২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সংসদের সপ্তম অধিবেশন ১ সেপ্টেম্বর থেকে

সংসদ রিপোর্টার ॥ দশম জাতীয় সংসদের সপ্তম অধিবেশন বসছে আগামী ১ সেপ্টেম্বর বিকেল ৫টায়। রবিবার রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সংবিধানের ৭২ (১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী এ অধিবেশন আহ্বান করেছেন। অধিবেশন শুরুর আগে স্পীকার ড. শিরীন শারমিনের সভাপতিত্বে কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে এ অধিবেশনের মেয়াদ নির্ধারণ করা হবে। তবে এ অধিবেশনটি হবে সংক্ষিপ্ত।

চলতি সংসদের ষষ্ঠ অধিবেশন ৩ জুন শেষ হয় গত ৮ জুলাই। এটি ছিল বাজেট অধিবেশন। এ অধিবেশনে ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করা হয় এবং তা পাস হয়। সংবিধান অনুযায়ী একটি অধিবেশন শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে পরবর্তী অধিবেশন বসার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এ বাধ্যবাদকতা থেকেই আগামী পহেলা সেপ্টেম্বর অধিবেশনটি আহ্বান করা হয়েছে।

মানবাধিকার রক্ষায় সবাই একযোগে কাজ করতে হবেÑ স্পীকার ॥ মানুষের মৌলিক মানবাধিকার রক্ষায় সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, মানবমর্যাদা সমুন্নত রাখতে মানবাধিকার রক্ষা করে একটি শোষণহীন, বৈষম্যহীন সমাজ প্রতিষ্ঠায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশন ও সরকারকে একযোগে কাজ করতে হবে। মানবাধিকার কমিশনকে শুধু কৌশলগত পরিকল্পনা প্রণয়ন করলেই চলবে না, মানবাধিকার রক্ষায় এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সরকারকে বাস্তবধর্মী পরামর্শ প্রদান করতে হবে।

রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে রবিবার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের দ্বিতীয় পাঁচ বছর মেয়াদী (২০১৬-২০২০) স্ট্র্যাটেজিক প্লানের ‘কনসালটেশন মিটিংয়ের’ উদ্বোধনী সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কমিশনের পূর্ণকালীন সদস্য কাজী রেজাউল হক। এ সময় অন্যদের মধ্যে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার আলম, ভারতের জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য বিচারপতি শ্রী দারমার মুরুগেসান, নেপালের জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য বিচারপতি প্রকাশ চন্দ্র শর্মা অস্তি, বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী রবার্ট ডি. ওয়াটকিনস বক্তব্য রাখেন।