২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কাগজপত্রহীন অভিবাসীদের বহিষ্কার করব ॥ ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে তিনি যুক্তরাষ্ট্র থেকে কাগজপত্রহীন সব অভিবাসীকে বহিষ্কার করবেন। তিনি প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার জারি করা অভিবাসন সম্পর্কিত নির্দেশগুলোও রদ করবেন। তিনি এনবিসি নিউজের সঙ্গে এক সাক্ষাতকার দিচ্ছিলেন। সেটি রবিবার প্রচারিত হওয়ার কথা। খবর এনবিসি ও টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইনের।

ট্রাম্প এনবিসির “মিট দ্য প্রেস” অনুষ্ঠানে বলেন, আমরা পরিবারগুলোতে ঐক্যবদ্ধ রাখতে যাচ্ছি কিন্তু তাদের যেতেই হবে। সাক্ষাতকারের শনিবার প্রকাশিত এক উদ্ধৃতি থেকে এটি জানা যায়।

যাদের অন্যত্র যাওয়ার কোন জায়গা নেই এমন অভিবাসীদের বিষয়ে উপস্থাপক চাকটডের এক প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, আমরা তাদের নিয়ে কাজ করব। তিনি আরও বলেন, তাদের যেতেই হবে। হয় আমাদের কোন দেশ থাকবে, নয়তো আমাদের কোন দেশ থাকবে না। ট্রাম্প (৬৯) ওই সাক্ষাতকারে একথাও বলেন যে, ওবামার জারি করা অভিবাসন সম্পর্কিত নির্বাহী নির্দেশগুলো বাতিল করার প্রয়োজন হবে। এদের মধ্যে এমন একটি নির্দেশও রয়েছে যারা যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধভাবে এসেছিল এ রূপ মা-বাবার সন্তানদের বহিষ্কারের হাত থেকে রক্ষা করে। রিয়াল এস্টেট ব্যবসায়ী ও টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব ট্রাম্প জনমত জরিপে রিপাবলিকান পার্টির ১৭ জন মনোনয়ন প্রত্যাশীর শীর্ষে রয়েছেন। তিনি অবৈধ অভিবাসন সম্পর্কে উস্কানিমূলক মন্তব্য করে বিতর্কের জন্ম দেন। এক মন্তব্যে তিনি মেক্সিকো থেকে আগত কাগজপত্রহীন কোন কোন অভিবাসীকে অপরাধী ও ধর্ষক বলে বর্ণনা করেন। যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ১ কোটি ১০ লাখ অবৈধ অভিবাসী রয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসনের জন্য আগত ব্যক্তিদের জন্য সম্পূর্ণ নতুন মানদ- নির্দেশ করতে হবে। তার মন্তব্য নিশ্চিতভাবেই ল্যাটিনো আন্দোলনকারী মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলোর বিরোধিতাকে আরও চড়িয়ে দেবে। তারা প্রথম থেকেই ট্রাম্পের প্রার্থিতার সমালোচনা করে এসেছেন। তিনি মেক্সিকোকে যুক্তরাষ্ট্রে ‘অপরাধী’ ও ‘ধর্ষক’ পাঠানোর দায়ে অভিযুক্ত করে এক ভাষণ দানের মধ্য দিয়ে তার প্রচারাভিযান শুরু করেন।