২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মীর কাশেম ও নিজামীর মামলা আপীল বিভাগের আজকের কার্যতালিকায়

  • যুদ্ধাপরাধী বিচার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক মৃত্যুদ-প্রাপ্ত জামায়াতের নির্বাহী কমিটির সদস্য মীর কাশেম আলী ও জামায়াত আমির মতিউর রহমান নিজামীর আপীল সুপ্রীমকোর্টের কার্যতালিকায় এসেছে। আপীল বিভাগের মঙ্গলবারের নিয়মিত কার্যতালিকার কাশেম আলীর মামলাটি আদেশের জন্য তিন নম্বরে ও নিজামীর মামলাটি শুনানির জন্য ১০ নম্বরে রাখা হয়েছে। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যবিশিষ্ট আপীল বেঞ্চ এই দুটি মামলার শুনানি করবেন। বেঞ্চের অন্য বিচারপতিরা হচ্ছেন বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এবং বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

এর আগে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে চার বিচারপতির আপীল বিভাগের বেঞ্চ মীর কাশেম আলীর মামলার আপীলের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। ২৮ মে সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগ মামলার সারসংক্ষেপ দাখিলের জন্য রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের প্রতি নির্দেশ দেন। ২৮ মে মীর কাশেম আলীর আপীলের সারসংক্ষেপ দাখিলের জন্য আইনজীবীরা চার সপ্তাহ সময় আবেদন করে। পরে আদালত আসামি ও রাষ্ট্রপক্ষকে আপীলের সার সংক্ষেপ দাখিলের জন্য আরও চার সপ্তাহের সময় দেন। সার সংক্ষেপ দাখিলে উভয়পক্ষকে এর আগেও একদফা সময় দিয়েছিল আপীল বিভাগ।

২০১৪ সালের ২ নবেম্বর চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ মীর কাশেমকে মৃত্যুদ-ের রায় প্রদান করেন। ঐ রায়ের বিরুদ্ধে মীর কাশেম আলী খালাস চেয়ে ২০১৪ সালের ৩০ নবেম্বর সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগে আপীল দায়ের করেন। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউশনের ১১ ও ১২ নম্বর অভিযোগে মুক্তিযোদ্ধা জসীম ও জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরীকে হত্যার দায়ে আদালত তাকে মৃত্যুদ-ের আদেশ দেন।

মতিউর রহমান নিজামী ॥ মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যুদ-প্রাপ্ত জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামীর আপীল মামলা আগামীকাল শুনানির জন্য কার্যতালিকায় এসেছে। সোমবার বিকেলে সুপ্রিমকোর্টের ওয়েবসাইটে দেখা যায়, নিজামীর মামলাটি মঙ্গলবার আপীল বিভাগের কার্যতালিকায় ১০ নম্বরে রাখা হয়েছে। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চে আজ থেকে আপীল শুনানি শুরু হতে পারে।

এর আগে গত বছরের ২৩ নবেম্বর ফাঁসির দ- থেকে খালাস চেয়ে মতিউর রহমান নিজামীর পক্ষে আপীল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদন করেন তার আইনজীবীরা। এ আপীলের এ্যাডভোকেট অন রেকর্ড হচ্ছেন জয়নুল আবেদিন তুহিন। ৬ হাজার ২৫২ পৃষ্ঠার আপীলে মোট ১৬৮টি যুক্তি দেখানো হয়েছে। গত বছরের ২৯ অক্টোবর চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ আসামি নিজামীকে মৃত্যুদ- প্রদান করেন।