান কাপ বা বর্তমানের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ পাঁচবার জিতেছে বার্সা। ১৯৯২, ২০০৬, ২০০৯, ২০১১ ও ২০১৫ সালে। কাপ উইনার্স কাপ জিতেছে চারবার। ১৯৭৯, ১৯৮২, ১৯৮৯ ও ১৯৯৭ সালে। উয়েফা সুপার কাপ জিতেছে পাঁচটি। সবচেয়ে বেশি সুপার কাপ জেতার রেকর্ডে মিলানের পাশে নাম লিখিয়েছে বার্সা। ১৯৯২, ১৯৯৭, ২০০৯, ২০১১ সালের পর ২০১৫। বার্সা তিন ট্রফি জিতেছে ইন্টার-সিটিস ফেয়ারস কাপে। এই টুর্নামেন্ট থেকেই জন্ম নেয় উয়েফা কাপ, যেটি বর্তমানে ইউরোপা লীগ নামে চলছে। চ্যাম্পিয়ন্স লীগের পর ইউরোপের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট। ইউরোপের ফুটবল সংস্থা উয়েফা অবশ্য ফেয়ারস কাপের রেকর্ডকে স্বীকৃতি দেয়নি। ফলে উয়েফার রেকর্ডে এই ট্রফি জয়ের হিসাব নেই। কিন্তু ফুটবলের আন্তর্জাতিক অভিভাবক সংস্থা ফিফা এই টুর্নামেন্টকে স্বীকৃতি দিয়েছে। তাদের হিসাবে এর রেকর্ডও আছে। ইউরোপে জেতা এই ১৭ ট্রফির পাশাপাশি আছে দুটি ক্লাব বিশ্বকাপ ট্রফি। সব মিলিয়ে ১৯টি। এ নিয়ে অবশ্য বিতর্ক আছে। রিয়াল কিংবা মিলানের সমর্থকেরা দাবি করবেন, ফেয়ারস কাপ কোন ট্রফিই নয়। উয়েফা তো স্বীকৃতি দেয়নি। বিতর্ক আছে আরও একটি জায়গায়। ইউরোপিয়ান কাপ বা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ট্রফি সংখ্যা দিয়ে যদি মাপা হয়, রিয়ালের ধারে-কাছে কেউ নেই। এক্ষেত্রে মিলানও বার্সার চেয়ে এই ট্রফি দুইবার বেশি জিতেছে। স্প্যানিশ সুপার কাপ জিতলে বার্সিলোনার শোকেসে জমা হবে ২০টি আন্তর্জাতিক শিরোপা।

নির্বাচিত সংবাদ