২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উদার মানসিকতার কারণ

কেউ উদার কেউ বা আক্রমণাত্মক। কি কারণে মানুষের মধ্যে এ ধরনের মানসিকতা দেখা দেয়? মানুষের উদার বা রক্ষণশীল হওয়ার রহস্য কী? কোথা থেকে আসে এই মনোভাব?

দীর্ঘদিন ধরে সমাজে প্রচলিত রয়েছে যে, ব্যক্তির রাজনৈতিক বিশ্বাস ও মতাদর্শের উৎস পরিবার, বন্ধু-বান্ধব, সামাজিক মূল্যবোধ, শিক্ষা, শ্রেণী, পারিপার্শ্বিকতা। কিন্তু এখন গবেষকরা বলছেন ভিন্ন কথা। তাঁদের দাবি, ব্যক্তি উদার না রক্ষণশীল হবেÑ তা প্রভাবিত করতে পারে জিন।

ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব সিঙ্গাপুরের (এনইউএস) এক গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষের রাজনৈতিক বিশ্বাসের ওপর জিনের প্রত্যক্ষ প্রভাব রয়েছে।

সিঙ্গাপুরে পরিচালিত গবেষণাটি সম্প্রতি ‘রয়েল সোসাইটি’ সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে। এক হাজার ৭৭১ জন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর ওপর চালানো গবেষণায় নেতৃত্ব দেন অধ্যাপক রিচার্ড পি. এবস্টেইন ও চিউ সু হং।

গবেষকরা তাঁদের গবেষণায় ব্যক্তির রক্ষণশীল ও উদার হওয়ার সঙ্গে জিনের সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পান। এই গবেষণায় প্রথম দাবি করা হয়, এক্ষেত্রে জিনের প্রভাব প্রত্যক্ষ। এ প্রসঙ্গে গবেষক চিউ সু হং বলেন, ‘আমাদের গবেষণায় দেখা গেছে, একটি দেশের রাজনৈতিক ব্যবস্থা ও সংস্কৃতি সত্ত্বেও ব্যক্তির রাজনৈতিক আদর্শ জিন দ্বারা প্রভাবিত হয়।’

গবেষণায় দেখা গেছে, ডিআরডিফোর জিনের একটি সুনির্দিষ্ট ধারা, যা ‘অ্যাডভেঞ্চার জিন’ নামে পরিচিত, সেটি মানুষের ঝুঁকি ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করে। মানুষ রক্ষণশীল না উদার হবে, এই জিনই তা নির্ধারণ করে। শিক্ষার্থীরা উদার না রক্ষণশীল, তা বের করতে গবেষকরা অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিদের ওপর জরিপের পাশাপাশি তাঁদের রক্ত ও ডিএনএ নমুনাও সংগ্রহ করেন। শিক্ষার্থীদের কাছে পরিবেশ, প্রাণী অধিকারসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন রাখা হয়। এরপর তাঁরা জরিপের ফলের সঙ্গে উত্তরগুলো মিলিয়ে দেখেন।

গবেষক রিচার্ড পি. এবস্টেইনের ভাষ্য, ‘পুরুষের চেয়ে নারীর ক্ষেত্রে রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে ডিআরডিফোর জিনের সংশ্লিষ্টতা উচ্চমাত্রায় তাৎপর্যপূর্ণ।’

সিঙ্গাপুরের নতুন এই গবেষণাটি এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে হওয়া একটি গবেষণাকে সমর্থন করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণায় দেখা যায়, ডিআরডিফোর জিন ব্যক্তির রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গিকে প্রভাবিত করে।

যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণা অনুসারে, জিনের সঙ্গে রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির কার্যকারণ সম্পর্ক নির্ভর করে ব্যক্তির বন্ধুর সংখ্যার ওপর। অন্যদিকে সিঙ্গাপুরের গবেষণা বলছে, ব্যক্তির রাজনৈতিক আদর্শের ওপর জিনের প্রত্যক্ষ প্রভাব আছে।

সবশেষ এই গবেষণার ফলাফল অনুযায়ী, ব্যক্তির রাজনৈতিক আদর্শের উৎস নিয়ে আগে যেসব কথাই বলা হোক না কেন, এ ক্ষেত্রে এখন আর জীববিজ্ঞানকে উপেক্ষা করার উপায় নেই। বিশেষত নারীরা এ্যাডভেঞ্চার জিনের ভিন্ন ধারা ফোরআর/ফোরআর-এর অধিকারী। এ কারণে তাঁরা নারীরা রাজনৈতিকভাবে অধিক রক্ষণশীল।

প্রকৃতি ও বিজ্ঞান ডেস্ক

নির্বাচিত সংবাদ