২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেই শিশুর দায়িত্ব নিল জামায়াতি হাসপাতাল

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ মামলার ভয়ে অবশেষে সেই শিশুর চিকিৎসার সব দায়দায়িত্ব নিয়েছে জামায়াত নিয়ন্ত্রিত ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। রবিবার শিশুর বাবা আদালতে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিলে তার আগেই হাসপাতালের চিকিৎসকরা শিশুটির চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন ও তাদের তত্ত্বাবধানে রেখে চিকিৎসা শুরু করেছে।

জনকণ্ঠসহ কয়েকটি গণমাধ্যমে ওই হাসপাতালে শিশুর অপচিকিৎসার খবর প্রকাশ পেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশুর অভিভাবকদের বুঝিয়ে শিশুটিকে নিয়ে এসে হাসপাতালে ভর্তি করেন। শিশুটি সুস্থ হয়ে উঠা পর্যন্ত তাদের তত্ত্বাবধানে রাখা হবে বলে জানিয়েছেন শিশুর বাবা মিজানুর রহমান। জানা যায়, জামায়াত নিয়ন্ত্রিত রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে অপচিকিৎসার শিকার হয় মুসরাত জাহান নামের তিন মাসের শিশু। অস্ত্রোপচারের সময় শীতাতপনিয়ন্ত্রিত অপারেশন থিয়েটারের ঠা-ায় শীতল হয়ে যাওয়ায় চিকিৎসকেরা গরম সেঁক দিতে গিয়ে পুড়িয়ে দেয় তার শরীরের অংশ।

শিশু নির্যাতনের ঘটনায় মামলা ॥ এদিকে রাজশাহী নগরীর কাটাখালী এলাকায় ১১ বছরের রত্না নামের শিশু গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নির্যাতিত রতœার মা শরীফা বেগম বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে গৃহকর্তা জিল্লুর রহমানকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। মতিহার থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি হুমায়ূন কবীর জানান, নির্যাতনের অভিযোগ এনে শিশু রতœার মা শরীফা বেগম বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় জিল্লুর রহমান ও তার স্ত্রী রীতা খাতুনকে আসামি করা হয়েছে। বর্তমানে শিশুটি ভিকটিম সার্পোট সেন্টারে রয়েছে। প্রসঙ্গত, শুক্রবার দুপুরে গৃহকর্তা জিল্লুর রহমানকে ১১ বছরের শিশু গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনায় আটক করে মতিহার থানা পুলিশ। পুলিশ জানায়, কাটাখালী এলাকার জিল্লুর ও স্ত্রী রীতা খাতুন বাড়িতে রত্নাকে প্রায়ই নির্যাতন করতেন। প্রায় দুই মাস আগে গরম খুন্তি দিয়ে তার শরীরের বাঁ হাতে ছ্যাঁকাও দেয়া হয়। সর্বশেষ শুক্রবার সকালে মিষ্টি চুরির অভিযোগে রীতা খাতুন তাকে রুটি তৈরির বেলুন দিয়ে মারপিট করে ঘরের মধ্যে আটকে রাখেন।

নির্বাচিত সংবাদ