২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অনুমোদনহীন হজে জেল-জরিমানা

অনলাইন ডেস্ক ॥ তাসরিয়াহহীন (অনুমোদনহীন) হজযাত্রীদের কঠোর শাস্তির মুখোমুখি করা হবে বলে হুঁশিয়ারি জানিয়েছে সৌদি আরব হজ মন্ত্রণালয়। এক্ষেত্রে জেল-জরিমানাসহ দোষী ব্যক্তি বিদেশি হলে শাস্তি ভোগের পর তাকে নিজ দেশে পাঠানো এবং সৌদি আরবে তার প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হবে।

বুধবার রাতে সৌদি হজ মন্ত্রণালয়ের এক টুইট বার্তায় এ হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

টুইট বার্তায় বলা হয়, প্রতিবছর সৌদি আরবে অবস্থানরত সৌদি ও বিদেশি নাগরিকরা অনুমোদন ছাড়া হজে যাওয়ার চেষ্টা করে থাকেন, যা হজ ব্যবস্থাপনায় বড় ধরনের বিপর্যয় সৃষ্টি করে। এটা অনেক ক্ষেত্রে প্রাণহানির মতো বড় দুর্ঘটনাও ঘটায়। তাই সুষ্ঠু হজ ব্যবস্থাপনার জন্য সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে এমন কঠোর নিয়ম আরোপ করা হয়েছে।

যদি কোনো নাগরিক অবৈধভাবে হজ করার চেষ্টা চালায় তাহলে তাকে দুই মাসের কারাদণ্ডসহ ২৫ হাজার রিয়াল (৫ লাখ টাকা) জরিমানা করা হবে। এছাড়া যদি কেউ হজ গ্রাউন্ডে দুই বার প্রবেশের চেষ্টা চালায় তাহলে তাকে ছয় মাসের কারাদণ্ডসহ ৫০ হাজার রিয়াল (১০ লাখ টাকা) জরিমানা করা হবে।

এছাড়া অবৈধ হজযাত্রী বহনও সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে চালক ও পরিবহন সংস্থাকে কঠোর শাস্তির মুখোমুখি করা হবে বলেও জানানো হয়। এ অপরাধে পরিবহন বাজেয়াপ্ত ও ১ লাখ রিয়াল জরিমানা, সেই সঙ্গে দুই বছরের কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। পরিবহনের চালক ও মালিক যদি বিদেশি হয় সেক্ষেত্রে দোষী ব্যক্তিকে শাস্তি ভোগের পর স্ব স্ব দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে এবং সৌদি আরবে তার প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হবে বলেও টুইট বার্তায় জানানো হয়।

সৌদি পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সোলায়মান আব্দুল আজীজ আল ইয়াহইয়া সাংবাদিকদের বলেন, আমরা আমাদের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি। তারা আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে অবৈধ হজযাত্রী সনাক্ত করতে সক্ষমতা অর্জন করেছে। গত বছর আমরা প্রায় ৪৯ হাজার অবৈধ হজযাত্রী ফেরত পাঠাতে সক্ষম হয়েছি। এবারও আমাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।