২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জিয়া ছিলেন মুক্তিযুদ্ধে অনুপ্রবেশকারী ॥ নূর

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মঙ্গলবার দুপুরে স্থানীয় শিল্পকলা অডিটরিয়ামে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বঙ্গবন্ধুর সপরিবারের হত্যার ঘটনার জাতির একটি পত্রিকার প্রতিবেদনের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের তিন ঘণ্টা আগে জিয়াউর রহমানের বাসায় বৈঠক হয়েছিল। গণতান্ত্রিক এবং অসাম্প্রদায়িক চেতনার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে যাক এটা তারা মানতে পারেনি বলে ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে বাঙালীর চেতনাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু বাঙালী জাতির রক্তে মিশে আছে গণতান্ত্রিক অসম্প্রদায়িক শক্তি। এই কারণে তারা বাঙালীর চেতনাকে ধ্বংস করতে পারেনি। মন্ত্রী এ প্রসঙ্গে আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার নেপথ্যে থেকে জিয়াউর রহমান সেই খুনীদের বিশেষ বিমানে বিদেশে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছিলেন। খুনীদের বিভিন্ন দূতাবাসে চাকরি দিয়েছিলেন। যুদ্ধাপরাধী গোলাম আজমকে পাকিস্তান থেকে দেশে ফিরিয়ে এনে নাগরিকত্ব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। যুদ্ধাপরাধীদের মন্ত্রিত্ব দিয়েছিলেন। এ থেকে স্পষ্ট বোঝা যায় জিয়াউর রহমান মনে প্রাণে মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না, ছিলেন বিদেশী চর হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে অনুপ্রবেশকারী।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোক সভার আলোচনায় বক্তব্য রাখেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমা-ার ফজলুল হক, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুজার রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হাসান, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি অক্ষয় কুমার রায়, জেলা যুবলীগের সভাপতি রামেন্দ্র বর্ধন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য খোকা রাম রায় প্রমুখ।