১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্লাটারের পাল্টা জবাব চুং মংকে

  • এক ফিফা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগেরদিন সেপ ব্লাটারের কড়া সমালোচনা করেন ফিফা সভাপতি প্রার্থী চুং মং। এবার তাকে পাল্টা জবাব দিয়েছেন বর্তমান ফিফা সভাপতি। চুং মং-জুন প্রার্র্থী হওয়া সত্ত্বেও বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে দুর্নীতিগ্রস্ত সংগঠন বলায় কষ্ট পেয়েছেন ব্লাটার। মঙ্গলবার তিনি চুংয়ের সমালোচনার জবাব দেন। প্যারিসে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ব্লাটার জানিয়েছেন, দক্ষিণ কোরিয়ার শিল্পপতি সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে ফিফা সভাপতি হিসেবে নিজের প্রার্থিতা ঘোষণা করার সময় যে মন্তব্যটি করেছেন তাতে তিনি ‘অস্বস্তি’ বোধ করছেন। চুং বলেছিলেন, ‘ফিফা দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হওয়ার প্রধান কারণ হচ্ছে কিছু কিছু ব্যক্তির (ব্লাটার) ৪০ বছর ধরে প্রতিষ্ঠানটির ক্ষমতাকে আঁকড়ে ধরার প্রবণতা। অসীম ক্ষমতা সীমাহীন দুর্নীতির জন্ম দেয়। জবাবে ব্লাটার বলেন, ড. চুং মং-জুন ফিফাকে দুর্নীতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠান বলেছেন। এমন কথা শুনেই আমি অস্বস্তি বোধ করছি। তার এটি ভুলে গেলে চলবে না যে তিনি ফিফার সহ-সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন এবং ১৯৯৪ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত তিনি ফিফা ইমার্জেন্সি কমিটির সদস্য ছিলেন। তিনি আরও বলেন, চুং সংবাদ সম্মেলনে তাকে যে ব্যক্তিগত আক্রমণগুলো করেছেন তা যে কোন দিক থেকেই অসম্মানজনক। আমি ফের বলতে চাই যে ফিফা এই সংগঠনটির উন্নয়নের ব্যাপারে প্রত্যয়ী। যোগ্যতার সঙ্গে এর পরিচালনা পদ্ধতি ধারাবাহিকভাবে শক্তিশালী করছে। এখানে আমাদের কাজ হচ্ছে একে আরও বিকশিত করা। আন্তর্জাতিক ফুটবল কমিউনিটিকে শ্রেষ্ঠ অবস্থানে পৌঁছে দেয়ার ক্ষেত্রে মনোযোগ দেয়া। দুর্নীতির দায়ে ফিফা সদরদফতর সুইজারল্যান্ডের জুরিখ থেকে আটককৃত ৭ ফিফা কর্মকর্তার একজনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে নিকারাগুয়ায়। অচিরেই তার বিরুদ্ধে মামলার শুনানি শুরু হবে বলে একজন আইনজীবী জানিয়েছেন। গত মে মাসে জুরিখের একটি হোটেল থেকে আটক ফিফা কর্মকর্তাদের মধ্যে আছেন নিকারাগুয়া ফুটবল ফেডারেশনের সাবেক প্রধান জুলিও রোচা। তিনি বর্তমানে জেল হাজতে আছেন। সুইস কর্মকর্তাদের ভাষ্য অনুযায়ী, নিজ দেশে তার বিচারকার্য শুরুর ব্যাপারে গত সপ্তাহে সম্মতি দিয়েছেন নিকারাগুয়ার ওই নাগরিক। আইনজীবী জুলিয়া গুইডো বলেন, গত ৪ আগস্ট রোচার বিরুদ্ধে মামলাটি রুজু হয়েছে। তিনি বলেন, তদন্তকারীরা নিশ্চিত হয়েছেন যে একটি কোম্পানির সঙ্গে সম্প্রচার চুক্তির বিপরীতে রোচা অবৈধভাবে এক লাখ মার্কিন ডলার হাতিয়ে নিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রও ফিফা ব্যাপক দুর্নীতির তদন্ত, প্রমাণ এবং বিচারের জন্য রোচাকে পেতে চেয়েছে। তবে সুইস বিচার মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র গত সপ্তাহে বলেছিলেন, মার্কিন কর্মকর্তাদের অনুমোদন ছাড়া তারা রোচাকে বিচারের জন্য কারও কাছে হস্তান্তর করবে না। উল্লেখ্য, ১৯৯৭ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত নিকারাগুয়া অলিম্পিক কমিটির অংশ হয়ে থাকা রোচা ২০১২ সাল থেকে ফিফার ডেভেলপমেন্ট কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দেন।