২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাঙ্গার বিদায়ী বিষণ্নতার টেস্ট

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পনোর বছর আগে গলে শুরু হয়েছিল যে অধ্যায়ের, তার পরিসমাপ্তি হতে যাচ্ছে কলম্বোয়। পিস সারা ওভালে আজ থেকে শুরু হওয়া সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেখা যাবে না লঙ্কান গ্রেট কুমার সাঙ্গাকারাকে। এর মধ্য দিয়ে শেষ হবে দ্বীপ দেশটির ক্রিকেট ইতিহাসের আরও এক অধ্যায়ের। ব্রায়ান লারা না শচীন টেন্ডুলকর, মুরলিধরন না শেন ওয়ার্ন- বল হাতে কে সেরা? এ নিয়ে বির্তক থাকতে পারে; কিন্তু সাঙ্গাকারা যে শ্রীলঙ্কার সেরা স্টাইলিশ ব্যাটসম্যান, তা নিয়ে সন্দেহ নেই। সন্দেহ নেই তিনি আধুনিক বিশ্বের অন্যতম সফল ক্রিকেটার। পরিসংখ্যানই তার হয়ে কথা বলে। পাঁচটি মাত্র দিন, হয়ত বা কম-বেশি, তারপরই বাইশ গজের সবুজ জমিনে দেখা যাবে না ব্যাটিংয়ের অনিন্দ্যসুন্দর এই শিল্পীকে। কলম্বো টেস্ট ভারতের জন্য ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই, সিরিজে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে বিরাট কোহলিদের চ্যালেঞ্জ। দীর্ঘ ২২ বছরে লঙ্কার মাটিতে টেস্ট সিরিজ জয়ের নজির আরও দীর্ঘ হবে কিনা, কঠিন সেই প্রশ্নে সামনে দাঁড়িয়ে ক্রিকেটের মোড়লরা। কিন্তু দ্বীপদেশ লঙ্কানদের সেসব নিয়ে ভাবার সময় কোথায়? তারা ব্যস্ত তাদের চলমান কিংবন্তির বিদায় স্মরণীয় করে রাখতে। পি সারা ওভাল সেজেছে বর্ণিল সাজে। গেটের বাইরে শোভা পাচ্ছে সাঙ্গাকারার ম্যুরাল। ক্রিকেটে ভদ্রলোকের প্রতিমূর্ত এক লঙ্কানকে বিদায় জানাতে স্যালুট করছে কলম্বো, গোটা শ্রীলঙ্কা, বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনও নয় কী? অধিনায়ক ম্যাথুস তো পরিষ্কার বলেছেন, সাঙ্গার বিদায়মাল্য হিসেবে এ ম্যাচটা তারা জিততে চান। সেই সঙ্গে এক টেস্ট বাকি থাকতে সিরিজও পকেটে পুরতে চায় তার দল।

এ নিয়ে ম্যাথুস বলেন, ‘সাঙ্গাকারার সঙ্গে খেলতে পেরে আমি গর্বিত। সিরিজ জয়ই হতে পারে ওর মতো গ্রেটের বিদায়ের সেরা উপহার। গলে প্রথম টেস্ট জিতে আমরা সেই পথে রয়েছি। কলম্বো টেস্ট জিতে এক ম্যাচ আগেই সিরিজ নিশ্চিত করতে চাই। সাঙ্গাকে জয় উপহার দিতে প্রস্তুত সবাই।’ এমনকি সিরিজে টিকে থাকতে নিজেদের কাঠিন চ্যালেঞ্জ ভুলে প্রতিপক্ষ ভারতও সাঙ্গার বিদায়ে বুঁদ! কিছুটা যেন আবেগতাড়িত অধিনায়ক কোহলি বলেন, ‘সাঙ্গা অসাধারণ ক্রিকেটার। বিশ্বের তাবত বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ওকে ফলো করে, ও কিভাবে এত এত রান করেছে। নিজের টেকনিক দিয়ে মাঠ মাতিয়ে রেখেছে, সেটি মুগ্ধ হয়ে দেখার মতো। সাঙ্গার অর্জনই ওর হয়ে কথা বলবে।’ ব্যক্তি সাঙ্গাকারাকে নিয়েও কোহলির মুগ্ধতার শেষ নেই। তিনি আরও যোগ করেন, ‘ব্যক্তি সাঙ্গাকারা দারুণ এক মানুষ। আমি ওর সঙ্গে মাঠ ও মাঠের বাইরে অনেক কথা বলেছি। এটা ভেবে ভাল লাগছে যে, বিদায় বেলায় শেষ দুটি ম্যাচে মাঠে ওর পাশে থাকতে পারছি।’ ২০০০ সালের ২০ জুলাই, গলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক সাঙ্গাকারার। ১৩৩ টেস্টে ৫৮ গড়ে মোট রান ১২,৩৫০ আর সেঞ্চুরি ৩৮টি। ৪০৪ ওয়ানডেতে ৪২ গড়ে রান ১৪,২৩৪ আর সেঞ্চুরি ২৫। অর্থাৎ দুই ভার্সনে সেঞ্চুরি সংখ্যা ৬৩। সর্বকালের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের তালিকায় পঞ্চম স্থানে সাঙ্গাকারা। ১৫,৯২১ রান ও ৫১ সেঞ্চুরি নিয়ে যে তালিকায় সবার ওপরে শচীন টেন্ডুলকর। ১১টি ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে এ তালিকায় স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের ঠিক পেছনে (১২) সাঙ্গা। পরিসংখ্যানই বলে কেন তিনি আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতমসেরা। দল শিরোপা পায়নি; কিন্তু এবারের ওয়ানডে বিশ্বকাপে প্রথম ব্যাটসমান হিসেবে টানা চার ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে গড়েছেন বিরল রেকর্ড। বিশ্বমঞ্চেই বিদায় জানিয়েছেন রঙিন পোশাকের ক্রিকেটকে। এবার সাদা পোশাকের টেস্ট দিয়ে প্রস্থান আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে...।