২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জাতীয় শোক দিবসের আয়োজন

সংস্কৃতি ডেস্ক ॥ স্বাধীন রাষ্ট্রের স্থপতি, বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় রাষ্ট্রনায়ক, জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদাতবার্ষিকী আজ। ১৯৭৫ সালের আজকের দিনে ঘাতের বুলেটের আঘাতে মহান এই নেতা সপরিবারে নিহত হোন। আজ জাতীয় শোক দিবস। এ উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠন এবং সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠান নানা কর্মসূচীর মাধ্যমে দিবসটি পালন করবে। বিটিভি এবং বাংলাদেশেসহ দেশের স্যাটেলাইট চ্যানেল ও এফএম রেডিও গুলো বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করবে। জাতীয় শোক দিবসের বিভিন্ন আয়োজন নিয়ে এ প্রতিবেদন।

শিল্পকলা একাডেমি : ‘টুঙ্গিপাড়া গ্রাম থেকে আমাদের গ্রামগুলো তোমার সাহস নেবে, নেবে ফের বিপ্লবের মহান প্রেরণা’ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে আজ সন্ধ্যা ৬টায় নাট্যশালা মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি, বিশেষ অতিথি ভারপ্রাপ্ত সংস্কৃতি সচিব বেগম আক্তারী মমতাজ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক নাসরিন আহমাদ, কবি নির্মলেন্দু গুণ, পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সদস্য উজ্জ্বল বিকাশ দত্ত। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। আলোচনা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সমবেত সঙ্গীত পরিবেশন করবে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির শিশু প্রশিক্ষণার্থীরা, সমবেত নৃত্য পরিবেশন করবে নৃত্যম, নৃত্য পরিচালনায় তামান্না রহমান। একক সঙ্গীত পরিবেশন করবেন সুবর্ণা, শিবু রায়, জমশের আলী দেওয়ান, সালমা চৌধুরী, সাধনা মিত্র, ফকির আলমগীর, ইয়াসমিন আলী, শারমিন সুলতানা, সাজেদ আকবর, আশরাফ উদাস, আবৃত্তি করবেন ঝর্ণা সরকার, কৃষ্টি হেফাজ, শাহাদাৎ হোসেন নিপু, সমবেত সঙ্গীত পরিবেশন করবে ঢাকা সাংস্কৃতিক দল, সমবেত নৃত্য পরিবেশন করবে শিল্পকলা একাডেমি রেপার্টরি নৃত্যদল, স্পন্দন, নৃত্যম। অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায় ও সাবিরা মাহবুব জনি।

বাংলা একাডেমি : সকাল ৭টায় একাডেমির উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, বিকেল ৪টায় একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু বিষয়ক বক্তৃতা করবেন অর্থনীতিবিদ ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি। সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত আবৃত্তি পরিবেশন করবেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম। এছাড়া ১৯৭৫-এর ১৫ আগস্টের বিয়োগান্ত ঘটনা নিয়ে ম. হামিদ প্রযোজিত প্রামাণ্যচিত্র ‘সেই অন্ধকার’ প্রদর্শিত হবে।

জাতীয় জাদুঘর :জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর মাসব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ জাদুঘর মিলনায়তনে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর গল্প বলবেন ড. মসিউর রহমান এবং ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি। বিকাল ৫টায় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনের লবিতে আলোকচিত্র, গ্রন্থ এবং ২৬নং গ্যালারিতে স্মারক ডাক টিকিট প্রদর্শনীর উদ্বোধন করবেন বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি। তিনি বক্তৃতা প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ করবেন।

দেশটিভির বেলা অবেলা সারাবেলা : দেশ টিভির বেলা অবেলা সারাবেলা অনুষ্ঠানে আজকে অতিথি ডাঃ এসএ মালেক। উপস্থাপনায় আসাদুজ্জামান নূর। অনুষ্ঠানটি আজ শনিবার রাত ৯-৪৫ মিনিটে প্রচার হবে। অনুষ্ঠানের অতিথি ডাঃ এসএ মালেক ১৯৩৬ সালের ১৮ আগস্ট টাঙ্গাইলে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা শেখ আবদুর রাজ্জাক তখন সেখানকার বন বিভাগে কর্মরত ছিলেন। সচেতন রাজনীতিক হিসেবে ভাষা আন্দোলনসহ দেশের সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তার প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ ছিল। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ তার জীবনের শ্রেষ্ঠ ঘটনা। ১৯৭৩ সালের নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের মানোনয়নে ফরিদপুর-১ আসন থেকে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সপরিবারে নিহত হলে ডাঃ মালেক প্রতিরোধ আন্দোলন গড়ে তোলার চেষ্টা করেন। এ কারণে একপর্যায়ে তিনি দেশের বাইরে অবস্থান গ্রহণ করতে বাধ্য হন। ১৯৮০ সালে দেশে ফিরে তিনি বঙ্গবন্ধু পরিষদ সংগঠিত করেন। দুই দশক ধরে তিনি এ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা।

