২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুকের চোখে ৪-১’র স্বপ্ন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এ্যাশেজ পুনরুদ্ধার হয়ে গেছে, তাই বলে রিল্যাক্স মুডে নেই ইংলিশরা। ট্রেন্ট ব্রিজের চতুর্থ টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ঐতিহ্যের সিরিজ জিতে নেয় স্বাগতিকরা। সাধারণের কাছে কিংস্টন ওভালের পঞ্চম ও শেষ টেস্টটি তাই কেবলই আনুষ্ঠানিকতার। ইংল্যান্ড অধিনায়ক সেই দলে নন, সাফল্য অব্যাহত রেখে সিরিজের ফল ৪-১ করার স্বপ্নে বিভোর এ্যালিস্টার কুক। বিশ্বকাপের দল থেকে বাদ পড়ার পর মনের দুঃখে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টেস্টের নেতৃত্ব ছেড়ে দিতে চেয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। এ্যাশেজ সাফল্যে সেই কুক এখন দারুণ আত্মবিশ্বাসী। শেষ টেস্ট শুরু বৃহস্পতিবার।

‘ওভালে দেখাতে চাই আমরা জয়ের জন্য এখনও ক্ষুধার্ত। এ্যাশেজ পুনরুদ্ধার নিশ্চিত হয়েছে বলে এতটুকু ছাড় দেয়া হবে না। এ্যাটাকিং ক্রিকেটের পসার সাজিয়ে সিরিজের ফলটাকে ৪-১ করতে চাই।’ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন কুক। ইংল্যান্ড টেস্ট অধিনায়কের ফিরে আসার গল্পটা যেন চলমান এক সিনেমা। ব্যক্তিগত ফর্মহীনতা ও মাঠে দলের ব্যর্থতায় কেবল ওয়ানডের নেতৃত্বই হারাননি, বিশ্বকাপের দল থেকেও ছুড়ে ফেলা হয় আধুনিক ইংল্যান্ডের অন্যতমসেরা এই ব্যাটসম্যানকে। দুঃখে টেস্ট দলের দায়িত্ব ছাড়ার চিন্তাও পেয়ে বসেছিল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সময়টা যে কতটা কঠিন ছিল, সেটি কেবল আমিই জানি। বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে (টেস্টে) মাঠে নেমে খেলতেও কষ্ট হচ্ছিল। এ্যাশেজের আগে নেতৃত্ব ছেড়ে দেয়ার চিন্তাও করছিলাম!’

সেই কুক এখন পৃথিবীর অন্যতম সুখী মানুষ। বাংলাদেশের কাছে হেরে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়ে ইংলিশরা। অন্যদিকে চ্যাম্পিয়ন হয় অস্ট্রেলিয়া, যারা ঘরের মাটিতে গত এ্যাশেজে ‘হেয়াইটওয়াশ’ করেছিল ইংল্যান্ডকে। একদিকে বিধ্বস্ত, এলোমেলো ইংল্যান্ড, অন্যদিকে দুরন্ত-দুর্বার অস্ট্রেলিয়াÑ এবার এ্যাশেজে তাই নিশ্চিত ফেবারিট ছিল অসিরা। কিন্তু তারণ্যনির্ভর ইংল্যান্ডে বদলে যায় মাঠের দৃশ্যপট। কার্ডিফের প্রথম টেস্ট ১৬৯ রানের জয় ইংল্যান্ডের, ম্যাচসেরা জো রুট। লর্ডসের দ্বিতীয় ম্যাচে ৪০৫ রানের জয়ে অবশ্য ঘুরে দাঁড়িয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এজবাস্টনে ৮ উইকেট এবং ট্রেন্ট ব্রিজে ৭৮ রানের জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখে ট্রফি পুনরুদ্ধার করে ইংলিশরা। এবার ‘নায়ক’ স্টিভেন ফিন ও স্টুয়ার্ট ব্রড।

দলের পারফর্মেন্স দারুণ খুশি কুক বলেন, ‘গত দেড় মৌসুমে যা ঘটে গেছে, তারপর এতসব তরুণ ক্রিকেটার নিয়ে ঘুরে দাঁড়ানো সহজ ছিল না। কিন্তু জয় পাওয়া তিন টেস্টেই ছেলেরা দেখিয়েছে মনের জোরের সঙ্গে মাঠের নৈপুণ্য যোগ হলে সব সম্ভব। রুট ক্ল্যাসিক্যাল ব্যাটসম্যান, র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর স্থান দখল করে সেটি সে প্রমাণ করেছে। বল হাতে স্টিভেন ফিন আর জেমস এ্যান্ডারসন বিশ্বমানের। ট্রেন্ট ব্রিজে স্বরূপে ফিরেছে স্টুয়ার্ট ব্রড। ব্যাটিংয়ে বেন স্টোকস-মঈন আলি, বোলিংয়ে স্টোকস-মার্ক উড সবাই দুর্দান্ত এফোর্ট দিয়ে চলেছে। এরপর দেশের বাইরে ভাল করাটা হবে আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। ছেলেরা প্রস্তুত।’ কুক নিজেও রানে ফিরেছেন। সিরিজে ২২৩ রান করেছেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক।