২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সংক্ষিপ্ত সংবাদ

  • ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ॥ চেলসি-ম্যানসিটির লড়াই আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত সপ্তাহেই শুরু হয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের নতুন মৌসুম। আজ লীগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটির মুখোমুখি হবে চেলসি। ২০১৩-১৪ মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা জিতেছিল ম্যানসিটি। গত মৌসুমে সিটিকে টপকে লীগ শিরোপা জয়ের উল্লাসে ভাসে জোশে মরিনহোর চেলসি। তাই নতুন মৌসুমের প্রথম ম্যাচটি দুই দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ইস্টল্যান্ডের এই ম্যাচে যারাই জিতবে মৌসুমের বাকি সময়টাতে স্বাভাবিকভাবেই এগিয়ে থাকবে তারা।

তবে চেলসি-ম্যানসিটির মাঠের লড়াইয়ের পাশাপাশি আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে অবস্থান করছেন দুই কোচও। প্রিমিয়ার লীগে ২০১৩ সালের অক্টোবরে প্রথম যখন মুখোমুখি হন মরিনহো আর পেলেগ্রিনি, তখন কোন কোচই হাত মেলাননি। এরপর থেকেই তাদের মধ্যে বিতর্কিত সম্পর্ক। তবে সেই বিষয়টিকে আমলে নিচ্ছেন না ম্যানসিটির অভিজ্ঞ কোচ ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনি। এ বিষয়ে ম্যাচের আগে শুক্রবারের সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এখানে যখন প্রথম আসি তখনই বলেছিলাম যে, তার সঙ্গে আমার অনেক কিছুরই পার্থক্য রয়েছে। কিন্তু তার সঙ্গে হাত মেলাতে আমার কোন সমস্যা নেই। আমি সব সময়ই চেয়েছি তার সঙ্গে হাত মেলাতে।’ চেলসির কোচও সেই বিষয় নিয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ। বরং ফুটবলীয় দৃষ্টিভঙ্গিতেই কথা বলেছেন তিনি। তার মতে, ‘আমি মনে করি এই ম্যাচে খেলোয়াড়রা আরও বেশি আগ্রহ নিয়ে খেলবে। তারা জেতার জন্য শতভাগ উজাড় কওে দেবে। আমার মতে, এটা একটা ফুটবল ম্যাচ তাই ফুটবলীয় বিষয়গুলো নিয়েই আলোচনায় থাকা উচিত। তার বেশিকিছু নয়।’ এদিকে, চেলসির বিপক্ষে প্রিমিয়ার লীগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আজ সার্জিও এ্যাগুয়েরোকে পাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তায় রয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। কেননা বর্তমানে চোটের সঙ্গে লড়ছেন আর্জেন্টিনার এই ফরোয়ার্ড। এই ইনজুরির কারণে প্রাক-মৌসুমে বেশ কয়েকটি ম্যাচেও খেলতে পারেননি সিটির এই আর্জেন্টাইন তারকা। চোট থেকে পুরোপুরি ফিট হওয়ার জন্য আরও কিছু সময়ের প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন এ্যাগুয়েরো। এ বিষয়ে তাঁর অভিমত হলো, ‘আমি সেখানে যাওয়ার পর পুরোপুরি ফিট হওয়ার চেষ্টা করছি। কিন্তু আর্জেন্টিনার হয়ে কোপা আমেরিকায় অংশ নিয়ে প্রাক-মৌসুমে আসায় মনে হচ্ছে, আমার (পুরো ফিট হতে) আরও কিছু সময় দরকার।’

