২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লালমনিরহাটে নিজের বাল্যবিয়ে বন্ধে সহায়তা চেয়েছে এক কিশোরী

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট॥ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের বালাপাড়া গ্রামে ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী কিশোরী কন্যা শ্যামলী রানী (১৫)। রবিবার গায়ে হলুদের পর সে বুঝতে পেরেছে তার বিয়ে। সে এখন বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চায়না। লেখা পড়া শিখে মানুষ হতে যায়। তাই নিজের বাল্যবিয়ে বন্ধ করতে সংবাদ কর্মীদের কাছে সহায়তা চেয়েছে। সোমবার রাতে তার বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা হওয়ার কথা। কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এই বিয়ে বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

কিশোরী শ্যামলীর বাবা ব্রজেন্দ্র নাথ জানায়, হিন্দুরে বিয়ে যৌতুক ছাড়া হয় না। আমরা গরিব অর্থ নেই। তাই পাশের তুষভান্ডার ইউনিয়নের মটের পাড় গ্রামের উপেন্দ্র নাথেরছেলে কৃষকদেপেন্দ্র নাথের (৩৩) সাথে বিয়ে ঠিক হয়। তারা যৌতুক ছাড়াই কন্যাকে গ্রহন করতে চেয়ে ছিল। পরিবারটিও সচ্ছল ছিল। বাল্যবিয়ে অপরাধ এই সর্ম্পকে তাদের কোন ধারনা নেই।মেয়ের বেশী বয়স দেখিয়ে জন্মনিবন্ধন সনদ সংগ্রহ করেছে।