২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শিশুর মাথার চুল ও ভ্রু কেটে নির্যাতন

নিজস্ব সংবাদদাতা, জয়পুরহাট থেকে জানান, আক্কেলপুরে দশ বছরের নিচে সাজ্জাদ হোসেন হোটেলে কাজ করতে রাজি না হওয়ায় তার দু’চোখের ভ্রু ও মাথার চুল বিকৃত করে কেটে দেয়ায় হোটেল মালিক, কর্মচারী ও সেলুন মালিককে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যায় এ ঘটনাটি ঘটে। সাজ্জাদ হোসেন আক্কেলপুর তুলসীগঙ্গা নদীর শহর রক্ষা বাঁধের সাখিদার পাড়ার সহর আলীর ছেলে। জানা গেছে, শনিবার বিকেলে আক্কেলপুর পৌর সদরের কলেজ মসজিদ সংলগ্ন মেগা হোটেল এ্যান্ড রেস্টুরেন্টে ওই শিশুকে পুনরায় কাজ করতে বলে মালিক। কিন্তু সে কাজ করতে রাজি না হওয়ায় ওই শিশুকে কৌশলে হোটেলের ভেতরে ডেকে নিয়ে আটক করে রাখে হোটেল কর্মচারী রুবেল। পরে সাজ্জাদকে ওই হোটেলের পাশে সুমনের সেলুনে নিয়ে তার দু’চোখের ভ্রু ও মাথার চুল বিকৃত করে কাটিয়ে দেয়।

এ অবস্থায় সাজ্জাদ বাড়ি ফিরে হোটেলের লোকজনের নির্যাতন করার বিষয়টি অভিভাবকদের খুলে বলে। সব শুনে অভিভাবক ও আত্মীয়-স্বজনরা সন্ধ্যার দিকে ওই হোটেলের সামনে গিয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানায় ও ক্ষোভে ফেটে পড়ে। এরই এক পর্যায়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঘটনাটি পুলিশকে জানালে হোটেলের মালিক আব্দুল মতিন, কর্মচারী রুবেল ও সেলুন মালিক সুমনকে আটক করে।

রূপগঞ্জে সিগারেটের ছ্যাঁকা

নিজস্ব সংবাদদাতা, রূপগঞ্জ থেকে জানান, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে দাবিকৃত যৌতুকের ৫০ হাজার টাকা না দেয়ায় মাদকাসক্ত স্বামী এক গৃহবধূকে সিগারেটের আগুন দিয়ে ছ্যাঁকা দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুধু তাই নয়, গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে অচেতন করে ফেলা হয়। রবিবার সকালে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার চরপাড়া এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। নির্যাতিত গৃহবধূ শিউলি আক্তার জানান, উপজেলার হারিন্দা এলাকার আবুল বাশারের মেয়ে তিনি। চার বছর আগে একই উপজেলার কাঞ্চন চরপাড়া এলাকার মামুন মিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয়। বিয়েতে যৌতুক হিসেবে ৭০ হাজার টাকা ও এক ভরি স্বর্ণালঙ্কার দেয়া হয়। গত এক বছর ধরে মামুন মিয়া মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। এরপর থেকে বিভিন্ন সময় শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে আসছে। রবিবার সকালে শিউলি আক্তারের কাছে ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে মামুন মিয়া। যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করায় মাদকাসক্ত স্বামী মামুন মিয়া তাকে সিগ্যারেটের আগুন দিয়ে ছ্যাঁকা দেয়।

নির্বাচিত সংবাদ