এএফসি কাপ ফুটবল

সাফল্যÑ ড্র করে প্লে-অফে শেখ

জামাল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে উপনীত হতে দরকার ছিল ড্রয়ের। সেটাই করল শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব লিমিটেড। কিরগিজস্তানের বিশকেকে শেষ হয়েছে ‘এএফসি কাপ’-এর ‘বি’ গ্রুপের খেলা। বাংলাদেশের প্রিমিয়ার লীগ শিরোপাধারী শেখ জামাল ধানম-ি প্রতিযোগিতার প্লে-অফ পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। শনিবার বিশকেকের দোলেন ওমুরযাকোভ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে শেখ জামাল ১-১ গোলে ড্র করে স্বাগতিক এফসি আলগা বিশকেকের সঙ্গে। ম্যাচের ২২ মিনিটে আমিরভ ইলদারের গোলে এগিয়ে যায় আলগা (১-০)। ৭৭ মিনিটে নাইজিরিয়ান ফরোয়ার্ড এমেকা ডার্লিংটন গোল করলে সমতায় ফেরে ‘বেঙ্গল ইয়োলোস’খ্যাত জামাল। তার এই গোলেই শেষ পর্যন্ত প্লে-অফ পর্বে যাওয়ার টিকেট পায় জামাল। মালয়েশিয়ার রেফারি নাফিজ আবদুল ওয়াহাব খেলা শেষ হওয়ার বাঁশি বাজালে লক্ষ্যপূরণের তৃপ্তি নিয়ে মাঠ ছাড়ে জোসেফ আফুসির শিষ্যরা।

প্রতিটি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল খেলবে প্লে-অফ পর্বে। তারপর খেলবে যথাক্রমে গ্রুপ পর্বে এবং নকআউট (চূড়ান্ত পর্ব) পর্বে। জামাল এবং আলগার উভয়েরই সংগ্রহ ২ খেলায় ৪ পয়েন্ট। কিন্তু গোল গড়ে এগিয়ে থাকায় জামালই প্লে-অফ পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করল।

টুর্নামেন্টের গ্রুপ ‘এ’-তে আছে ভুটানের ড্রুক ইউনাইটেড এফসি, মঙ্গোলিয়ার খরমকন ও পাকিস্তানের কে-ইলেকট্রিক এফসি। ‘বি’ গ্রুপে আছে শেখ জামাল, কিরগিজস্তানের এফসি আলগা বিশকেক এবং ম্যাকাওয়ের এসএল বেনফিকা ডি ম্যাকাও ক্লাব। ইতোমধ্যেই ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে পাকিস্তানের কে-ইলেকট্রিক এফসি।

এর আগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বেনফিকা ডি ম্যাকাও ক্লাবকে ৪-১ গোলে হারিয়ে শুভসূচনা করেছিল জামাল। আর নিজেদের প্রথম ম্যাচে আলগা ২-০ গোলে হারিয়েছিল বেনফিকাকে।

সেমিতে জোকোভিচ মন্ট্রিল মাস্টার্সের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অবশেষে পারলেন কেই নিশিকোরি। আগের সাতবারের মোকাবেলায় স্প্যানিশ তারকা রাফায়েল নাদালের কাছে হেরেছিলেন। কিন্তু এবার নাদালকে পরাজিত করেছেন সাম্প্রতিক সময়ে ফর্মের তুঙ্গে থাকা এই জাপানিজ তারকা। ৯০ মিনিটের কিছু কম সময়ের লড়াইয়ে নাদালকে সরাসরি ৬-২, ৬-৪ সেটে হারিয়ে দিয়েছেন নিশিকোরি। উঠেছেন মন্ট্রিল মাস্টার্সের সেমিফাইনালে। তাঁর প্রতিপক্ষ ব্রিটিশ তারকা এ্যান্ডি মারে ৬-৪, ৬-৪ সেটে ফরাীস তারকা জো উইলফ্রেড সোঙ্গাকে হারিয়ে শেষ চারে পা রেখেছেন। তবে নোভাক জোকোভিচ কষ্টার্জিত জয় পেয়েছেন আর্নেস্টস গালবিসের বিরুদ্ধে। লাটভিয়ার এ তারকাকে তিনি শেষ আটের দীর্ঘ লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত হারিয়ে দেন ৫-৭, ৭-৬ (৯-৭) ও ৬-১ সেটে।

গালবিস ক্যারিয়ারের সেরা নৈপুণ্য দেখিয়েছিলেন ফ্রেঞ্চ ওপেনে। গতবার এই গ্র্যান্ড সøাম আসরের সেমিফাইনালে উঠেছিলেন তিনি। এরপর থেকে অবশ্য লাটভিয়ান এই টেনিস তারকা নিজেকে তেমন মেলে ধরতে পারেননি। তবে মন্ট্রিলে শীর্ষ বাছাই সার্বিয়ার জোকোভিচকে দারুণ চাপে ফেলেছিলেন তিনি। প্রথম সেটেই জোকোভিচকে হারিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয় সেটে দারুণ লড়াই জমে ওঠে দু’জনের মধ্যে। দু’বার ম্যাচ পয়েন্ট পেয়েও হাতছাড়া করেছিলেন তিনি।

অসি মেয়েদের এ্যাশেজ জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এক ম্যাচ বাকি থাকতেই এ্যাশেজ খুইয়ে যেখানে হাবুডুবু খাচ্ছে মাইকেল ক্লার্কের অস্ট্রেলিয়া, সেখানে দারুণ নেপুণ্যে দাপটের সঙ্গে ওমেন্স এাশেজ জিতে নিয়েছে অসি মেয়েরা। ক্যান্টাবুরিতে একমাত্র টেস্টে ১৬১ রানের বিশাল জয় পেয়েছে মেগ ল্যানিংয়ের দল। ২৬৩ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১০১ রানে অলআউট হয় ইংলিশ মেয়েরা। ৯৯ ও ৫৪ রানের চমৎকার দুটি ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা অস্ট্রেলিয়ান প্রমিলা জেস জনসন।

ব্লাটারকে হুমকি প্লাতিনির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ফিফা সভাপতি সেপ ব্লাটারকে জেল খাটানোর হুমকি দিয়েছেন মিশেল প্লাতিনি। মূলত ফিফা পরিচালনা পরিষদের সভাপতির প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে না এলে জেল খাটানোর হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন সেপ ব্লাটার। ডাচ পত্রিকা ডি ভকসকারন্তকে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাতকারে ব্লাটার এই অভিযোগ করেন। তবে প্লাতিনি এই দাবিকে ‘হাস্যকর’ বলে মন্তব্য করেছেন। ব্লাটার বলেন যে, গত মে মাসে জুরিখে অনুষ্ঠিত ফিফা কংগ্রেস চলাকালে তিনি তার বড় ভাই ৮০ বছর বয়সী পিটারকে ক্রন্দনরত অবস্থায় দেখতে পান। ওই কংগ্রেসে ৭৯ বছর বয়সী ব্লাটার পঞ্চমবারের মতো ফিফা সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরে অবশ্য তিনি পদত্যাগ করেন।

জয় দিয়ে শুরু প্রোটিয়াদের, আজ দ্বিতীয় টি২০

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ঘরের মাটিতে জয় দিয়ে শুরু করেছে প্রোটিয়ারা। অতিথি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টি২০ তে ৬ উইকেটের সহজ জয়ে দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ডারবানে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৫১ রান সংগ্রহ করে কিউইরা। জবাবে ১৭.৫ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় প্রোটিয়ারা। চমৎকার বোলিংয়ে ম্যাচসেরা স্বাগতিক স্পিনার এ্যারন ফ্যাঙ্গিসো। সেঞ্চুরিয়নে দ্বিতীয় ও শেষ টি২০ আজ। টি২০ শেষে তিন ম্যাচের ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে দু’দল।

একদিকে দুর্ধর্ষ স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা, অন্যদিকে বিশ্বকাপের রানার্সআপ নিউজিল্যান্ড। সাড়ে চার মাস আগে সেমিতে কিউইদের কাছে হেরেই অশ্রুসিক্ত বদনে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল ‘চির চোকার’ প্রোটিয়াদের। স্বল্পদৈর্ঘ্যরে এই সিরিজটি ঘিরে তাই ক্রিকেটবিশ্বের ছিল বাড়তি আগ্রহ। সেখানে প্রথম দেখায় ‘ব্ল্যাকক্যাপসদের’ উড়িয়ে দিল এবি ডি ভিলিয়ার্সবাহিনী। টস জিতে ফিল্ডিং নেয় স্বাগতিকরা। নিউজিল্যান্ডের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। ৮ ওভারে স্কোরবোর্ডে ৬৮ রান জমা করেন ওপেনাররা। মার্টিন গাপটিল ৩৭ বলে ৪২ ও কেন উইলিয়ামসন মাত্র ২১ বলে করেন ৪২ রান। অধিনায়ক তাঁর ইনিংসটি সাজান ৮টি চার দিয়ে।

