২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহীতে চোখের জলে শেষকৃত্য, ট্রাকচালক কারাগারে

  • একই পরিবারের সাতজন নিহত

মামুন-অর-রশিদ, রাজশাহী ॥ রাজশাহীর পুঠিয়ায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের সাত সদস্যের মৃত্যুকে প্রায় নিস্তব্ধ এখন দাসমাড়িয়া গ্রামের হিন্দুপাড়া। প্রতিবেশীরাও শোকে পাথর। কথা নেই কারো মুখে। চোখে শুধু বেদনার অশ্রু। কেউ ভাবতেই পারছেন না এমন পরিণতি হতে পারে। একই পরিবারের নারী ও শিশুসহ সাতজনের করুণ মৃত্যুতে যেন শোকাহত পুরো পল্লী। দুর্ঘটনার পর ময়নাতদন্ত শেষে রাতেই তাদের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে। দুর্ঘটনার পর থেকে পরিবারের সবাইকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ শ্যামল চক্রবর্তী। দুর্ঘটনায় তার স্ত্রী সুমি চক্রবর্তীও নিহত হয়েছে।

একই সঙ্গে হারিয়েছে স্বজনরাও। রাত ১২টায় স্থানীয় শ্মশানে তাদের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। এ সময় আশপাশের গ্রামের হাজারো মানুষ হাজির হন। সাতজনের মধ্যে তিন শিশুকে মাটি দেয়া হয়েছে অপর চারজনকে চিতায় পোড়ানো হয়েছে। এ সময় সেখানে হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।

এদিকে ঘটনার পর আটক ট্রাকচালক জনাব আলী প্রামাণিকের বিরুদ্ধে পুঠিয়া থানায় মামলা হয়েছে। দুর্ঘটনায় নিহত সুমি চক্রবর্তীর স্বামী শ্যামল চক্রবর্তী বাদী হয়ে থানায় মামলাটি করেন।

মামলাটি রেকর্ড করে বুধবার দুপুরে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ তাকে আদালতে চালান করেছে। প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার বিকেলে পার্শ্ববর্তী তাহেরপুরে আত্মীয়ের বাড়িতে দাওয়াত খেয়ে নিজ বাড়িতে ফেরার পথে বালুবাহী বেপরোয়া ট্রাকের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই অটোরিকশা আরোহী ৯ জনের সাতজনই প্রাণ হারান। এরা সবাই একই পরিবারের সদস্য। এদের মধ্যে তিন শিশু, তিন নারীসহ মোট সাত ছিলেন। নিহতদের মধ্যে অটোরিক্সা চালকও ওই পরিবারেরই সদস্য ছিলেন বলে জানা গেছে।

নির্বাচিত সংবাদ