২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘গণতন্ত্র অবরুদ্ধ’

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, ‘গণতন্ত্রের জন্য আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি। অথচ আজকে দেশে গণতন্ত্র অবরুদ্ধ।’

তিনি বলেন, ‘দেশে জনগণের সরকার ক্ষমতায় নেই। বর্তমান সরকার ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করে রেখেছে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণের একমাত্র পথ নির্বাচন। বিএনপি দেশে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বেই আমরা দেশে গণতন্ত্র আদায় করব।’

বুধবার বিএনপির অঙ্গ সংগঠন জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সাবেক রাষ্ট্রপতি শহীদ জিয়াউর রহমানের শেরেবাংলা নগরের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের এ সব কথা বলেন নজরুল ইসলাম। সকাল সাড়ে ১০টায় এ কর্মসূচি হওয়ার কথা থাকলেও তা শুরু হয় দুপুর ১২টার পরে।

এ সময় সংগঠনের সহ-সভাপতি মুনির হোসেন, মহানগর উত্তরের সভাপতি ইয়াসিন আলী, দফতর সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বাচ্চুসহ দেড় শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। নেতাকর্মীদের ধাক্কাধাক্কি ও ঠেলাঠেলিতে গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে কথা বলতে নজরুল ইসলাম খানকে বেশ ধকল পোহাতে হয়।

এ সময় বেসরকারি টেলিভিশনের ‘ফ্রেমে’ নিজের চেহারা ধরে রাখতে সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে তুমুল প্রতিযোগিতা শুরু হয়। এতে সংবাদকর্মীদেরও পেশাগত দায়িত্ব পালনে সমস্যায় পড়তে হয়।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে বহু নেতাকর্মীকে কারাগারে নেওয়া হয়েছে। এখনও অনেককে গ্রেফতার করা হচ্ছে। মামলার কারণেই আজকে নিজেদের সংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সত্ত্বেও স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ অন্য নেতারা দলের প্রতিষ্ঠাতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত হতে পারেননি।’

তিনি বলেন, ‘গ্রেফতার করে আন্দোলন ও বিজয় ঠেকানো যায় না। আওয়ামী লীগ তা ভাল করেই জানে। এক সময় আওয়ামী লীগের সব নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। মামলা দেওয়া হয়েছিল। তারপরও তাদের বিজয় অর্জন ঠেকানো যায়নি। তেমনি বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে গণতন্ত্রের বিজয় অর্জন ঠেকানো যাবে না। মিথ্যা মামলা ও নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে দল পুনর্গঠনে সরকার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে।’

বিএনপির এ সিনিয়র নেতা বলেন, ‘বিএনপি পুনর্গঠনের কাজ ভালভাবে চলছে। উপজেলা, জেলা, মহানগরে কমিটি গঠন ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে। এরপর দলের জাতীয় কাউন্সিল হবে। এর আগেও কয়েকবার জাতীয় কাউন্সিল করার চূড়ান্ত পর্যায় থেকে সরকারের নানা বাধার কারণে আমাদের ফিরে আসতে হয়েছে।’

এ সময় আটক নেতাদের অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানান তিনি।