একপর্যায়ে ১২.৪ ওভারে ৩ উইকেটে ১০২ রান তুলে নেয় নিউজিল্যান্ড। তরুণ জর্জ ওয়ার্কার করেন ২৮, এরপরই ছন্দপতন। বাকি ৭.২ ওভারে আরও ৫ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৪৯ রান যোগ করে কিউইরা। গ্র্যান্ট ইলিয়ট (৫), লুক রনকির (৫) মতো তারকাদের কেউই সুবিধা করতে পারেননি। উইলিয়ামসন ও ওয়ার্কারের গুরুত্বপূর্ণ উইকেট দুটি নিয়ে ম্যাচসেরা হন ফ্যাঙ্গিসো। দুটি করে উইকেট নেন কাগিসো রাবাদা আর ডেভিড ওয়াইজও। জবাবে শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করে প্রোটিয়ারা। ২ রানের জন্য হাফসেঞ্চুরি পাননি হাশিম আমলা। ৪১ বলে ৪ চার ও ১ ছক্কায় ৪৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন এই ওপেনার। অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্স ২১ বলে ৩৩ এবং আরেক হার্ডহিটার রাইলি রুশে ২০ বলে ৩৮ রান করে আউট হলেও স্বাগতিকদের জয় পেতে অসুবিধা হয়নি।

সন্তুষ্ট দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘বাংলাদেশ সফরে অমন একটা ধাক্কার পর এটা ছিল আমাদের প্রথম সিরিজ। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী নিউজিল্যান্ড। তাই কিছুটা চাপে ছিলাম। কিন্তু ছেলেরা ভাল খেলেছে। দ্বিতীয় ম্যাচেও এ ধারা অব্যাহত রাখতে চাই।’ অন্যদিকে, সফরকারী সেনাপতি উইলিয়ামসন বোর্ডে পর্যাপ্ত রান তুলতে না পারার হতাশা গোপন করেননি। তিনি বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং খুবই শক্তিশালী। জয়ের জন্য স্কোরবোর্ডে পর্যাপ্ত রান তুলতে পারিনি। তৃতীয় উইকেট হারানোর পর থেকে আমাদের ব্যাটিং মোটেই ভাল হয়নি।’

প্রস্তুত সিমোন বিলেস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এ সপ্তাহেই শুরু হবে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপস। সেখানেও সেরা হওয়ার ক্ষেত্রে ফেবারিট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তারকা মহিলা জিমন্যাস্ট সিমোন বিলেস। প্রস্তুতিটা ভালভাবেই সেরেছেন তিনি এতদিনে। কারণ গত দুই বছরে কোন মিটে হারেননি তিনি। সে কারণে আগামী বছর রিও ডি জেনিরো অলিম্পিকে স্বর্ণ জয়ের অন্যতম দাবিদার বিলেস। ১৮ বছর বয়সী এ তরুণীকে অবশ্য এর আগে পরীক্ষায় নামতে হবে ইউএস জাতীয় জিমন্যাস্টিকস চ্যাম্পিয়নশিপসে। এখনও পরবর্তী অলিম্পিক শুরু হতে দেরি আছে ৩৫৬ দিন। দুই বছর আগে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপসে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন বিলেস। এরপর যে আটটি মিটে অংশ নিয়ে সবগুলোতে জিতেছেন। গড়ে ২.১৮ পয়েন্ট এগিয়েছিলেন প্রতিটি জয়ে প্রতিপক্ষের চেয়ে। বিলেস নিজেকে অবশিষ্ট বিশ্বের সকল জিমন্যাস্টের চেয়ে আলাদা এক অবস্থানে নিয়ে গেছেন। এ বিষয়ে তাঁর দীর্ঘ সময়ের কোচ এইমি বুরম্যান বলেন, ‘না, এমন নয়। কিন্তু সে কোন সময় চিন্তা করে না যে, কেউ একজন তাকে পরাজিত করবে। কখনই সে ভাবে না কোন একজন তাকে পেছনে ফেলতে পারে।’ এবার অবশ্য অলিম্পিকের অলরাউন্ড ইভেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন গ্যাবি ডগলাস এবং তিনবারের অলিম্পিক পদকজয়ী এ্যালি রেইসম্যান নিজেদের দারুণ উন্নতি ঘটিয়েছেন। সে কারণে বিলেস ভাল কিছু সতীর্থ পাবেন। গ্যাবি এবার অলিম্পিকের অলরাউন্ড ইভেন্টে স্বর্ণ জিততে পারলে ইতিহাস গড়ে ফেলবেন। কারণ সর্বশেষ ৫০ বছর আগে অলিম্পিকে কোন মহিলা জিমন্যাস্ট আগের আসরের স্বর্ণপদক পরবর্তী আসরেও ধরে রাখতে পেরেছিলেন। বিলেসের সেরা হয়ে ওঠাতে গ্যাবির ওপর থেকে চাপ তাই কমে গেছে অনেকখানি। এবার নিজ ইভেন্টে ভালভাবে মনোযোগ দিতে পারবেন তিনি। ২০১২ অলিম্পিকে ওটু এ্যারেনায় বার ইভেন্টে গ্যাবিকে হারিয়ে দিয়েছিলেন কিশোরী বিলেস। এবার শিকাগোয় গত মাসে অনুষ্ঠিত জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপসের বাছাইয়েও বিলেসের কাছে হেরে দ্বিতীয় হয়েছেন গ্যাবি। তবে আগের চেয়ে নিজের উন্নতি হয়েছে সেটার প্রমাণ দিয়েছেন। কারণ মার্চে ইতালিতে অনুষ্ঠিত জেসোলো কাপে চতুর্থ হয়েছিলেন গ্যাবি।

