২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাগুরায় বন্দুকযুদ্ধে আসামি আজিবর নিহত

  • গর্ভস্থ শিশুসহ মা গুলিবিদ্ধ

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাগুরা, ১৮ আগস্ট ॥ ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে গর্ভস্থ শিশুসহ মা নাজমা বেগম গুলিবিদ্ধ এবং আব্দুল মমিন নামে একজন নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার ৩ নং আসামি মেহেদী হাসান আজিবর ওরফে আজিবর শেখ (৩৪) সোমবার রাতে মাগুরার দোয়ারপাড়া এতিমখানা এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি এলজি ও ২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে। এ সময় ৬ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে মাগুরা সদর আধুনিক হাসপাতাল মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত অনুষ্ঠিত হয়। পরে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহত আজিবর শহরের দোয়ারপাড়া এলাকার আব্দুল মালেকের পুত্র। পুলিশ সুপার একেএম এহসান উল্লাহ জানান, সোমবার রাতে সাড়ে ১২টার দিকে পুলিশের একটি টহল দল মাগুরার দোয়ারপাড়া এতিমখানা এলাকায় গেলে জটলা দেখতে পায়। এরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পুলিশের প্রতি গুলিবর্ষণ করে। পুলিশ আত্মরক্ষায় পাণ্টা গুলি চালায়। পরে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মেহেদী হাসান আজিবর নামে এক ব্যক্তির লাশ পাওয়া যায়।

এদিকে নবজাতক সুরাইয়া ও মা নাজমা বেগম বর্তমানে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মামলার প্রধান আসামি জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সেন সুমনের ৭ দিনের রিমান্ড চলছে। বর্তমানে সে মাগুরা ডিবি পুলিশ হেফাজতে। ঢাকার কল্যাণপুর থেকে গত ২ আগস্ট সেন সুমনকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে মামলার ৫ নং আসামি ও ১২ নং আসামি সোবাহানকে পুলিশ এক দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। উল্লেখ্য, ২৩ জুলাই শহরের দোয়ারপাড় এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় নিহত আব্দুল মমিনের পুত্র রুবেল মিয়া বাদী হয়ে ২৬ জুলাই মাগুরা সদর থানায় ১৬ জনের নামে মামলা দায়ের করেন। এ পর্যন্ত মামলার ১৬ আসামির মধ্যে ডিবি পুলিশ ৮ আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।