২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বার্সিলোনাকে লজ্জা বিলবাওয়ের

  • ১৪ বছর পর টানা দুই ম্যাচে ৮ গোল খেল কাতালানরা, সোমবার ফিরতি লেগ, ন্যু ক্যাম্পে সেরাটা দিতে মরিয়া লুইস এনরিক, আদুরিজের হ্যাটট্রিক, প্রথম লেগে বার্সিলোনাকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে ৩১ বছর পর শিরোপা জয়ের স্বপ্ন দেখছে এ্যাথলেটিক বিলবাও

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত সপ্তাহেই উয়েফা সুপার কাপের শিরোপা জিতেছে বার্সিলোনা। চতুর্থ শিরোপা জয়ের সেই উচ্ছ্বাসের রেশ কাটতে না কাটতেই বৃহস্পতিবার স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে খেলতে নামে লুইস এনরিকের দল। কিন্তু এক মৌসুমে নিজেদের পঞ্চম শিরোপা জয়ের পথে বেশ বড়সড় ধাক্কা খেয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। সুপার কাপের ফাইনালের প্রথম লেগে এদিন এ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের কাছে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হয় তারা। লিওনেল মেসি কিংবা লুইস সুয়ারেজদের পাত্তা না দিয়েই এই ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছেন বিলবাওয়ের স্ট্রাইকার আরিতজ আদুরিজ। বিলবাওয়ের মাঠ সান মামেসে ম্যাচের শুরু থেকেই বার্সিলোনার বিপক্ষে দুর্দান্ত খেলতে থাকে স্বাগতিকরা। কাতালান ডিফেন্ডারদের ভুলটাকে বেশ ভালভাবেই কাজে লাগান বিলবাওয়ের ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার মাইকেল সান জোসে। ম্যাচ শুরুর ২৪ মিনিটেই দারুণ এক গোল করে দলকে এগিয়ে দেন লায়ন্সদের। এরপর প্রথমার্ধে মেসি ঝলকে ম্যাচে ফেরার কিছুটা ইঙ্গিত দিয়েছিল বার্সিলোনা। কিন্তু প্রথমার্ধের বাকিটা সময় বার বার এরনেস্তো ভালভেদের শিষ্যদের সীমানায় হানা দিয়েও গোলবঞ্চিত থাকতে হয়েছে কাতালানদের। এর ফলে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় লুইস এনরিকের শিষ্যরা।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে যেন আরও বেশি চুপসে যায় সফরকারী বার্সিলোনা। লায়ন্সদের আক্রমণে এক রকম দিশাহারা হয়ে পড়ে কাতালানদের রক্ষণদুর্গ। আরও সুস্পষ্ট করে বললে দ্বিতীয়ার্ধের পরই শুরু হয় আরিতজ আদুরিজ শো। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে বার্সা ভক্তদের হৃদয় ভেঙ্গে বিলবাওয়ের হয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার আরিতজ আদুরিজ। এর ৯ মিনিট পর আবারও এনরিকের শিষ্যদের রক্ষণদুর্গে ফাটল ধরান সেই আদুরিজই। ৩ গোলে পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে রীতিমতো কোণঠাসা হয়ে পড়েন নেইমারবিহীন মেসি-সুয়ারেজরা। কিন্তু তারপরও থেমে নেই আদুরিজের চমক। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৭ মিনিটে আবারও ভুল করে বসেন বার্সা ডিফেন্ডাররা। নিজেদের সীমানায় অবৈধভাবে ফাউল করে প্রতিপক্ষকে পেনাল্টি উপহার দেন তারা। আর সেখান থেকেই হ্যাটট্রিকের কীর্তি গড়েন আদুরিজ। আর তার হ্যাটট্রিক পূর্ণ হলে এক হালি গোলের কোটাও পূর্ণ হয় স্বাগতিক লায়ন্সদের। বাকি সময়টাতেও মেসিদের চেষ্টা আলোর মুখ দেখেনি। যে কারণে গোলবঞ্চিত থেকেই ম্যাচ শেষ করতে হয় তাদের। আর এই হারের ফলে এ মৌসুমে নিজেদের পঞ্চম শিরোপা জয়ের স্বপ্নটা ফিকে হয়ে গেল কাতালানদের জন্য।

আগামী সোমবার দ্বিতীয় লেগে ন্যু ক্যাম্পে এ্যাথলেটিক বিলবাওকে আতিথ্য দেবে বার্সা। শিরোপা জিততে হলে সেই ম্যাচে ৫ গোলের ব্যবধানে জিততে হবে গত মৌসুমে ট্রেবলজয়ী বার্সিলোনাকে। তবেই পঞ্চম শিরোপার স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নেবে কাতালানদের। অসম্ভবকে সম্ভব করতে পারবেন কি মেসি-সুয়ারেজরা? কোচ লুইস এনরিক সম্ভাবনা দেখছেন ঠিকই। সম্ভাব্য সকল চেষ্টাই করবেন তারা। এ বিষয়ে ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে লুইস এনরিক বলেন, ‘যদি এটা কোন দল পারে তাহলে তা বার্সিলোনাই পারবে। এখন আমাদের সোমবার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। সেদিন আমরা সবকিছু দিয়েই চেষ্টা করব।’

গত সপ্তাহে শুরুতেই সেভিয়াকে হারিয়ে উয়েফা সুপার কাপ জিতে চতুর্থ শিরোপার স্বাদ পায় বার্সা। সেই ম্যাচের শুরুতে ৪-১ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল তারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নাটকীয়ভাবে ৫-৪ গোলে জেতে কাতালান ক্লাবটি। এবার স্প্যানিশ সুপার কাপেও তাদের জালে ঢুকল ৪ গোল। টানা দুই ম্যাচে ৮! দীর্ঘ ১৪ বছরের মধ্যে এবারই প্রথমবারের মতো টানা ২ ম্যাচে ৮ গোল খেল, যা রীতিমতো চিন্তার বিষয়! তা মানছেন বার্সিলোনার কোচ এনরিকও। তিনি বলছেন, ‘এটা আমাকে খুবই ভাবিয়ে তুলছে যে, আমরা অনেক বেশি গোল খাচ্ছি। এ বিষয়টি নিয়ে আমাদের পর্যবেক্ষণ করতে হবে। তারপর দ্রুতই শোধরাতে হবে। ফুটবল আসলে ভুলের খেলা।’ তবে এই রক্ষণভাগ নিয়ে যে খুব বেশিদূর এগোতে পারবে না বার্সা তা স্বীকার করছেন ব্রাজিলের দানি আলভেজও। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘টানা ২ ম্যাচে ৮ গোল খাওয়াটা স্বাভাবিক কোন বিষয় নয়। তবে ন্যু ক্যাম্পে আমাদের সেরাটা দিতে হবে। আমাদের রক্ষণভাগে আরও ভাল করতে হবে। এই সময়ে কোন অজুহাত দিলে চলবে না। সবকিছুতেই আমাদের আরও উন্নতি করতে হবে।’