২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ধরাজশাহীতে শহীদ মিনারের জায়গায় ব্যক্তিগত অফিস

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহীর তানোর উপজেলার কামারগাঁ ইউনিয়নে শহীদ মিনার ও পাঠাগারের জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় প্রভাবশালীরা এ দখল প্রক্রিয়ায় যুক্ত রয়েছেন। এ নিয়ে ওই এলাকায় মানুষের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, জেলার কামারগাঁওয়ে সিরাজ উদ্দৌলার আমলের কাচারিবাড়ি ছিল। একাত্তরের পর বাড়িটি সরকারী খাস সম্পত্তিতে পরিণত হয়। এরপর থেকে জেলা প্রশাসন জমিটির দেখভাল করে। তবে স্থানীয়রা বিভিন্নভাবে জমিটি দখল নিতে থাকে।

তিন বছর আগে ২০১২ সালে কামারগাঁ ইয়াং এ্যাসোসিয়েশন (প্রজন্ম কামারগাঁ) স্থানীয় সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী এবং জেলা প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে সেখানে শহিদ মিনার এবং পাঠাগার নির্মাণ করে। পরবর্তীতে পাঠাগারটি সরকারী তালিকাভুক্ত হয়। তবে সম্প্রতি কামারগাঁ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি সুফি কামাল মিন্টু ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের অফিসের নামে শহিদ মিনারে পাদদেশের জায়গা দখল শুরু করে। গত বৃহস্পতিবার থেকে তিনি সেখানে অফিস নির্মাণ কাজ শুরু করেছেন। অফিস নির্মিত হলে শহিদ মিনারের পাদদেশে যে পাঠাগার করা হয়েছে তাতে প্রবেশের পথ রুদ্ধ হয়ে যাবে। এ নিয়ে এলাকায় চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। প্রজন্ম কামারগাঁর সভাপতি নূর নবী জানান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নামে একাধিক জায়গা বরাদ্দ নিয়েছে। কিন্তু কামারগাঁ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সেক্রেটারি ব্যক্তিগত চেম্বারের পাশে পার্টি অফিস করার জন্য এখন শহিদ মিনারের জায়গা দখল করছে। আজ রবিবার এ বিষয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে তিনি লিখিতভাবে অভিযোগ করবেন বলেও জানান। কামারগাঁ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সেক্রেটারি সুফি কামাল মিন্টুর ফোনে যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।