জিটিভির আয়োজন : জাতীয় শোক দিবসে আজ শনিবার বিকেল ৪-০৫ মিনিটে প্রচার হবে বিশেষ অনুষ্ঠান ‘আমাদের বঙ্গবন্ধু’। বিকেল ৪-৩০ মিনিটে ‘বঙ্গবন্ধু ছবি’, ৫-৩০ মিনিটে ‘এই সন্ধ্যায়’ অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করবেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ম. হামিদ, রাত ৮টায় প্রচার হবে ১৫ আগস্ট নিয়ে বিশেষ টকশো ‘১৫ আগস্ট’। রাত ৯টায় প্রচার হবে বঙ্গবন্ধুর ছেলেবেলা নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান ‘সেই খোকা’। রাত ১১-৩০ মিনিটে ‘কালো অধ্যায়’, রাত ১২-৩০ মিনিটে প্রচার হবে ১৫ আগস্ট নিয়ে বিশেষ টকশো সংবাদ সংলাপ।

এটিএন বাংলার আয়োজন : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সকাল ৬-৩০ মিনিটে প্রচার হবে বিশেষ অনুষ্ঠান ‘টুঙ্গিপাড়ার ছোট খোকা’, সকাল ৮-৩০ মিনিটে তথ্যচিত্র ‘স্বাধীন দেশে ফিরে এলেন বঙ্গবন্ধু’, সকাল ৯-১৫ মিনিটে তথ্যচিত্র ‘সোনালি দিনগুলো’, বেলা ১১-১৫ মিনিটে তথ্যচিত্র ‘চিরঞ্জীব বঙ্গবন্ধু’, বেলা ১২-০৫ মিনিটে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ, ১-১৫ মিনিটে সঙ্কলিত সঙ্গীতানুষ্ঠান ‘হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু’, বেলা ৩-১০ মিনিটে বাংলা চলচ্চিত্র ‘নদীর নাম মধুমতি’, রাত ৮টায় আলেখ্যানুষ্ঠান ‘খোকা থেকে বঙ্গবন্ধু’, রাত ৯টায় টকশো ‘নতুন প্রজন্ম ও বঙ্গবন্ধু’, ১০-৫৫ মিনিটে বিশেষ টকশো ‘১৫ আগস্ট’।

চ্যানেল আইয়ের অনুষ্ঠান : সকাল ৭-৩০ মিনিটে প্রচার হবে সরাসরি গানের অনুষ্ঠান গানে গানে সকাল শুরু, সকাল ১১-০৫ মিনিটে বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত কবিতা, ১১-৩০ মিনিটে বিশেষ অনুষ্ঠান মুজিবের রক্তে লাল, বেলা ১২-৩০ মিনিটে তারকাকথন, বেলা ১-০৫ মিনিটে বাংলা চলচ্চিত্র গেরিলা, রাত ৮-৪৫ মিনিটে বঙ্গবন্ধুর আত্মকথন, রাত ৯-৫০ মিনিটে ‘কৃষি ও কৃষকের বঙ্গবন্ধু’।

রেডিও ধ্বনির আয়োজন : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রেডিও ধ্বনি ৯১.২ এফএম আয়োজন করেছে বিশেষ অনুষ্ঠানমালার। কবিতা আবৃত্তি, সাক্ষাতকার, টক অনুষ্ঠানসহ ভিন্ন ভিন্ন আয়োজনে স্মরণ করা হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবনীর অংশ নিয়ে প্রতি ঘণ্টায় থাকছে চার থেকে পাঁচ মিনিটের অডিও ক্লিপ এবং তাঁকে নিয়ে গাওয়া গান। দুপুর ১টায় ক্লাসিক নুনে বঙ্গবন্ধু ও দেশাত্মবোধ নিয়ে গান, বেলা ২-৩০ মিনিটে ভ্রমণবিষয়ক টক অনুষ্ঠান ‘নাইনটি ওয়ান পয়েন্ট টু কিলোমিটার’-এ থাকছে গোপালগঞ্জ ও টুঙ্গিপাড়া ভ্রমণ, ৩-৩০ মিনিটে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও ১৫ আগস্ট নিয়ে বিশেষ শ্রুতিতথ্য, বিকাল ৪-৩০ মিনিটে ‘কথোপকথনে বঙ্গবন্ধু’, সন্ধ্যা ৭টায় বিশেষ আবৃত্তি অনুষ্ঠান ‘কবিতায় বঙ্গবন্ধু’, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যা মামলার বাদী এবং বঙ্গবন্ধু হত্যাযজ্ঞের প্রত্যক্ষদর্শী আ ফ ম মুহিতুল ইসলামের বিশেষ সাক্ষাতকার।

