২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারত আক্রমণাত্মক ক্রিকেটই খেলবে

ভারত আক্রমণাত্মক ক্রিকেটই খেলবে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ভাল অবস্থায় থেকেও শেষ পর্যন্ত গল টেস্টে হেরে যাওয়ায় ভারতকে নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। বিরাট কোহলিদের অতিআক্রমণাত্মক মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কিংবদন্তি রবি শাস্ত্রী। অনেকটা ক্ষোভের সঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘আগে সত্যিকারের ক্রিকেট শেখো, তারপর আগ্রাসন দেখাও!’ তবে তাতে কর্ণপাত করছেন না রবি শাস্ত্রী। ভারতের ‘টিম ডিরেক্টর’ কাম অন্তর্বর্তী কোচ জানিয়েছেন, সিরিজে পিছিয়ে থাকলেও পরের ম্যাচগুলোতে তার দল যথারীতি আক্রমণাত্মক ক্রিকেটই খেলবে। অধিনায়ক কোহলির হয়েও ব্যাট ধরেছেন ‘সুপার ধারাভাষ্যকার’ থেকে সংঘটক বনে যাওয়া সাবেক এই তারকা ক্রিকেটার। শাস্ত্রী বলেন, ‘বাইরে বসে যে যাই বলুক, অবশ্যই আমরা আমাদের খেলার ধরন বদলাব না। গল টেস্টে যেভাবে খেলেছিলাম, কলম্বোতে ঠিক সেভাবেই খেলব। প্রথম ম্যাচে আমরা কেবল একটি ভুলই করেছিলাম, সেটা হচ্ছে শেষ পর্যন্ত ধৈর্য ধরে রাখতে পারিনি। শ্রীলঙ্কাকে ১৮৩ রানে গুটিয়ে দেয়ার পর প্রথম ইনিংসে ৩৭৫ রান করে ১৯২ রানে এগিয়ে যায় ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসে এক পর্যায়ে ৯৫ রানে লঙ্কানদের ৫ উইকেট তুলে নিয়ে ইনিংস ব্যবধানে জয়ের আশা জাগিয়ে ছিল অতিথিরা। সেখান থেকে অবিশ্বাস্য ব্যাটিংয়ে ৩৬৭ রান করে উল্টো ১৭৫ রানের লিড পেয়ে যায় শ্রীলঙ্কা! জবাবে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১১২ রানে অলআউট হয়ে ৬৩ রানের বড় ব্যবধানে হারে কোহলির দল। তিন টেস্টের সিরিজে পিছিয়ে পড়ে ১-০ ব্যবধানে। হতাশ গাভাস্কার বলেছিলেন, ‘মুখে বড় বড় কথা বাদ দিয়ে ভারতীয়দের মাঠে ভাল ক্রিকেট খেলার দিকে মনোযোগ দেয়া উচিত। ভারতীয় ম্যানেজমেন্টের আক্রমণাত্মক, পরীক্ষামূলক বা অন্য যে কোন ধরনের বক্তব্য দেয়া থেকে বিরত থাকা উচিত। এসব বাদ দিয়ে কেবল ভাল ক্রিকেট খেলার দিকে মনোযোগ দেয়া উচিত।’ তবে আক্রমণাত্মক মনোভাবে দোষ দেখছেন না শাস্ত্রী। কোহলিদের কোচ আরও যোগ করেন, ‘মাঠে ছেলেদের মানসিকতায় কোন সমস্যা নেই। আমাদের উদ্দেশ্য ছিল ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলা। প্রতিভা নিয়েও কোন প্রশ্ন নেই। কেবল শেষ পর্যন্ত মেজাজ ধরে রাখতে হবে।’ সিরিজে টিকে থাকতে হলে দ্বিতীয় টেস্টে জিততেই হবে। তার ওপর ইনজুরিতে ছিটকে গেছেন গলের সেঞ্চুরিয়ান ধাওয়ান। পরিবর্তে স্টুয়ার্ট বিনিকে ডাকা হয়েছে। শাস্ত্রী বলেন, ‘টেস্ট দলে ভারসাম্য আনতে হলে আমাদের অবশ্যই একজন ভাল অলরাউন্ডার প্রয়োজন। হয়ত একটা কপিল দেব আমাকে কেউ দিতে পারবেন না। খুব ভাল হয় একজন ব্যাটিং-অলরাউন্ডার পেলে। এই কাজটা বিনি করতে পারে, যতটুকু সুযোগ পেয়েছে, ও চেষ্টা করেছে। আশা করি এবার গুরুত্বপূর্ণ সময়ে নিজেকে মেল ধরতে পারবে।’ অধিনায়ক কোহলি অশ্বিন এবং হরভজনকে অলরাউন্ডারের ভূমিকায় দেখতে চাইলেও দুজনেরই মূল পরিচয় স্পিন বোলার। প্রথম ইনিংসে উইকেটশূন্য হরভজন দ্বিতীয় ইনিংসে নিয়েছেন মোটে ১ উইকেট। ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে ১৫ এবং দ্বিতীয় ইনিংসে মহাগুরুত্বপূর্ণ সময়ে সাজঘরে ফিরেছেন মাত্র ১ রান করে। তাই হরভজনকে বাইরে ঠেলে কলম্বো টেস্টে একাদশে ঢুকে পড়তে পারেন বিনি। শাস্ত্রী আরও যোগ করেন, ‘দীর্ঘদিন বাইরে থাকার পর কোন বোলারের ছন্দে ফিরতে একটু সময় লাগে। তাছাড়া গলে সেভাবে বল করার সুযোগ পায়নি সে। মনে রাখতে হবে হরভজন বিশ্বসেরাদের অন্যতম। বিদেশে একটা টেস্ট জিতলেই পরিস্থিতি বদলে যাবে।’

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া