২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অভিষেক-অসিনের কামব্যাক

আশির দশকের গোড়ায়, যখন তিনি বলিউডের ‘ওয়ান ম্যান ইন্ডাস্ট্রি’ বিশেষণ পেয়ে গেছেন, তখন বিখ্যাত এক ফিল্ম ম্যাগাজিনের সাংবাদিক তাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, সিনেমায় সফল না হলে তিনি কী করতেন। তখন উত্তরে তিনি বলেছিলেন, ‘এলাহাবাদ ফিরে গিয়ে দুধ বেচতাম’। কথাটা যে নিছক ঠাট্টা করে বলেছিলেন সে বিষয়ে কোন অবকাশ নেই। বলছিলাম বলিউডের বিগ বি অমিতাভ বচ্চনের কথা। যিনি কিনা ২৭ বছর বয়সে অভিনয় জীবন শুরু করেন এবং আর কয়েক বছর পর পূর্ণ হতে যাবে তার অভিনয় জীবনের হাফ সেঞ্চুরি। এই দীর্ঘ অভিনয় জীবনে তিনি অসংখ্য ছবিতে কাজ করেছেন এবং কুড়িয়ে নিয়েছেন দর্শক জনপ্রিয়তা। যার জন্য তিনি আজ বলিউডের জীবন্ত কিংবদন্তি। তাই বিগ বির উত্তরসূরি হিসেবে ২০০০ সালে রিফুউজি ছবির মাধ্যমে বলিউডে পা রাখেন তারই সন্তান অভিষেক বচ্চন। তখন থেকেই সবাই ভেবেছিলেন যে বলিউড পেতে যাচ্ছে আরেকজন জীবন্ত কিংবদন্তি। যে কিনা হয়ত নিজের বাবাকেও পেছনে ফেলে অর্জন করে নেবে বলিউডের শ্রেষ্ঠ অবস্থান। কিন্তু অভিষেক যেন সবার সেই আশায় গুড়েবালি করে দিল এবং ব্যর্থ হলেন নিজের নামের সার্থকতা পূরণ করতে। কারণ ১৫ বছরের অভিনয় ক্যারিয়ারে অভিষেক যেন এখনও মলিন হয়ে আছে। এক যুগের বেশি সময় পার করলেও অভিষেকের ঝুলিতে আছে মাত্র ১৪টি ছবি। যার মধ্যে বেশির ভাগ ছবিই দর্শক নন্দিত নয়। তবে গুরু, সরকার রাজ ও পা ছবিতে কিছুটা হলেও আলোর মুখ দেখেছিলেন অভিষেক। কিন্তু বাদবাকি ছবিগুলোতে তিনি যেন নিজেকে খুব একটা মেলে ধরতে পারেননি। অভিষেক যেহেতু বিগ বির সন্তান তাই দর্শকদের প্রত্যাশা তার কাছে যেন একটু বেশি থাকে। দর্শকের প্রত্যাশা মাথায় রেখে প্রতিবারই অভিষেক নতুন উদ্যম নিয়ে ছবির কাজ শুরু করেন এবং দিন শেষে যেন তাকে মলিন হয়েই থাকতে হয়। তবে তার ভাগ্যে কিছুটা হলেও আলোর ঝলকানি পড়ে, যখন বলিউডের অন্যতম সেনস্যেশন ঐশ্বরিয়া রায় এর সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। কারণ অভিষেকের যে কটা ছবি এখন পর্যন্ত দর্শক নন্দিত হয়েছে তার সব কটাই বিয়ের পরের ছবি। তাই ঐশ্বরিয়া যেন নিজের অভিনয় ক্যারিয়ারের ঝলকানিটা অভিষেকের ওপর ফেলেছেন এবং অভিষেকও পর পর কিছু ছবিতে ভালই দর্শক জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। তারই ধারাবাহিকতায় অভিষেক দ্বিতীয় বারের মতো জুটিবদ্ধ হলেন দক্ষিণের নায়িকা অসিনের সঙ্গে। কমেডি ছবি বোল বচ্চনে প্রথমবারের মতো তারা জুটিবদ্ধ হয়েছিলেন এবং ছবিতে সাফল্যের পুরস্কার হিসেবে অভিষেক জিতে নেন শ্রেষ্ঠ কমেডিয়ানের আসন। তাই তিন বছর পর আবারও তারা জুটিবদ্ধ হলেন উমেশ শুক্লার নতুন ছবি ‘অল ইজ ওয়েল’-তে। যেখানে তারা দু’জনেই কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন। তাছাড়া তাদের সঙ্গে এই ছবিতে আরও আছেন ঋষি কাপুর, সুপ্রিয় পাঠক প্রমুখ। সুমিত আরোরা ও নিরেন ভাটের গল্প অবলম্বনে টিÑ সিরিজের ব্যানারে ভারত বর্ষজুড়ে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে আগামীকাল। ছবিটি প্রযোজনায় আছেন ভূষণ কুমার ও কৃষাণ কুমার। আর ছবিটির সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন হিমেশ রেশমিয়া, অমল মল্লিক ও মিথুন। তবে ছবির মূল চমক হলো বলিউডের বিখ্যাত ছবি ‘কেয়ামত সে কেয়ামত’র বিখ্যাত গান মেরে হামসাফারের নতুন সংযোজন। যেখানে কণ্ঠ দিয়েছেন মিথুন ও তুলসি কুমার। আগামীকাল মুক্তি পেতে যাওয়া ‘অল ইজ ওয়েল’ ছবিটি নিয়ে পরিচালক উমেশ শুক্লা প্রচ- আশাবাদী। তিনি বলেন, আমার এই ছবি দর্শকরা নিমেষেই গ্রহণ করে নেবে। কারণ এতে আমি সামাজিক দায়বদ্ধতা নিয়ে কাজ করেছি এবং একটা সামাজিক বার্তা সমাজের সর্বস্তরের কাছে পৌঁছে দিতে চেয়েছি। ঠিক যেমনটি করেছিলাম আমার আগের ছবি ‘ওএমজিÑ ওহ মাই গড’-এ। তাই আশা করছি, এবারও আমি সফল হব এবং দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণে সহায়ক হব। তাই ছবিটি দেখলেই বুঝতে পারবেন যে, আমাদের সমাজের কিছু বাস্তব চিত্র এবং অনুভব করবেন যার যার দায়বদ্ধতা। পরিচালক উমেশ শুক্লার মতো ছবির হিরো হিরোইন রাও ছবির সফলতা নিয়ে একই আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং নিজেদের দ্বিতীয় জুটিবদ্ধ ছবিটি সকলের প্রত্যাশানুযায়ী হবে বলেই সাইকে ছবিটি দেখার অনুরোধ জানান।

নাজমুল আহমেদ তন্ময়