২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ম্যানইউর জয়রথ চলছেই

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আরেকবার ভাগ্যের সহায়তায় জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আদনান জানুজাজের একমাত্র গোলে এ্যাস্টন ভিল্লাকে হারিয়ে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়েই ম্যাচ শেষ করেছে তারা। এর ফলে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের নতুন মৌসুমে টানা দ্বিতীয় জয় পেল লুইস ভ্যান গালের ম্যানইউ।

গত সপ্তাহ থেকেই শুরু হয়েছে প্রিমিয়ার লীগের নতুন মৌসুম। আর মৌসুমের প্রথম ম্যাচে আত্মঘাতী গোলের সৌজন্যেই জয়ের দেখা পেয়েছিল রুনি-ইয়ংরা। দ্বিতীয় ম্যাচেও অনেকটা ভাগ্যের ছোঁয়া পেল ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের সবচেয়ে সফল এই ক্লাবটি। বৃহস্পতিবার ম্যাচের ২৯ মিনিটে জানুজাজ যে গোলটি করেছেন তা প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে দিক পরিবর্তন করে জালে জড়ায়। আর তারও আগে গোলবারে লাগে বল। জোয়ান মাতার সহায়তায় বেলজিয়ামের তরুণ প্রতিভাবান এই তারকা ফুটবলার এ্যাস্টন ভিল্লার জালে বল জড়ান। জানুজাজের পর আর কোন দলই গোলের দেখা পায়নি। এর ফলে প্রথম দুই ম্যাচেই জয়ের স্বাদ নিয়ে মাঠ ছাড়ে তারা।

৪-২-৩-১ ফরমেশনে খেলা ম্যানইউর হয়ে প্রথম একাদশে ছিলেন রোমেরো, স্মলিং, ব্লাইন্ড, লুক শ, ক্যারিক, স্নেইডারলিন, মাতা, জানুজাজ আর ওয়েইন রুনি। এছাড়া বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামেন জার্মান তারকা বাস্তিয়ান শোয়াইন্সটাইগার, আন্দ্রে হেরেরা আর এ্যাশলে ইয়ংয়ের মতো তারকারা। প্রথম দুই ম্যাচে ৬ পয়েন্ট পাওয়া ভ্যান গালের শিষ্যরা পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে।

এদিকে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পেড্রো রদ্রিগুয়েজ। স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সিলোনা ছেড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে নতুন করে ঠিকানা গড়তে যাচ্ছেন তিনি। কিন্তু উয়েফা সুপার কাপের ফাইনালে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে নেমেই গোল করেন পেড্রো। আর তার গোলেই বার্সিলোনার শিরোপা নিশ্চিত হয়। এর ফলেই স্প্যানিশ এই ফরোয়ার্ডের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যায় কাতালানদের। অনেকেই ন্যু ক্যাম্পে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন তাকে। তবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড পেড্রোকে পেতে এখনও মরিয়া। ২৮ বছর বয়সী এই তারকাকে দলে নেয়ার ব্যাপারে সব ধরনের চেষ্টাই চালিয়ে যাচ্ছেন রেড ডেভিলসরা। যদিওবা গুঞ্জন রয়েছে যে, ২১ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে ইতোমধ্যেই ইংলিশ জায়ান্টের সঙ্গে চুক্তি সেরে ফেলেছেন পেড্রো। কিন্তু তা অস্বীকার করেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইডেডের ডাচ কোচ লুইস ভ্যান গাল। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আপনি পেড্রোকে জিজ্ঞাসা করতে পারেন। আমাকে করলে তার উত্তর দিতে পারব না। আমার উত্তর হলো তার ব্যাপারটা প্রক্রিয়াধীন। খেলোয়াড়, ক্লাব এবং আমরা সকলে মিলেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছি। তার স্বাক্ষর না হওয়া পর্যন্ত আমি আর কিছুই নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। সে যদি চুক্তি স্বাক্ষর করে তখনই বলতে পারব যে, পেড্রো এখানে। কিন্তু তা এখনও হয়নি। তাই আমাদের শেষ পর্যন্ত দেখতে হবে আসলে কী ঘটে। তবে পেড্রো এমন একজন খেলোয়াড়, যাকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রয়োজন।’ বার্সিলোনার যুব দল থেকে ২০০৮ সালে সিনিয়রদের ক্লাবে যোগ দেন তিনি। এরপর থেকেই দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করছেন এই স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। কিন্তু গত মৌসুমে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পাননি তিনি। বেশিরভাগ সময়ই সাইড বেঞ্চে বসে থাকতে হয়েছে তাকে, যে কারণেই বার্সিলোনা ছেড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন খোদ পেড্রোই। এদিকে, স্যার এ্যালেক্স ফার্গুসনের বিদায়ের পর থেকেই নিষ্প্রভ ম্যানইউ। প্রিমিয়ার লীগের ইতিহাসের সবচেয়ে সফল এই দলটিই এখন হারিয়ে খুঁজছে নিজেদের। রবিন ভ্যান পার্সি-রাদামেল ফ্যালকাওয়ের মতো খেলোয়াড়কে ইতোমধ্যেই ছেড়ে দিয়েছে তারা। তাই পেড্রোকে দলে না ভেড়াতে পারলে বিপাকে পড়ে যাবে ম্যানইউ।