২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশ অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন, ফাইনালে ভারত পরাস্ত

বাংলাদেশ অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন, ফাইনালে ভারত পরাস্ত
  • সাফ অনুর্ধ ১৬ ফুটবল

রুমেল খান, সিলেট থেকে ॥ ‘দলের প্রত্যেকেই অত্যন্ত প্রতিভাবান খেলোয়াড়। ছেলেদের প্রতি আস্থা ছিল তারা ভাল করবে। তবে এতটা ভাল করবে তা ধারণাও করিনি।’ কথাগুলো সৈয়দ গোলাম জিলানীর। বাংলাদেশ অনুর্ধ ১৬ জাতীয় ফুটবল দলের কোচ। বড়রা যা পারেনি, তা করে দেখাল ছোটরাই। তাও আবার এক বার নয়, দু-দু’বার! সিনিয়র পর্যায়ে গত কয়েক বছরে ভারতকে হারাতে পারেনি বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। তবে হারেওনি। করেছে একাধিকবার ড্র। কিন্তু বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের কাছে এবার হারতেই হলো ভারতকে। সেটা সিলেটে অনুষ্ঠিত ‘সাফ অনুর্ধ ১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ’-এ। মঙ্গলবার দিনটি স্বাগতিক বাংলাদেশের জন্য ছিল যথার্থ অর্থেই মঙ্গলময়। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ও শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালে বাংলাদেশ টাইব্রেকারে ভারতকে ৪-২ (১-১) গোলে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

আগে গোল দিয়ে পরে গোল হজম। এরপর টাইব্রেকারে জয়। বাংলাদেশ তো ম্যাচে হারতেও পারত? ‘যারা পেনাল্টি নিয়েছে, তাদের ৫ জনের ৪ জনই বাফুফে একাডেমির। গত ৭-৮ মাস ধরে তাদের বিভিন্নভাবে প্রস্তুত করা হয়েছে। সেখানে পেনাল্টি নিয়েও তাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি।’

টুর্নামেন্ট সেরা বাংলাদেশ দলের ফরোয়ার্ড সারোয়ার জামান নিপু খেলতে পারেনি ফাইনালে। তবে সতীর্থদের প্রতি আস্থা ছিল জিলানীর। নিপু বলে, ‘দলে অন্যরাও ভাল ছিল। তাই আস্থা ছিল আমি খেলতে না পারলেও আমার দল জিতবে। টাইব্রেকারে যাওয়ার পর প্রথম তিন শট নেয়া পর্যন্ত কিছুটা ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। অবশ্য এরপর আমার শতভাগ বিশ্বাস তৈরি হয়েছিল আমরাই জিতব।’ ম্যাচসেরা হয়েছে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক-ডিফেন্ডার শাওন হোসেন। তার ভাষ্য, ‘এত স্বল্প সময়ে আমাদের যেভাবে শিখিয়েছেন, তারই ফল পেয়েছি।’

সেরা দল হিসেবেই শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ। সেই স্বীকৃতি মিলেছে ভারতের কোচ বিথান সিংয়ের কণ্ঠেও, ‘আমারা দল ভাল। তবে বাংলাদেশ যেভাবে খেলেছে, তাতে যোগ্য দল হিসেবেই তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। ভারতের অধিনায়ক বারভাসুখান সিং বলে, ‘আমরা ভাল দল, তবে দিনটি আমাদের ছিল না।’

এই ম্যাচে নিয়ম অনুযায়ী অতিরিক্ত আরও ৩০ মিনিটের খেলা অনুষ্ঠিত না হয়ে সরাসরি টাইব্রেকার অনুষ্ঠিত হয়। আর তাতে ভাগ্য ও স্নায়ুর লড়াইয়ে বিজয়ীর শেষ হাসি হাসে ‘বেঙ্গল টাইগার্স’ দলের দুরন্ত কিশোররাই। টানা তিন আসরে অংশ নিয়ে এই প্রথম ফাইনালে উঠেই বাজিমাত করল নিপু-শাওন-সাদরা।

৯০ মিনিটের ম্যাচে বাংলাদেশ ম্যাচের ৪৬ মিনিটে প্রথমে গোল করে এগিয়ে যায়। মিডফিল্ডার মোহাম্মদ শাওন দুই ভারতীয় ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে বক্সে ক্রস করে। বল পেয়ে যায় আরেক মিডফিল্ডার ফাহিম মুর্শেদ। দ্রুততার সঙ্গে বাঁ পায়ের গড়ানো শটে গোল করে সে (১-০)।

তবে বাংলাদেশ দলের এই গোল-আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। ম্যাচের ৬৩ মিনিটে স্টেডিয়াম স্তব্ধ করে দেয় ভারতের মিডফিল্ডার অময় অবিনাশ মরাজকার। প্রায় ৪০ মিটার দূর থেকে আচমকা এক শটে গোল করে ভারতকে সময়তায় ফেরায় সে (১-১)।

উভয়দলই গোল করার একাধিক সুযোগ নষ্ট করে। এরপর খেলা গড়ায় বহুল আলোচিত টাইব্রেকারে। গোল করে বাংলাদেশের ফাহিম মুর্শেদ, জাহাঙ্গীর আলম সজীব, মোহাম্মদ আতিকুজ্জামান ও সাদ উদ্দিন।

ভারতের সৌরভ মেহের ও মোহাম্মদ রাকিপ গোল করলেও অভিজিৎ সরকার ও সাকলাইন খান মিস করে বসে। অভিজিতের শট পোস্টে লেগে ফিরে আসে আর সাকলাইনের শট ধরে ফেলে বাংলাদেশের জয়ের নায়ক বনে যায় গোলরক্ষক ফয়সল আহমেদ।

ভারত এ নিয়ে টানা তৃতীয় বারের মতো ফাইনালে ওঠে। টানা দ্বিতীয়বার শিরোপা জেতার সুযোগ ছিল তাদের। পক্ষান্তরে তিন বার অংশ নিয়ে এবারই প্রথম ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। আর প্রথম ফাইনালেই সাফল্য!

বিজয়ী দলের হাতে ট্রফি তুলে দেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) সভাপতি কাজী মোঃ সালাউদ্দিন। হেড টু হেড লড়াইয়ে ভারতের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ। এবারের আসরে গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশ হারায় শ্রীলঙ্কাকে এবং ভারতকে। সেমিতে হারায় আফগানিস্তানকে। ভারত শ্রীলঙ্কাকে হারায়। বাংলদেশের কাছে হেরে গ্রুপ রানার্সআপ হয়। সেমিতে হারায় নেপালকে।

বাংলাদেশ অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন, অর্থমন্ত্রীর অভিনন্দন ॥ প্রথমবারের মতো সাফ অনুর্ধ ১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জেতায় বাংলাদেশ অনুর্ধ ১৬ ফুটবল দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। মঙ্গলবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক ই-মেইল বার্তায় তিনি এ অভিনন্দন জানান। আগামীতেও এই কিশোররা জয়ের ধারা অব্যাহত রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী। উল্লেখ্য, বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেছিলেন আবুল মাল আবদুল মুহিত।