২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

খেলা শুরুর আগেই গলদ!

  • বিপিএল টি২ তৃতীয় আসর, মঙ্গলবার দুপুরে ১ প্রতিষ্ঠানের নাম ঘোষণা করে রাতে হয়ে গেল ১১টি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টি২০’র তৃতীয় আসর শুরু হওয়ার সম্ভাব্য তারিখ ধরা হয়েছে ২২ থেকে ২৫ নবেম্বর। ৭টি দল অংশ নেবে লীগে। এজন্য মঙ্গলবার দুপুরে জানানো হয়েছে দেশের ১০টি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান দল কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। দল নেয়ার জন্য আবেদনও করেছে। প্রতিষ্ঠানের নামগুলোও সংবাদ সম্মেলন করেই ঘোষণা করা হয়েছে। অথচ রাতেই আরেকটি প্রতিষ্ঠানের নাম যুক্ত করা হয়েছে। ভুল দিয়েই তৃতীয় আসরের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শুরুতেই গলদ ধরা পড়েছে! এ বিষয়টিতে ১০ না ১১ প্রতিষ্ঠান আগ্রহী, এ নিয়ে বিভ্রান্তিও ছড়িয়ে পড়েছে।

যেখানে সংবাদ সম্মেলন করে হাতে প্রতিষ্ঠানের নামগুলো নিয়ে জানানো হয়েছে, সেখানে এমন ভুল হয় কী করে? যেখানে সোমবারই প্রতিষ্ঠানগুলোর আবেদনের শেষ সময় ছিল, সেখানে কিভাবে এমন ভুল হলো? পরে আরেকটি নাম কিভাবে যুক্ত হয়ে গেল? বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক আফজালুর রহমান সিনহার কাছ থেকে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে মজাদার তথ্যই মিলল। তিনি নিজেই জানেন না, বিপিএলে দল কেনার ক্ষেত্রে আগ্রহ দেখানো প্রতিষ্ঠান রাতে ১১টি হয়ে গেছে! সিনহা বুধবার দুপুরে জানালেন, ‘না, ১১টা তো হয় নাই। এটা ভুল। আমি নিজেও জানি ১০টা। মল্লিক (বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার) এটা তো বলেও দিয়েছে।’ সদস্য সচিবের সঙ্গে যোগাযোগ করেও পাওয়া যায়নি। পরে সিনহা বিকেলেই আবার জানালেন, ‘আসলে খবর নিয়ে জানলাম, ফাইবার এ্যান্ড হোম লিমিটেড নামের প্রতিষ্ঠানটি সোমবার রাতে মেইলের মাধ্যমে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।’

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল) ৭টি দল কিনতে আগ্রহ দেখিয়েছে ১০ প্রতিষ্ঠান। সেই প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছেÑ বেক্সিমকো, মিডিয়াকম (স্কয়ার), সোহানা গ্রুপ অব কোম্পানি, ইনডেক্স গ্রুপ, এক্সিওম টেকনোলজি লিমিটেড, ডিবিএল গ্রুপ, বিবিএস কেবলস, বেঙ্গল কমিউনিকেশন, ব্লুজ কমিউনিকেশন ও নেট ওয়ার্ল্ড বিডি লিমিটেড। মঙ্গলবার দুপুরে এমনটি জানানো হয়েছে। সন্ধ্যা পর্যন্ত তাই থাকে। কিন্তু হঠাৎ করে রাতেই জানানো হয়, ফাইবার এ্যাড হোম লিমিটেড নামে আরেকটি প্রতিষ্ঠান দল কিনতে আগ্রহী। এটা কিভাবে সম্ভব?

বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস এ বিষয়ে জানালেন, ‘আসলে যে প্রতিষ্ঠানের নামটি পরে দেয়া হয়েছে, সেই প্রতিষ্ঠানটি মেইলে তাদের আগ্রহের কথা জানিয়েছে। সেটি সংবাদ সম্মেলনেই ঘোষণা করতে চেয়েছিল; কিন্তু পরে জানিয়েছে।’ সব দল বিসিবিতে এসে আগ্রহের কথা জানাল। অথচ ফাইবার এ্যান্ড হোম লিমিটেড মেইলে তাদের আগ্রহ প্রকাশ করল; তাতে বিসিবিও রাজি হয়ে গেল!

সাতটি দল কিনতে যে প্রতিষ্ঠানগুলোর আগ্রহের কথা বলা হচ্ছে, আসলে সেটিও ঠিক থাকছে না। ৫টি দল দেয়া হবে আগ্রহ প্রতিষ্ঠানগুলোকে। সেটি আবার কোন দল কেনার ক্ষেত্রে আগ্রহ দেখালেই হবে না, বিসিবিই নির্ধারণ করে দেবে কোন প্রতিষ্ঠান কোন দল পাবে। যদি দুই প্রতিষ্ঠান একই দল কিনতে চায়, সেক্ষেত্রে বিসিবিই নির্ধারণ করবে কোন প্রতিষ্ঠানকে দলটি দেয়া হবে। তার মানে ১১টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৫টি প্রতিষ্ঠান ৫টি দল পাবে। যদি শেষপর্যন্ত ৭ দল নিয়েই বিপিএল হয়, তাহলে পুরনো যারা পাওনা পরিশোধ করে লীগের সঙ্গে থাকতে চাইবে, তারা সেই ২টি দল পাবে। পুরনো দলগুলোর মধ্যে সিলেট রয়্যালস ও রংপুর রাইডার্সের থাকার সম্ভাবনার কথাই শোনা যাচ্ছে বেশি।

বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিকই সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, ‘আগামী মাসের (সেপ্টেম্বরের) প্রথম সপ্তাহে আমরা চূড়ান্তভাবে সাতটি প্রতিষ্ঠানের নাম ঘোষণা করব। দশটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যারা ক্রিকেটের জন্য বেশি আগ্রহী, যাদের ক্রিকেটের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বেশি, ক্রিকেটের উন্নয়নে কাজ করতে ইচ্ছুক তাদেরই বেছে নেয়া হবে।’ কিন্তু এ বেছে নেয়ার আগে শুরুতেই একটি গলদ ধরা পড়েছে।