গল টেস্টে যত রেকর্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গলের প্রথম টেস্টে নাটকীয় জয় পেয়েছে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। সাড়ে তিন দিনে সমাপ্ত ম্যাচটি হাজির হয় দারুণ সব রোমাঞ্চ নিয়ে। ১৯২ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরুর পর ৬২ রানের জয় স্বাগতিক লঙ্কানদের। বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটিং শক্তির ভারতের ১১২ রানে গুটিয়ে যাওয়া...। সব মিলিয়ে বেশকিছু নজির আর রেকর্ডের সাক্ষী হয়েছে গল টেস্ট। তারই গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি তুলে ধরা হলো।

** ২০০’র নিচে লক্ষ্য তাড়া (১৭৬) করতে নেমে ১৮ বছর পর হারল ভারত। সর্বশেষ ১৯৯৭ সালে ব্রিজটাউনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১২১ রান তাড়া করতে গিয়ে হেরেছিল শচীন টেন্ডুলকরের দল। সেবার অলআউট হয়েছিল ১০১ রানে।

** ১৯২Ñ বেশি রানে পিছিয়ে থেকে জয়ের নতুন রেকর্ড শ্রীলঙ্কার। সর্বোপরি যেটি অস্ট্রেলিয়ার দখলে। ১৯৯২ সালে এই লঙ্কানদের বিপক্ষেই ২৯১ রানে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ১৬ রানে জিতেছিল এ্যালান বোর্ডারের নেতৃত্বাধীন অসিরা।

** ১১২Ñ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে এটিই ভারতের সর্বনিম্ন রানের নজির। আগে যেটি ছিল ১৩৮ রানের। এমনকি গলে গুটিয়ে যাওয়া সর্বনিম্ন চার ইনিংসের তিনটিতেই রয়েছে ভারতের নাম!

** ৭/৪৮Ñ মুত্তিয়া মুরলিধরনের পর গলে চতুর্থ ইনিংসে রঙ্গনা হেরাথের এটি দ্বিতীয় সেরা বোলিংয়ের নজির। ৬১ টেস্টে হেরাথের উইকেট ২৭০Ñ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি (৩৬২) ও ডেরেক আন্ডারউডের (২৯৭) পর বাঁহাতি স্পিনার হিসেবে তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড। ক্যারিয়ারে ২২তম বারের মতো ৫ উইকেট হেরাথের। স্পিনার হিসেবে এ তালিকায় তার আগে আছেন কেবল মুরলিধরন (৬৭), শেন ওয়ার্ন (৩৭), অনিল কুম্বলে (৩৫) ও হরভজন সিং (২৫)। প্রতি পাঁচ ইনিংসের ব্যবধানে একবার করে ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়েছেন হেরাথ!

** শনিবার ৩৭ বছর ১৪৯ দিন বয়সে ৭ উইকেট নিয়েছেন হেরাথ। শ্রীলঙ্কার হয়ে সবেচেয়ে বেশি বয়সে ইনিংসে বেশি উইকেট নেয়ার নতুন নজির স্থাপন করেন তিনি। ৩৫ বছর বয়সে ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়ে যেখানে দ্বিতীয় স্থানে মুরলিধরন।