১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইভানোভিচ-হ্যালেপের জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দুর্দান্ত জয়েই রজার্স কাপের তৃতীয় পর্বে উঠেছেন সিমোনা হ্যালেপ, ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা, এ্যাগ্নিয়েস্কা রাদওয়ানস্কা এবং আনা ইভানোভিচের মতো তারকারা। বুধবার টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় পর্বে রোমানিয়ার সিমোনা হ্যালেপ সার্বিয়ার জেলেনা জাঙ্কোভিচের মুখোমুখি হয়েছিলেন। টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান তারকা জাঙ্কোভিচ। তাই প্রতিপক্ষ হিসেবে স্বাভাবিকভাবেই বেশ শক্তিশালী। কিন্তু রোমানিয়ার হ্যালেপের কাছে তেমন পাত্তাই পেলেন না তিনি। টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় বাছাই সিমোনা হ্যালেপ এদিন ৬-৩ এবং ৬-৪ গেমে হারান সার্বিয়ার জাঙ্কোভিচকে। বর্তমান র‌্যাঙ্কিংয়ের ২৫ নাম্বারে থাকা জাঙ্কোভিচের বিপক্ষে জয়ের পর উচ্ছ্বসিত সিমোনা হ্যালেপ। নিজের এমন পারফর্মেন্সে দারুণ সন্তুষ্ট তিনি।

ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে সিমোনা হ্যালেপ বলেন, ‘আমার সার্ভ এখানে তুলনামূলকভাবে ভাল হয়েছে। আমি চেষ্টা করেছি আক্রমণাত্মক খেলতে। সবসময়ই চেয়েছি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বল সার্ভ করা কেননা আমি জানি সে রক্ষণে খুবই ভাল। তাই আমি চেষ্টা করেছি দ্রুত সার্ভ করতে সেইসঙ্গে ফিরতি শটটাও ভাল খেলতে। শুধু তাই নয়, তার বিপক্ষে বেশি বেশি ফোরহ্যান্ডও খেলেছি কারণ জানি সে ব্যাকহ্যান্ডে অনেক শক্তিশালী। আমি জানতাম জাঙ্কোভিচের বিপক্ষে জিততে হলে তাকে কোর্টে সবসময়ই দৌড়ের উপর রাখতে হবে।’ এর আগেও পাঁচবার মুখোমুখি হন জাঙ্কোভিচ-হ্যালেপ। তার মধ্যে এটাই সবচেয়ে সহজ জয়। চলতি মৌসুমের শুরুর দিকে ইন্ডিয়ান ওয়েলসে ম্যারাথন একটি ম্যাচও খেলেছেন তারা। যেখানে শেষ পর্যন্ত সিমোনা হ্যালেপ ২-৬, ৭-৫ এবং ৬-৪ গেমে পরাজিত করেন জেলেনা জাঙ্কোভিচকে। তাই এবার বেশ আনন্দিত হ্যালেপ। তিনি বলেন, ‘জয়ে আমি খুবই আনন্দিত। তার বিপক্ষে আমি প্রায় সব ম্যাচেই তিন ঘণ্টা খেলি এবং তার বিপক্ষে খেলা ম্যাচগুলো সবসময়ই কঠিন হয়।’ গত মাসে উইম্বল্ডনে সর্বশেষ কোর্টে নেমেছিলেন হ্যালেপ। এরপর রজার্স কাপেই খেলতে নামেন তিনি। তাই এই জয়টা তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলেই মনে করেন এই রোমানিয়ান তারকা। এ বিষয়ে হ্যালেপের অভিমত, ‘বাড়িতে আমি অনেকটা সময়ই ছুটিতে কাটিয়েছি। তাই এখানে আসাটা আমার জন্য অনেক কঠিন ছিল। তাছাড়া বিশ্বের সেরা একজন খেলোয়াড়ের বিপক্ষে মুখোমুখি হওয়াটা ছিল আরও চ্যালেঞ্জিং। কিন্তু তার বিপক্ষে জয়ের জন্য আমি সব চেষ্টাই করেছি।’ তৃতীয় পর্বে হ্যালেপের প্রতিপক্ষ এখন এ্যাঞ্জেলিক কারবার। জার্মানির এই প্রতিভাবান টেনিস তারকা দ্বিতীয় পর্বে ৬-২ এবং ৬-৩ গেমে হারান পর্তুগালের মনিকা পুইগকে।

দ্বিতীয় বাছাই সিমোনা হ্যালেপ ছাড়াও জয়ের দেখা পেয়েছেন আনা ইভানোভিচ। সার্বিয়ান এই তারকা ৬-৪, ৭-৬ গেমে হারান বেলারুশ খেলোয়াড় ওলগা গোব্রোটসোভাকে। পোল্যান্ডের এ্যাগ্নিয়েস্কা রাদওয়ানস্কা ৭-৫ এবং ৬-৩ গেমে পরাজিত করেন জার্মানির জুলিয়া জর্জেসকে। র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান তারকা ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা ৬-২ এবং ৬-৩ গেমে পরাজয়ের স্বাদ উপহার দেন চেক প্রজাতন্ত্রের পেত্রা কেভিতোভাকে। চেক তারকা দুইবার উইম্বল্ডন জিতেছেন। কিন্তু সম্প্রতি ভাল কাটছে না তার। চোট আর ফর্মহীনতায় ভুগছেন দীর্ঘদিন ধরেই। এছাড়াও দারুণ জয়ে রজার্স কাপের তৃতীয় পর্বের টিকেট নিশ্চিত করেছেন আন্দ্রেয়া পেটকোভিচ, সাবিনে লিসিকি, সারা ইরানি এবং এলিজ কোর্নেটের মতো খেলোয়াড়রা।

মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের আগে রজার্স কাপই শেষ প্রস্তুতি মঞ্চ। কিন্তু এই ইভেন্টে হেরে মেজর টুর্নামেন্টের আগে পেত্রা কেভিতোভার মতো বড় এক ধাক্কা খেলেন ক্যারোলিন ওজনিয়াকিও। সুইজারল্যান্ডের বেলিন্ডা বেনসিচের কাছে ৭-৫ ও ৭-৫ গেমে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েন তিনি। গত সপ্তাহে স্ট্যানফোর্ড ওপেনের দ্বিতীয় সপ্তাহে হেরেছিলেন ড্যানিশ এই টেনিস তারকা। সেই পরাজয়ের ক্ষত শুকানোর আগেই আরেকটি টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়ে হতাশ টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক এই শীর্ষ তারকা। ম্যাচ শেষে টুর্নামেন্ট কর্তৃপক্ষকেও দোষারোপ করেছেন ক্যারোলিন ওজনিয়াকি।