২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বরিশালে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ৭ জঙ্গী জামিনে মুক্ত

  • সিরিজ বোমা হামলা

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ নগরীতে সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় দায়েরকৃত এক ডজন মামলার সাত জঙ্গীকে যাবজ্জীবন কারাদ-ে দ-িত করেছিল বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল। কিন্তু তারা সবাই এক এক করে হাইকোর্ট থেকে পর্যায়ক্রমে জামিন লাভ করে এখন মুক্ত জীবনযাপন করছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, দ-প্রাপ্তদের মধ্যে জিয়াউর রহমান জিয়া ও জাহিদ বাবুকে তিনটি মামলায়, সরোয়ার হোসেন ও আব্দুর রহিমকে দুটি মামলায় এবং জালাল আরেফিন, আবু ইউসুফ মজুমদার, গিয়াস হাওলাদারকে একটি মামলায় যাবজ্জীবন সাজা দেয়া হয়েছিল। বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগার সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে সিরিজ বোমা হামলায় দ-িত কোন আসামি কারাগারে নেই। সম্প্রতি সকলেই উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে বেরিয়ে গেছে।

আদালত সূত্রে আরও জানা গেছে, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট নগরীর ১৮টি স্থানে একই সময়ে সিরিজ বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় জেএমবির জঙ্গীরা। ওই ঘটনায় কোতোয়ালি মডেল থানায় ১২টি পৃথক মামলা দায়ের করে পুলিশ। থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) জহুরুল ইসলাম সরদার, ইমরান হোসেন, আনোয়ার হোসেন, আল-মামুন উল ইসলাম, শিশির কুমার পাল ও মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে দায়ের করা ১২টি মামলায়ই জিয়াউর রহমান জিয়া, জাহিদ বাবু, সরোয়ার হোসেন, আব্দুর রহিম, গোলাম মোর্শেদ চৌধুরী রেজা, আবু সোলায়মান সুজন, জালাল আরেফিন, মোঃ মারুফ, গিয়াস হাওলাদার, সাইফুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন, আবু ইউসুফ মজুমদার ও আব্দুস সোবাহানকে আসামি করা হয়েছিল।

সূত্রে আরও জানা গেছে, ২০০৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর সাভার থেকে আব্দুর রহিমকে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ ও ২০১০ সালের জানুয়ারি মাসে রাজধানীর বাড্ডা থেকে জাহিদ বাবুকে র‌্যাব সদস্যরা গ্রেফতার করে। জিয়াউর রহমান জিয়া ও সরোয়ার হোসেন ২০১০ সালের মাঝামাঝি সময়ে আদালতে আত্মসমর্পণ করে। অন্যদের বিভিন্ন সময়ে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে পুলিশ। উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে বের হওয়ার পর জাহিদ বাবুকে দু’বার কারা ফটক থেকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। পরে পৃথক দুটি ডাকাতির মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছিল। সে মামলায়ও জাহিদ বাবু জামিনে মুক্তি পায়।

দ-িত সাত জঙ্গী জামিনে মুক্ত আছে বলে স্বীকার করে বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের তৎকালীন পিপি ও জেলা আইনজীবী সমিতির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক কাজী মনিরুল ইসলাম বলেন, দ-িত জঙ্গীরা সাম্প্রতিক সময়ে হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়েছে।