২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নওগাঁ সীমান্তের ওপারে গিয়ে যুবক নিহত

অনলাইন ডেস্ক ॥ নওগাঁর সাপাহার উপজেলার কলমুডাঙ্গা সীমান্তের ওপারে গিয়ে নির্যাতন ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে এক বাংলাদেশি যুবক নিহত হয়েছেন।

বুধবার সকালে এ ঘটনায় নিহত শফিকুল ইসলাম (৩০) কলমুডাঙ্গা গ্রামের এসলাস আলীর ছেলে।

তাকে মারধর করে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বলে বিজিবি জানিয়েছে।

বুধবার সকাল ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শফিকুল ইসলাম সাপাহার উপজেলার কলমুডাঙ্গা গ্রামের এসলাস আলীর ছেলে।

শফিকুলের সঙ্গীদের বরাত দিয়ে ১৪ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল রফিকুল হাসান জানান, ভোরে স্থানীয় বেশ কয়েকজন গরু ব্যবসায়ী কলমুডাঙ্গা সীমান্তের ২৩১(১) এস পিলারের পাশ দিয়ে ওপারে গরু আনতে যান।

“গরু নিয়ে ফেরার সময় ৩১ পান্নাপুর বিএসএফর আধাডাঙা ক্যাম্পের সদস্যরা তাদের ধাওয়া করে ।

“অন্যরা পালিয়ে আসতে পারলেও শফিকুল ইসলাম পারেননি।”

তিনি জানান, সকাল সাড়ে ৫টার দিকে মারধর ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত শফিকুলকে ২৩১(১) পিলারের পাশে পাওয়া যায়।

সেখান থেকে সঙ্গীরা উদ্ধার করে সাপাহার হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান এই বিজিবি কর্মকর্তা।

সাপাহার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাহাঙ্গীর আলম নিহত শফিকুল ইসলামের ছোট ভাই ইমরুল কায়েসের বরাত দিয়ে জানান, শফিকুল ভোর ৪টার দিকে ভারত থেকে গরু নিয়ে ফেরার পথে বিএসএফের হাতে ধরা পড়েন।

সকাল সাড়ে ৫টার দিকে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সীমান্ত পিলারের পাশে পাওয়া যায়। হাসপাতালে নেবার পথে তার মৃত্যু হয় বলে জানান ওসি।

ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ একটি অপমৃত্যুর মামলা করেছে।

নির্বাচিত সংবাদ