১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বেনচিচের মুখেই শিরোপার হাসি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বেলিন্ডা বেনকিচই জিতলেন রজার্স কাপের শিরোপা। সেমিফাইনালে সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়েই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি। সুইজারল্যান্ডের এই বিস্ময় কণ্যা তার প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন ফাইনালেও। রবিবার ফাইনালে টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় বাছাই সিমোনা হ্যালেপকেও পরাজয়ের স্বাদ উপহার দেন বেলিন্ডা বেনচিচ। সেইসঙ্গে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো রজার্স কাপের শিরোপা নিজের শোকেসে তুললেন সুইজারল্যান্ডের এই তারকা। ক্যারিয়ারে এটি তার দ্বিতীয় ট্রফি। এর আগে প্রথম কোন প্রতিযোগীতামূলক ম্যাচ জিতেছিলেন গত জুনে। সেবার ইস্টবার্ন শিরোপা নিজের করে নিয়েছিলেন বেনকিচ।

তবে রজার্স কাপের শিরোপাটা সহজে জিতেননি ১৮ বছর বয়সী এই সুইস সুন্দরী। রোমানিয়ার সিমোনার বিপক্ষে ৭-৬ গেমে প্রথম সেট ঠিকই জিতে নেন বেনকিচ। কিন্তু দ্বিতীয় সেটেই ঘুরে দাড়ান হ্যালেপ। ৭-৬ গেমে বেনকিচকে পরাজিত করেন তিনি। তৃতীয় সেটে আবারও ঘুরে দাড়ানন সুইস তারকা। ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকার সময়ই ম্যাচ থেকে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন হ্যালেপ। এর ফলে শিরোপা জিতেই কোর্ট ছাড়েন পুরো টুর্নামেন্ট জুড়েই একের পর এক চমক উপহার দেয়া এই সুইস কণ্যা। আমেরিকান টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি সেরেনার পর রোমানিয়ার দ্বিতীয় বাছাই হ্যালেপকেও পরাজিত করে রোমাঞ্চিত বেনকিচ। ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে অভিমত প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘এখানে আমি আসলেই খুব উপভোগ করেছি। আমি যে এতোটা ভালো খেলতে পারি তা এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না। তবে প্রথমেই আমি সিমোনার প্রতিপ কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। কেননা সেই আমাকে দারুণ একটি সপ্তাহ উপহার দিয়েছে। এরপর আমার মা-বাবা এবং আমার দলের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি। তবে এটা ঠিক যে যদি ফাইনালেও হেরে যেতাম তাহলেও এটা হতো আমার জন্য বিস্ময়কর এক অভিজ্ঞতা।’