ঢাবিতে প্রামান্যচিত্র ‘আরাধ্য বঙ্গবন্ধু’ : টিএসসিতে আজ সকাল দশটায় প্রদর্শন করা হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্ম নিয়ে শিল্পী ড. তপন সরকারের গ্রন্থনা এবং পরিকল্পনায় প্রামাণ্যচিত্র ‘আরাধ্য বঙ্গবন্ধু’। পাঁচটি মিউজিক ভিডিও এবং বঙ্গবন্ধুর অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ ভিডিও ফুটেজ নিয়ে এটি নির্মিত হয়েছে। বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম, বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এবং ডি এল রায়ের লেখা গানগুলি গেয়েছেন শিল্পী ড. তপন সরকার নিজেই। আজ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্ম শীর্ষক শোক দিবসের স্মরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে এটি প্রদর্শিত হবে। এতে ৬টি মৌলিক গান রয়েছে। সব মিলে প্রামাণ্যচিত্রে ব্যাপ্তী একঘন্টা ৩ মিনিট। প্রামাণ্যচিত্রে ডি এল রায়ের ছেলে দিলীপ কুমার রায়ের কন্ঠে রয়েছে ‘ভালবেসে জয় বাংলা মায়, জয় যঙ্কার করি আত্মার, আমরা উছল বন্দনায়’। রবীন্দ্রনাথের গান ‘ও আমার দেশের মাটি তোমার তরে ঠেকাই মাথা’ এই গানের মধ্য দিয়ে তুলে এনেছেন বঙ্গবন্ধুর ২৫ মার্চ কাল রাতে গ্রেফতার এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারা দেশে পাকিস্তানী বাহিনীর বর্বরতা। এছাড়াবঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন নিয়ে গেয়েছেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গান ‘ঐ মহামানব আসে’। ডি এল রায়ের ‘ ধন ধান্য পুষ্প ভরা আমাদের এই বসুন্ধরা’। এই গানের ভিডিওর মধ্য দিয়ে তুলে এনেছেন বাংলার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য। ১৫ আগষ্ট বঙ্গবন্ধুর নৃশংস হত্যার চিত্র তুলে এনেছেন রবীন্দ্রনাথের ‘তুমি কি কেবলি ছবি শুধু পটে লেখা’। সর্বশেষ গান বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘জয় হোক জয় হোক শান্তির জয় হোক, সাম্যের জয় হোক’। এই গানে শিল্পী ড. তপন সরকার তুলে এনেছেন দেশের উন্নয়ন, লাখো কন্ঠে জাতীয় সঙ্গীত সহ আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালে মানবতা বিরোধী অপরাধীদের বিচার সহ নানা বিষয়। এ প্রসঙ্গে শিল্পী এবং প্রামান্যচিত্রের পরিচালক জনকন্ঠকে জানান, আমি এ প্রামাণ্যচিত্রটি উৎসর্গ করেছি আমাদের মুক্তিযুদ্ধের মহান বীরদের এবং ১৯৭১ পরবর্তী প্রজন্মকে। এটিকে গ্রামে গঞ্জে শহরের স্কুলে এবং কলেজে প্রদর্শের জন্য আমি সরকারী বেসরকারী সহযোগিতা চাই। আমি প্রমাণ্যচিত্র তৈরিতে বিশেষ কৃতজ্ঞতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক স্যারকে এবং সাবেক ক্রিকেটার তানজীব আহসান সাদ এবং গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রনালয়ের ডেপুটি চিফ এম জালাল আহমেদের কাছে।

ভিডিও প্রামাণ্যচিত্র ‘রক্তাক্ত ১৫ আগস্ট’ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে নির্মম হত্যাকা-ের ইতিহাস নিয়ে নির্মিত হয়েছে ভিডিও প্রামাণ্যচিত্র ‘রক্তাক্ত ১৫ আগস্ট’। এক ঘণ্টার এই প্রামাণ্যচিত্রটি আগস্ট মাসেই প্রদর্শিত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ প্রামাণ্যচিত্রটির মোড়ক উন্মোচন করবেন বলে জানিয়েছেন প্রামাণ্যচিত্রটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বঙ্গজ। ‘রক্তাক্ত ১৫ আগস্ট’ ভিডিওচিত্রটি পরিচালনা করেছেন বঙ্গজের সাধারণ সভাপতি মো. আজিজুল হক (আরজু খান) এবং সম্পাদনা করেছেন বঙ্গজের সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাসুম রায়হান চৌধুরী। প্রামাণ্যচিত্র প্রসঙ্গে তারা জানান, নতুন প্রজন্মকে সঠিক ইতিহাস অবগত করার জন্য বঙ্গজ দীর্ঘদিন ধরে ইতিহাসভিত্তিক রচনা এবং বিভিন্ন প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার অনেক ত্যাগ স্বীকার করে ভিন্নমাত্রার এই প্রামাণ্যচিত্রটি নির্মাণ করেছি। আশা করছি আগামী ২৮ আগস্ট বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে প্রামাণ্যচিত্রটির মোড়ক উন্মোচন এবং উদ্বোধনী প্রদর্শনী হবে।