২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

২৩ দিন পর মায়ের কোলে গুলিবিদ্ধ শিশু সুরাইয়া

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জন্মের দীর্ঘ ২৩ দিন পর মায়ের কোলে এল মাগুরায় মাতৃগর্ভে গুলিবিদ্ধ শিশু সুরাইয়া। রবিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে ২৩ দিন বয়সী সুরাইয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নবজাতক নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (এনআইসিইউ) থেকে নিয়ে পুরাতন ভবনের কেবিনে চিকিৎসাধীন তার মা নাজমা বেগমের কোলে তুলে দেয়া হয়। শিগগির হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র (রিলিজ) পেয়ে সুরাইয়া বেগম পাবে স্বজনদের ভালোবাসার কোলও।

সুরাইয়াকে মায়ের কোলে হস্তান্তর করেন শিশু সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. কানিজ হাসিনা শিউলী। এসময় উপস্থিত ছিলেন ঢামেকের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মিজানুর রহমান, শিশু সুরাইয়া ও তার মায়ের চিকিৎসকরা।

আদরের সন্তানকে কোলে তুলে দিতেই আনন্দে-আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন নাজমা বেগম। ‘ আমার মানিক আমার কোলে। এ যে কেমন অনুভূতি, ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। এখন মানিক আমার কোলে থাকবে।’ সন্তানকে কোলে নিয়ে বলছিলেন নাজমা।

সুরাইয়াকে তার মায়ের কোলে তুলে দেওয়ার পর ঢামেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মিজানুর রহমান বলেন, ২৬ জুলাই ঢামেকে ভর্তি করা হয় শিশু সুরাইয়াকে। এখানে আনার পরই মেডিকেল বোর্ড বসিয়ে তাকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। যা যা প্রয়োজন ছিল তার সবই করেছেন চিকিৎসকরা, নিরলসভাবে। ফলে নবজাতকটি এখন সুস্থ হয়ে উঠেছে। তাকে চিকিৎসকরা মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিতে পেরেছেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ জুলাই মাগুরা শহরে যুবলীগের সমর্থক দু’গ্রুপের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলার সময় গুলিবিদ্ধ হন যুবলীগ কর্মী কামরুল ভূঁইয়ার বড় ভাইয়ের অন্তঃস্বত্ত্বা স্ত্রী নাজমা খাতুন ও চাচা মমিন ভূঁইয়া। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ওইদিন রাতেই অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে মাতৃগর্ভে গুলিবিদ্ধ শিশুটির জন্ম হয়। আহত মমিন ভূঁইয়া শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাতে মারা যান।

পরে গুরুতর আহত শিশুটিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢামেক হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে তার চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ড গঠন করে ঢামেক কর্তৃপক্ষ।