২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেরা অবস্থানে ফিরতে দুই বছর লাগবে॥ মুরালিধরন

স্পোর্টস রিপোর্টার॥ ভারতের বিরুদ্ধে চলমান তিন টেস্টের সিরিজের দ্বিতীয়টি শেষ হওয়ার পরই সমাপ্তি ঘটবে কুমার সাঙ্গাকারার ক্যারিয়ারে। আগেই আরেক কিংবদন্তি মাহেলা জয়াবর্ধনে সব ধরণের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। সাঙ্গাকারা-জয়াবর্ধনে বিহীন এক নতুন যুগ শুরু হবে এরপর থেকেই। দলের অন্যতম দুই নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটারকে ছাড়াই এবার নিজেদের ক্রিকেট পরাশক্তি হিসেবে টিকে থাকার চ্যালেঞ্জ শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের জন্য। তবে সেটা খুব সহজ হবেনা। কিংবদন্তি অফস্পিনার মুত্তিয়া মুরালিধরন দাবি করলেন সাঙ্গা-মাহেলা যুগ শেষে নিজেদের সেরা অবস্থানে ফিরে আসতে অন্তত দুই বছর সময় লাগবে লঙ্কান ক্রিকেট দলের।

এবার ভারত-শ্রীলঙ্কা সিরিজে উভয় দলই একটি পরিবর্তনের মধ্যে আছে এবং দুই যুগের মধ্যবর্তী সময়ে। ভারত সবেমাত্র মহেন্দ্র সিং ধোনির বিদায়ের মাধ্যমে গ্রেটদের ব্যতীত নতুন করে সংগঠিত হওয়ার পর্যায়ে। আর লঙ্কানরা খেলছে সাঙ্গাকারার বিদায়ী সিরিজ। কিন্তু ভারতীয়রা এগিয়ে আছে বলেই দাবি করলেন মুরালিধরন। তিনি বলেন,‘শ্রীলঙ্কা এখন একটি পরবির্তনের পর্যায়ে আছে। আমরা নতুন কিছু মুখ পেয়েছি যারা ভাল। কিন্তু নতুন করে সংগঠিত হতে আরও অন্তত এক/দুই বছর সময় লাগবে। সুতরাং এই মুহুর্তে ভারতীয় দল কিছুটা সুবিধাজনক অবস্থানে আছে। বেশ কয়েকজন শ্রীলঙ্কান গ্রেট সম্প্রতি অবসরে গেছেন। এর ফলে আমরা একটা সংগ্রামের মধ্যে পড়তে যাচ্ছি।’ ক্রিকেট এ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিএবি) ভিশন ২০২০ এর একটি প্রোগ্রামে পঙ্কজ গুপ্ত ইনডোর ফ্যাসিলিটিতে বক্তব্য রাখার সময় এসব কথা বলেন মুরালিধরন।

সাবেক সতীর্থ সাঙ্গাকারার ভূয়সী প্রশংসা করেন মুরালিধরন। ভারতের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্ট খেলেই অবসরে যাবেন এ নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান। আর বিশ্বকাপ শেষেই ওয়ানডে থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। এ বিষয়ে মুরালিধরন বলেন,‘তিনি শ্রীলঙ্কার জন্য খুবই কার্যকরী একজন খেলোয়াড় ছিলেন এবং দলের হয়ে অনেকগুলো ম্যাচ জিতেছেন। দুঃখজনক ব্যাপার যে তিনি অবসর নিচ্ছেন। কিন্তু এমন দিন সব খেলোয়াড়ের জীবনেই আসে। আমি মনে করি তিনি সঠিক সময়ই বেছে নিয়েছেন।’ সাঙ্গাকারা দলের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস উপহার দিযেছেন প্রয়োজনীয় ও বিপদের মুহুর্তে। কিন্তু ২০০২ সালে এশিয়ান টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে লাহোরে তাঁর খেলা ২৩০ রানের ইনিংসটাকেই নিজের দেখা সেরা মনে করেন মুরালিধরন। বিশ্বরেকর্ডসংখ্যক ৮০০ টেস্ট উইকেট নিয়ে অবসরে যাওয়া মুরালি মনে করেন বর্তমানে স্পিন বিভাগের শক্তিতে লঙ্কানদের চেয়ে ভারত অনেক এগিয়ে। এ বিষয়ে তিনি বলেন,‘ভারত অনেক ভাল স্পিনার পেয়েছে এবং বোলিং বিভাগটা দারুন সুশৃঙ্খল। আমাদের চেয়ে তাদের দলে যেসব খেলোয়াড় আছেন তাঁরা অনেক আগে থেকেই একসঙ্গে খেলে সুসংবদ্ধ।’

নির্বাচিত সংবাদ