২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বানভাসীদের পাশে দাঁড়াতে আহ্বান মেসির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মায়াময় মুখমন্ডল অনেক কিছুই জানান দেয়। তবে ভাল দিকটাই বেশি ফুটে উঠে বলে বিশেষজ্ঞদের অভিমত। আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসির চেহারাতেও নিষ্পাপ, মহানুভাব ভাবটা আছে! এ কারণেই হয়ত প্রায়শই তিনি দুঃস্থদের পাশে দাড়ান। এ প্রমাণ আরও একবার রেখেছেন বার্সিলোনা জাদুকর।

গত কয়েক দিনের প্রবল বন্যায় আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েন্স আইরেসের অন্তত ১১ হাজার মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। শুধু তাই নয়, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন মেসি। আকস্মিক বন্যায় বুয়েন্স আইরেসের জনজীবন এখন অনেকটাই বিপর্যস্ত। টানা ঝড়-বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট আকস্মিক বন্যায় এখন পর্যন্ত তিনজনের প্রাণহানীর খবর পাওয়া গেছে। অন্যদিকে বিপুল সংখ্যক মানুষ পানিবন্দী হয়ে জীবনযাপন করছে। রোজারিওতে জন্ম নেওয়া মেসি তার ফেসবুকে দুর্যোগ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। শুক্রবার স্প্যানিশ সুপার কাপের ম্যাচের আগে মেসি বলেন, আর্জেন্টিনার বন্যা পরিস্থিতির কিছু ছবি দেখে দেশবাসীর জন্য আমি খুবই উদ্বিগ্ন। এ কঠিন সময়ে তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

দিনকয়েক আগে আর্জেন্টিনার অভাবগ্রস্ত শিশুদের সাহায্যার্থে ইউনিসেফকে আর্জেন্টাইন মুদ্রায় ৪৫ লাখ অর্থ সহায়তা দেন মেসি। যা প্রায় পাঁচ লাখ ডলারের সমান। বার্সিলোনা থেকে ভিডিও লিংকের মাধ্যমে আর্জেন্টিনায় ইউনিসেফের প্রচারণায় অংশ নেন মেসি। আকস্মিক তার অংশগ্রহণে সবাই রীতিমত অবাক হয়। সেখানে তিনি স্বদেশী শিশুদের জন্য শুভকামনা জানান এবং তাদের সাহায্যার্থে চেক প্রদর্শন করেন। তবে চলমান বন্যা দুর্গতদের জন্য তিনি কোনো আর্থিক সহায়তা দিচ্ছেন কিনা তা জানা যায়নি। বার্সা তারকা ২০০৭ সালে ‘লিও মেসি ফাউন্ডেশন’ প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১০ সালে ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত হন। এর পর থেকেই শিশুদের অধিকার রক্ষার কাজে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। ২০১৩ সালে নিজ শহর রোজারিওতে অবস্থিত শিশু হাসপাতালে ছয় লাখ ইউরোর অর্থ সহায়তা দেন চারবারের বিশ্বসেরা খেলোয়াড়।

বিভিন্ন সময় শিশুশের পাশে দাঁড়াতেই বেশি দেখা গেছে মেসিকে। এখন তার দেশের মানুষ বন্যায় কবলে পড়ে দুস্থ্য জীবনযাপন করছে। যে কারণে সমবেদনা জানিয়ে সাহায্যের আবেদন করেছেন সাবেক ফিফা সেরা ফুটবলার। তবে এখনও নিজের পক্ষ থেকে মেসির কোন অর্থ সহায়তা দেয়ার খবর মেলেনি। স্প্যানিশ সুপার কাপের ম্যাচের পর নতুন করে কোন ঘোষণা মেসি দেন কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়।